এই পজিশনে নিজের শেষ ৭ ইনিংস দেখলে লজ্জা পাবেন কোহলিই

স্পোর্টস ডেস্ক
স্পোর্টস ডেস্ক স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৫:৩৩ পিএম, ১৫ জানুয়ারি ২০২০

ওয়ানডে ক্যারিয়ারটা শুরু হয়েছিল ওপেনার হিসেবে। শুরু থেকেই দুর্দান্ত ধারাবাহিক বিরাট কোহলি। ওপেনিংয়ে খেলা প্রথম পাঁচ ওয়ানডেতে একবারও দুই অংকের নিচে আউট হননি ডানহাতি এই ব্যাটিং জিনিয়াস।

পরে দলের প্রয়োজনে পজিশন বদলেছে। কখনও চারে, কখনও পাঁচে, কখনও বা সাতেও খেলেছেন কোহলি। তবে তিনি সবচেয়ে বেশি সফল তিন নম্বর পজিশনে। গত চার বছর ধরে তো এই পজিশনটাকে নিজেরই বানিয়ে নিয়েছেন ভারতীয় অধিনায়ক। ক্যারিয়ারের ২৩০ ম্যাচের মধ্যে ১৮০টিতেই তিনি খেলেছেন তিনে।

কিন্তু ওয়াংখেড়েতে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে সিরিজের প্রথম ওয়ানডেতে বল গড়ানোর আগেই ভারত অধিনায়ক জানিয়ে দেন, এই ম্যাচে তিনি খেলবেন চার নম্বরে। তিন নম্বরে পাঠানো হবে লোকেশ রাহুলকে।

সিদ্ধান্তটা যেন বুমেরাং হয়েছে। ১৬ ওয়ানডে পর চার নম্বরে ব্যাটিংয়ে নেমে ১৬ রান করেই সাজঘরের পথ ধরেন কোহলি। ফলে ভারতের সংগ্রহটাও খুব বড় হয়নি (২৫৫)। ম্যাচটিতে তারা পেয়েছে ১০ উইকেটে হারের লজ্জা।

পরিসংখ্যান বলছে-ক্যারিয়ারে ১৬ ওয়ানডে আগে চার নম্বরে ব্যাটিংয়ে নেমেছিলেন কোহলি। গত বছরের মার্চে অস্ট্রেলিয়ারই বিপক্ষে মোহালিতে সেই ম্যাচে মাত্র ৭ রান করতে পেরেছিলেন তিনি। শুধু ওই ম্যাচ কেন? চার নম্বরে নেমে নিজের সর্বশেষ সাত ইনিংসের দিকে তাকালে কোহলি লজ্জাই পাবেন। সর্বশেষ সাত ইনিংসে এই পজিশনে তার রান-৯, ৪, ৩, ১১, ১২, ৭, ১৬।

কোহলির চার নম্বরে ব্যাট করতে যাওয়ার সিদ্ধান্তকে ভুল মনে করছেন ভারতের সাবেক ব্যাটসম্যান ভিভিএস লক্ষ্মণও। তিনি বলেন, ‘দলের সেরা ব্যাটসম্যান যেন ম্যাচে বেশি ডেলিভারি খেলার সুযোগ পায়। অস্ট্রেলিয়ার মতো দারুণ বোলিং আক্রমণের বিরুদ্ধে পরীক্ষা নিরীক্ষা করা উচিত হয়নি।’

অস্ট্রেলিয়া সিরিজের আগে ভারতীয় দল খুব সহজেই হারিয়েছে বাংলাদেশ, ওয়েস্ট ইন্ডিজ ও শ্রীলঙ্কাকে। লোকেশ রাহুল রানের মধ্যে ছিলেন। কিন্তু অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে কোহলির তিনেই খেলা উচিত বলে মনে করেন লক্ষ্মণ। তার ভাষায়, ‘ভালো ফর্মে রয়েছে সেই কারণেই রাহুলকে তিনে পাঠানো হয়েছে। অভিজ্ঞতার জন্য ধাওয়ান ওপেন করেছে। কিন্তু ওয়ানডেতে রাহুলকে চার নম্বরে পাঠিয়ে কোহলির তিনে নামা উচিত। তিনে কোহলি নামলে গতি পাবে ইনিংস।’

এমএমআর/পিআর