সবার আগে ঢাকায় চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্সের বিদেশি হেড কোচ

বিশেষ সংবাদদাতা
বিশেষ সংবাদদাতা বিশেষ সংবাদদাতা
প্রকাশিত: ০৪:২৬ পিএম, ০৬ ডিসেম্বর ২০১৯

হাতে আর বেশি সময় নেই। বিপিএলের প্রস্তুতি শুরু হয়ে গেছে জোরেসোরে। ঢাকা প্লাটুনের কোচ মোহাম্মদ সালাউদ্দিন সপ্তাহের বেশি সময় ধরেই শিষ্যদের নিয়ে ব্যস্ত সময় কাটাচ্ছেন। তিনিই এবারের বিপিএলে একমাত্র স্বদেশি কোচ। বাকি ছয় দলের কোচই বিদেশি।

বুধবার থেকে রংপুর রেঞ্জার্স আর সিলেট থান্ডার্সও স্থানীয় কোচদের নিয়েই অনুশীলন শুরু করেছে। বিদেশি কোচ যে পাওয়ার উপায় নেই ৮ ডিসেম্বরের আগে!

সব দলের সাথে কথা বলে জানা গেছে, কারো কোচই ৮ ডিসেম্বরের আগে ঢাকায় আসছেন না। কয়েকজন ৯ ডিসেম্বরও আসবেন। গড়পড়তা ৯ থেকে ১০ ডিসেম্বর শুরু হবে বিদেশি কোচদের অধীনে দলগুলোর প্র্যাকটিস। কারণ বিদেশি দলের কোচ এবং ক্রিকেটারদের জন্য যে পাঁচ তারকা টিম হোটেল বরাদ্দ রাখা হয়েছে, সেটার বুকিংই দেয়া হয়েছে ৮ ডিসেম্বর থেকে।

তার আগে বিদেশি কোচ বা খেলোয়াড়রা চলে আসলে সেটার জন্য বাড়তি খরচ বহন করতে হবে দলগুলোকে। তারপরও চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স ঠিকই নিজেদের বিদেশি হেড কোচকে নিয়ে এসেছে।

আজ (শুক্রবার) ঢাকায় চলে এসেছেন চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্সের ইংলিশ হেড কোচ পল নিক্সন। এবারের বিপিএলে প্রথম বিদেশি কোচ হিসেবে দলের সঙ্গে সবার আগে যোগ দিলেন নিক্সন।

এবারের বিপিএলে বাকি পাঁচ বিদেশি কোচ হলেন হার্শেল গিবস (সিলেট থান্ডার্স), ওটিস গিবসন (কুমিল্লা ওয়ারিয়র্স), জেমস ফস্টার (খুলনা টাইগার্স), ওয়াইজ শাহ (রাজশাহী রয়েলস) আর মার্ক ও’ডনেল (রংপুর রেঞ্জার্স)। এই ৫ জনই সম্ভবত ৮ ডিসেম্বরের আগে দলের সঙ্গে যোগ দেবেন না। তার আগ পর্যন্ত দলগুলোর স্থানীয় কোচরাই প্রস্তুতি দেখভাল করবেন।

এআরবি/এমএমআর/এমকেএইচ