হাথুরুর সঙ্গে আনুষ্ঠানিকভাবে সম্পর্ক ছিন্ন করলো শ্রীলঙ্কা

স্পোর্টস ডেস্ক
স্পোর্টস ডেস্ক স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৫:২১ পিএম, ১৪ জানুয়ারি ২০২০

দীর্ঘ কয়েকমাস ঝুলিয়ে রাখার পর অবশেষে আনুষ্ঠানিকভাবেই চন্ডিকা হাথুরুসিংহের সঙ্গে সম্পর্কের ইতি টানলো শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট বোর্ড (এসএলসি)। বিশেষ করে, কিছুদিন আগে কোর্ট অব আর্বিট্রেশন ফর স্পোর্টসে (সিএএস) ক্ষতিপূরণ দাবি করে হাথুরুসিংহে মামলা দায়ের করার পরই এই সিদ্ধান্ত নিল লঙ্কান বোর্ড।

বিশ্বকাপের পর গত বছর আগস্ট থেকেই প্রকারান্তরে হাথুরুসিংহকে বরখাস্ত করে রাখে এসএলসি। কিন্তু হাথুরুকে নিয়োগ দেয়ার সময় যে শর্ত লেখা হয়েছিল, সেই শর্তের কারণে আনুষ্ঠানিকভাবে চুক্তিও শেষ করতে পারছিল না লঙ্কান বোর্ড। কয়েকমাস হাথুরুর পারিশ্রমিকও দিয়েছিলো এসএলসি।

তবে, এরই মধ্যে আইনজীবীর মাধ্যমে বোর্ডকে আইনি নোটিশ পাঠান হাথুরুসিংহে। কিন্তু এই চিঠির জবাবে লঙ্কান বোর্ড একগাদা অভিযোগসহ পাল্টা চিঠি পাঠায় হাথুরুর সঙ্গে। সেখানে তারা হাথুরুর প্রধান কোচ হিসেবে ব্যর্থতার ফিরিস্তি তুলে ধরা হয়। একই সঙ্গে সেখানে উল্লেখ করা হয়, বিভিন্ন অ্যাসাইনমেন্টে দলকে ভালোভাবে প্রস্তুত করতেই ব্যর্থ ছিলেন হাথুরু। সবচেয়ে বড় ব্যর্থতা ছিল, খেলোয়াড়দের সঙ্গে সম্পর্ক সবচেয়ে তলানীতে গিয়ে পৌঁছায় প্রধান কোচের।

শেষ পর্যন্ত ঝুলিয়ে না রেখে হাথুরুকে ছেড়ে দেয়ার ঘোষণা দিয়েছে শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট বোর্ড (এসএলসি)। সম্ভাবনা রয়েছে, চুক্তির মেয়াদ শেষ হওয়ার আগেই যখন তাকে বরখাস্ত করা হলো, তখন কিছু পরিমাণে জরিমানাও প্রদান করা হবে হাথুরুসিংহকে। চলতি বছরের ডিসেম্বর পর্যন্ত চুক্তি ছিল হাথুরুর সঙ্গে।

শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট বোর্ডের প্রধান নির্বাহী অ্যাসলে ডি সিলভা ক্রিকইনফোকে বলেন, ‘গত শুক্রবার সর্বশেষ কার্যনির্বাহী কমিটির সভায় হাথুরুর চুক্তি সম্পর্কে সিদ্ধান্ত নেয়া হয় যে, এটাকে শেষ করে দেয়া হবে। আমার ঠিক মনে নেই, কবে আমরা তার পারিশ্রমিক দেয়া বন্ধ করেছি। সম্ভবত সেটা গত অক্টোবর পর্যন্ত হবে।’

আইএইচএস/পিআর

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]