আমার পারফরম্যান্সে যেন রংপুর রেঞ্জার্স জিততে পারে : তাসকিন

স্পোর্টস ডেস্ক
স্পোর্টস ডেস্ক স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৮:২৪ পিএম, ০৫ ডিসেম্বর ২০১৯

চোট আর অফফর্মে জাতীয় দলের বাইরে চলে গিয়েছেন অনেক দিন হলো। সামনে মহাগুরুত্বপূর্ণ বিপিএল। এই টুর্নামেন্ট দিয়েই আবার নিজেকে ফিরে পেতে চান গতিতারকা তাসকিন আহমেদ।

এবার তাসকিন খেলবেন বিপিএলের দল রংপুর রেঞ্জার্সে। এই টুর্নামেন্টে গতবার বল হাতে দারুণ পারফর্ম করেছিলেন ডানহাতি এই পেসার। রংপুরেও নিজের সেরাটা দিতে চান তাসকিন।

সেইসঙ্গে জাতীয় দলে ফেরার দিকেও চোখ থাকবে তার। তাসকিন বলেন, ‘আসলে আমার এখন লক্ষ্যই হল যেখানেই সুযোগ হোক ভালো খেলা। চেষ্টা করবো সুস্থ থাকার, চেষ্টা করছিও যেভাবে ফিট থাকা যায়। লক্ষ্যই এখন একটা সামনের বিপিএল ভালো খেলা। নিজের সর্বোচ্চটা দিয়ে চেষ্টা করবো ভালো খেলার। ভালো পারফরম্যান্স করে জাতীয় দলে খেলার সুযোগ পাই এটাই আমার লক্ষ্য।’

বিপিএলে ভালো করার পেছনে কারণ কি? তাসকিনের জবাব, ‘আসলে বিপিএল আমি খুব উপভোগ করি। আমার খুব ভালো লাগে বাংলাদেশের সেরা টুর্নামেন্টটা। আর অনেক তারকা খেলোয়াড় থাকে, ড্রেসিংরুম শেয়ার করা হয়, তো একটা আমেজ থাকে। আমার মধ্যে একটা আনন্দ কাজ করে বিপিএলে, উপভোগ করি।’

এবারই সেই উপভোগের মন্ত্রেই সাফল্য পেতে চান তাসকিন, চান দলকে জেতাতে। ডানহাতি এই পেসারের ভাষায়, ‘আশা তো থাকবেই আগের থেকে ভালো করার। কিন্তু দিনশেষে এটা একটা খেলা। ভালো খারাপ হবেই। আমি চেষ্টা করবো সর্বোচ্চটা দিতে প্রত্যেকটা ম্যাচে। যাতে আমার কারণে রংপুর রেঞ্জার্স ম্যাচ জিততে পারে ।’

গতি আছে তার। তবে টি-টোয়েন্টি ভালো করতে শুধু গতির ওপর নির্ভর করলেই হয় না, জানা আছে তাসকিনের। গতির সঙ্গে তাই বৈচিত্র্যের সংমিশ্রণ ঘটাতে চান।

আর চোটে যেন না পড়তে হয়, সে ব্যাপারেও সতর্ক থাকবেন বলে জানালেন তাসকিন। তিনি বলেন, ‘ইনজুরি ম্যানেজমেন্ট আগের থেকে বেটার। আমি এখন ভালো বুঝতে পারি শরীরের ধরন বা কীভাবে কি করা যায়। তাও ইনজুরি আসলে জীবনেরই অংশ, পেসারদেরই বেশি হয়। তো চাইবো যে নিজের ডিসিপ্লিন বা প্রস্তুতিটা আরও বেটার করার জন্য যাতে সুস্থ থাকি।’

এ তো গেল বিপিএলের কথা। পেস বোলারদের সামর্থ্য দেখানোর আসল জায়গাটাই টেস্ট। টেস্ট ক্রিকেটে ফেরার বিষয়ে তাসকিনের ভাবনাটা কেমন? জাতীয় দলের এই পেসারকে এ নিয়ে বেশ ইতিবাচকই মনে হলো।

তিনি বলেন, ‘টেস্ট ক্রিকেট একটা কঠিন জায়গা। মেন্টালি ফিটনেস, স্কিল একটু বেশি লাগে। এটার জন্য বিসিবি আমাদের সেরাটা দিচ্ছে, ভালো ভালো কোচের অধীনে ট্রেনিং করাচ্ছে। নিজেদেরও ইচ্ছেশক্তিটা আরও বেশি লাগবে বলে মনে করছি। নিজের তাগিদে উন্নতি, নিজের ইচ্ছেয় ট্রেনিং করা বা আলাদা ব্যক্তিগত ট্রেনার নিয়ে ট্রেনিং করা। এ জিনিসগুলো আগে থেকে অনেক বেটার বলা যায় আমাদের মধ্যে। আমাদের মধ্যে এই উন্নতি করাটা শুরু হয়েছে।’

প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটেও এখন পেসাররা আগের চেয়ে বেশি বল করার সুযোগ পাচ্ছে, মনে করছেন তাসকিন। তার ভাষায়, ‘এখন কিন্তু যারা টেস্ট খেলে তারা আমাদের প্রথম শ্রেণিতে বেশ মনযোগী। ভালোমত খেলছে। বিশেষ করে বোলাররা। আমিও আল্লাহর রহমতে অনেক বেশি বল করেছি এবার। নিজেকে সেভাবেই প্রস্তুত করছি যাতে ভবিষ্যতে আন্তর্জাতিক ম্যাচে সুযোগ হলে সেভাবে কঠিন চ্যালেঞ্জটা নিতে পারি।’

এমএমআর/এমকেএইচ