‘ভারত এশিয়া কাপে না আসলে আমরাও বিশ্বকাপ খেলতে যাবো না’

স্পোর্টস ডেস্ক
স্পোর্টস ডেস্ক স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৫:৫৮ পিএম, ২৫ জানুয়ারি ২০২০

চলতি বছর সেপ্টেম্বরেই পাকিস্তানে অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে এশিয়া কাপ ক্রিকেট। কিন্তু পাকিস্তান কি সত্যি সত্যিই এই টুর্নামেন্টটি আয়োজন করতে পারবে? নানাভাবে হয়তো কয়েকটি দেশকে পাকিস্তান নিজেদের দেশে নিয়ে গিয়ে দ্বি-পাক্ষিক সিরিজের আয়োজন করছে। কিন্তু বহুজাতিক একটি টুর্নামেন্ট কি সত্যি সত্যি তারা আয়োজন করতে পারবে?

গুজব রটেছিল, টাইগারদের ক্রিকেট দলকে তাদের দেশে নেয়ার বিনিময়ে পাকিস্তান এশিয়া কাপ আয়োজকের দায়িত্ব ছেড়ে দিচ্ছে বাংলাদেশকেই। কিন্তু পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের প্রধান নির্বাহী ওয়াসিম খান এই গুজবকে পুরোপুরি উড়িয়ে দিয়েছেন।

তিনি বলেছেন, ‘এ ধরনের কোনো কথাই বাংলাদেশের সঙ্গে হয়নি। এশিয়া কাপের বিনিময় বাংলাদেশের সঙ্গে হয়নি। এশিয়া কাপ হচ্ছে এশিয়ান ক্রিকেট কাউন্সিলের টুর্নামেন্ট। সুতরাং, কেউ আগে থেকে নির্ধারিত আয়োজক পরিবর্তন করতে পারে না। আমরা এশিয়া কাপ আয়োজন করবোই।’

কথা উঠেছে, ভারত কি তাহলে এশিয়া কাপ খেলতে পাকিস্তান যাবে? এ প্রশ্নের জবাবে ওয়াসিম খান সরাসরি জানিয়ে দেন, ‘এশিয়া কাপ আয়োজনের জন্য এখন পাকিস্তান পুরোপুরি প্রস্তুত। পাকিস্তানে না আসার ভারতের কোনো কারণই নেই।’

তবে ভারত চাইলে পাকিস্তান তাদের সঙ্গে নিরপেক্ষ কোনো ভেন্যুতেও খেলতে পারে। সে বিষয়ে সুযোগ খোলা রেখেছে পাকিস্তান। ওয়াসিম খান জানিয়ে দিয়েছেন, ‘এ বিষয়ে আমরা একটা বিকল্প প্রস্তাব তৈরি করে রেখেছি। ভারত যদি পাকিস্তানে আসতে না চায়, তাহলে আমরা তাদের সঙ্গে নিরপেক্ষ কোনো ভেন্যু, সেটা হতে পারে আরব আমিরাত কিংবা অন্য কোথাও- খেলতে রাজি আছি।’

তবে পরক্ষণেই হুমকি প্রদান করে রাখলেন পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের প্রধান নির্বাহী। তিনি হুমকি দিয়ে বলেন, ‘আমরা ভারতের জন্য বিকল্প ভেন্যুর ব্যবস্থা করবো। তবুও তারা যদি এশিয়া কাপ খেলতে না আসে, তাহলে ২০২১ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ খেলতে আমরাও ভারতে যাবো না।’

প্রসঙ্গতঃ ২০২১ সালের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের আয়োজক হচ্ছে ভারত। আর আগে চলতি বছরের এশিয়া কাপের আয়োজক পাকিস্তান। আগে থেকেই শোনা যাচ্ছিল, ভারত যদি পাকিস্তানের মাটিতে খেলতে না যায়, তাহলে এশিয়া কাপ আয়োজকের মর্যাদা হারাতে পারে পাকিস্তান।

আইএইচএস/পিআর