বিপিএল খেলে বাংলাদেশের বিপক্ষে সিরিজে মালিক, নেই আমির

স্পোর্টস ডেস্ক
স্পোর্টস ডেস্ক স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৪:৪০ পিএম, ১৬ জানুয়ারি ২০২০

বিপিএলে দুর্দান্ত সময় কাটছে শোয়েব মালিকের। দল রাজশাহী রয়্যালসকে ফাইনালে তুলতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছেন পাকিস্তানি এই অলরাউন্ডার। কি সৌভাগ্য! বাংলাদেশের লিগে পারফর্ম করে এখন বাংলাদেশের বিপক্ষে সিরিজেই জায়গা করে নিলেন তিনি।

বাংলাদেশের বিপক্ষে ঘরের মাঠে তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজের জন্য মালিককে দলে ফিরিয়েছে পাকিস্তান। তার সঙ্গে ফিরেছেন আরেক অভিজ্ঞ অলরাউন্ডার মোহাম্মদ হাফিজ এবং পেসার শাহীন শাহ আফ্রিদিও।

আগামী ২৪, ২৫ এবং ২৭ জানুয়ারি লাহোরে তিনটি টি-টোয়েন্টি খেলবে বাংলাদেশ আর পাকিস্তান। এই সিরিজকে সামনে রেখেই ১৫ সদস্যের দল ঘোষণা করেছে পাকিস্তান। এই দলে চমকও আছে। নতুন মুখ হিসেবে জায়গা করে নিয়েছেন আহসান আলি, আমাদ বাট এবং হারিস রওফ।

বাদ পড়েছেন গত নভেম্বরে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ২-০তে সিরিজ হারা দলের ১৬ সদস্যের ৭ জনই। তারা হলেন-আসিফ আলি, ফাখর জামান, হারিস সোহেল, ইমাম উল হক, মোহাম্মদ আমির, মোহাম্মদ ইরফান এবং ওয়াহাব রিয়াজ।

এর মধ্যে আসিফ, ফাখর, হারিস, আমির আর ওয়াহাব ছিলেন গত অক্টোবরে ঘরের মাঠে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি সিরিজেও। ওই সিরিজে ৩-০ ব্যবধানে হোয়াইটওয়াশ হয় পাকিস্তান।

বিপিএল মালিকের জন্য সৌভাগ্য বয়ে আনলেও এই টুর্নামেন্টে দারুণ খেলেও কপাল খুলেনি আসিফ, আমির, ইরফান আর ওয়াহাবের। এর মধ্যে ওয়াহাব রিয়াজ আর আসিফ আলি খেলেছেন ঢাকা প্লাটুনের হয়ে। রাজশাহীর হয়ে বল হাতে নিয়মিত আলো ছড়াচ্ছেন মোহাম্মদ ইরফান।

আর খুলনা টাইর্গাসকে ফাইনালে তুলতে বল হাতে যদি কারও অবদান আলাদা করে বলতে হয়, সেটা তো মোহাম্মদ আমিরই। এই তো দিন কয়েক আগেই বিপিএলের সেরা বোলিং ফিগারটি (৬/১৭) নিজের করে নিয়েছেন বাঁহাতি এই পেসার। তারপরও বাংলাদেশের বিপক্ষে সিরিজে ডাক পাননি।

পাকিস্তানের হেড কোচ মিসবাহ উল হক দলে এই ব্যাপক রদবদল নিয়ে বলেন, ‘আমরা সর্বশেষ ৯ টি-টোয়েন্টির মধ্যে ৮টিই হেরেছি। বিশ্বের এক নম্বর দল হিসেবে এটা কিছুতেই মেনে নেয়ার মতো নয়। আসন্ন এশিয়া কাপ এবং টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের আগে আমাদের জয়ের ধারায় ফিরতে হবে। সিদ্ধান্ত নেয়ার আগে আমরা এটা নিয়েও ভেবেছি।’

বাংলাদেশের বিপক্ষে সিরিজটা কেন গুরুত্বপূর্ণ, সেটাও ব্যাখ্যা করলেন মিসবাহ। তার ভাষায়, ‘বাংলাদেশের বিপক্ষে ম্যাচগুলো আমাদের প্রস্তুতির অংশ। বড় দুই টুর্নামেন্টকে সামনে রেখে আমাদের সঠিক কম্বিনেশন খুঁজে বের করতে হবে।’

পাকিস্তানের টি-টোয়েন্টি দল : বাবর আজম (অধিনায়ক), আহসান আলি, আমাদ বাট, হারিস রওফ, ইফতিখার আহমেদ, ইমাদ ওয়াসিম, খুশদিল শাহ, মোহাম্মদ হাফিজ, মোহাম্মদ হাসনাইন, মোহাম্মদ রিজওয়ান (উইকেটরক্ষক), মুসা খান, শাদাব খান, শাহীন শাহ আফ্রিদি, শোয়েব মালিক, উসমান কাদির।

এমএমআর/পিআর