সাকিব একজনই হয়, তবে অভাব পূরণের চেষ্টা করবো : মাহমুদউল্লাহ

ক্রীড়া প্রতিবেদক ক্রীড়া প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৭:৩২ পিএম, ১৪ ডিসেম্বর ২০১৯

জাতীয় দলের নির্বাচক, হেড কোচ, দল সংশ্লিষ্ট কর্তাব্যক্তিরা বেশ কয়েকবার বলেছেন-আগামী বছরের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের দল সাজানোর পেছনে বড় ভূমিকা রাখবে এবারের বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ। তবে টিম ম্যানেজম্যান্টের পরিকল্পনার বড় একটি অংশে বদল আনতে হচ্ছে সাকিব আল হাসানের নিষেধাজ্ঞার কারণে।

ফিক্সিংয়ের প্রস্তাব পেয়েও সেটি না জানানোর অপরাধে এক বছরের জন্য সব ধরনের ক্রিকেট থেকে নিষিদ্ধ রয়েছেন বাংলাদেশ দলের বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার সাকিব। তার নিষেধাজ্ঞার মেয়াদ শেষ হতে হতে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপও পৌঁছে যাবে প্রায় শেষদিকে। তাই সে আসরে সাকিবের খেলার সম্ভাবনা প্রায় শূন্যের কোটায়। বিশেষ কিছু না হলে সাকিবকে ছাড়াই খেলতে হবে পুরো বিশ্বকাপ।

যেহেতু নিষেধাজ্ঞার আগে টেস্ট ও টি-টোয়েন্টি দলের অধিনায়ক ছিলেন তিনি, তাই এখন নিষেধাজ্ঞার কারণে নতুন অধিনায়কও খুঁজতে হবে টিম ম্যানেজম্যান্টকে। আর সে দৌড়ে অন্য যে কারোর চেয়ে এগিয়ে রয়েছেন দলের অন্যতম সিনিয়র ক্রিকেটার ও অফস্পিনিং অলরাউন্ডার মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ।

সবশেষ ভারতের বিপক্ষে সিরিজেও তিনিই ছিলেন দলের নেতৃত্বে। ধারাবাহিকতা থাকলে আসন্ন বিশ্বকাপেও মাহমুদউল্লাহর সম্ভাবনাই বেশি। এ বিষয়ে তিনি নিজে কী ভাবছেন? সম্ভাব্য অধিনায়ক হিসেবে তার পরিকল্পনাই কী? এসব বিষয়ে জানতে চাওয়া হলো আজ (শনিবার) চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্সের ৬ উইকেটের জয়ের পর।

মাহমুদউল্লাহ জবাব দিলেন খানিক সংশয় রেখেই, ‘(বিশ্বকাপে) অধিনায়কত্ব এখনও নিশ্চিত নয়। ভারতে শেষ সিরিজে আমি ছিলাম ঠিক আছে। যদি বিশ্বকাপেও দায়িত্ব পাই তাহলে আমি নিজের শতভাগ দিয়েই চেষ্টা করবো। অধিনায়ক হিসেবে চেষ্টা করবো কোন কোন জিনিসে ঘাটতি আছে বের করার এবং সমাধান করতে। ভারতের বিপক্ষে শেষ সিরিজে আমরা ভালো খেলেছি। হয়তো আমরা জিততে পারিনি। তবে সব মিলিয়ে আমরা ভালো ক্রিকেটই খেলেছি।’

তবে সম্ভাব্য অধিনায়ক হিসেবে তিনি বিপিএল থেকে লেগ স্পিনার পাওয়ার চেষ্টায় আছেন জানিয়ে বলেন, ‘বিপিএল থেকে কিছু পাওয়ার কথা যদি বলেন, তাহলে আমি বলবো রিস্ট স্পিনারের কথা। অনেক দিন ধরেই আমরা লেগ স্পিনার খুঁজছি। (আমিনুল ইসলাম) বিপ্লব ভালো করছে, রিশাদ আছে, (মিনহাজুল আবেদিন) আফ্রিদি আছে। এটা ওদের জন্য অনেক ভালো সুযোগ। যদি এখানে ভালো করতে পারে তাহলে বিশ্ব মঞ্চেও আমাদের জন্য ভালো হবে।’

অধিনায়কত্ব নিয়ে সংশয় থাকলেও খেলোয়াড় হিসেবে যে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ খেলবেন মাহমুদউল্লাহ, তা নিশ্চিতই বলা চলে। রংপুর রেঞ্জার্সের বিপক্ষে বল হাতে মাত্র ৪ ওভারে ১৭ রান খরচায় নিয়েছেন ১ উইকেট, ব্যাট হাতেও দেখিয়েছেন ছন্দে ফেরার ঝলক।

একজন অলরাউন্ডার হিসেবে সাকিবের অভাব পূরণের সুযোগও রয়েছে মাহমুদউল্লাহর সামনে। এ বিষয়ে জিজ্ঞেস করা হলে সাকিবের সামর্থ্যের কথা জানান দিয়ে তিনি বলেন, ‘(আমার পারফরম্যান্স) সাকিবের সঙ্গে যদি মিশিয়ে ফেলি, তাহলে বিষয়টা ঠিক হবে না। কারণ একজন সাকিব একটা প্রজন্মেও পাওয়া যায় না মাঝে মাঝে। সাকিব আসলে একজনই। আমরা সবাই জানি ওর সামর্থ্য কত বেশি। ক্রিকেটিং স্কিল বা মাঠে ব্রেইনের ব্যবহার- সবই দুর্দান্ত। তবে আমি অবশ্যই চেষ্টা করবো, যদি ওর মতো বোলিং করতে পারি, অনেক বেশি খুশি থাকবো।’

এসএএস/এমএমআর/জেআইএম