টেস্টের আগে হবে না প্রস্তুতি ক্যাম্প, বিসিএল খেলবেন ক্রিকেটাররা

বিশেষ সংবাদদাতা
বিশেষ সংবাদদাতা বিশেষ সংবাদদাতা
প্রকাশিত: ০১:০২ পিএম, ২৮ জানুয়ারি ২০২০

ভরাডুবিময় এক সফর শেষ করে সোমবার গভীর রাতে দেশে ফিরেছে বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দল। অনেক অনিশ্চয়তার পর শেষতক পাকিস্তানে গিয়ে টি-টোয়েন্টি সিরিজে পাত্তাই পায়নি টাইগাররা।

পাকিস্তানে শুধু টি-টোয়েন্টি সিরিজ খেলেই অবশ্য রেহাই পাচ্ছেন না জাতীয় দলের ক্রিকেটাররা। আরও দুইবার পাকিস্তানে যেতে হবে তাদের। যেখানে দুই দফায় হবে দুই টেস্ট এবং এক ওয়ানডে।

যার প্রথমটি শুরু হবে আগামী ৭ ফেব্রুয়ারি। রাওয়ালপিন্ডিতে দুই ম্যাচ টেস্ট সিরিজের প্রথমটি খেলবে বাংলাদেশ। সে লক্ষ্যে ফেব্রুয়ারির প্রথম সপ্তাহে দ্বিতীয় দফায় পাকিস্তানে যাবে বাংলাদেশ দল।

তবে এই ম্যাচের আগে কোনো আনুষ্ঠানিক প্রস্তুতি ক্যাম্প পাচ্ছেন না টেস্ট দলের ক্রিকেটাররা। মাত্র তিনদিনের হলেও, টি-টোয়েন্টি খেলতে যাওয়ার আগে প্রস্তুতি ক্যাম্পের আয়োজন করেছিল বিসিবি। কিন্তু টেস্টের আগে থাকছে না এমন কিছু।

অবশ্য দীর্ঘ পরিসরের ক্রিকেটে প্রস্তুতির জন্য অন্য এক ব্যবস্থা ঠিকই করা হয়েছে। আগামী ৩১ জানুয়ারি থেকে শুরু হবে বাংলাদেশ ক্রিকেট লিগের (বিসিএল) নতুন আসর। যেখানে খেলার কথা রয়েছে জাতীয় দলের প্রায় সব খেলোয়াড়ের। প্রথম রাউন্ডের ম্যাচটি খেলেই পাকিস্তান যাবেন তারা।

বিসিএলে তামিম ইকবাল, ইমরুল কায়েস, মুমিনুল হকরা খেলবেন ইসলামী ব্যাংক পূর্বাঞ্চলে। লিটন দাস, এবাদত হোসেন, তাসকিন আহমেদদের দেখা বিসিবি উত্তরাঞ্চলে। মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ, কামরুল ইসলাম রাব্বিদের নিয়েছে বিসিবি দক্ষিণাঞ্চল। আর ওয়ালটন মধ্যাঙ্কলে আছেন মোস্তাফিজুর রহমান, সৌম্য সরকার, মেহেদি হাসান মিরাজরা।

বিসিএলের চার দলের স্কোয়াড

বিসিবি উত্তরাঞ্চল:
লিটন দাস, তাসকিন আহমেদ, সুমন খান, রনি তালুকদার, মাহিদুল ইসলাম, তানভীর হায়দার, সানজিত সাহা, রিশাদ হোসেন, জহুরুল ইসলাম, সালাউদ্দিন শাকিল, এনামুল হক জুনিয়র, মিজানুর রহমান, হোসেন আলী ও মুক্তার আলী।

ধরে রাখা খেলোয়াড়: মুশফিকুর রহিম, আরিফুল হক, নাঈম ইসলাম, জুনায়েদ সিদ্দিকী, সানজামুল ইসলাম, এবাদত হোসেন।

বিসিবি দক্ষিণাঞ্চল
মাহমুদউল্লাহ, ফজলে রাব্বী, শামসুর রহমান, ফরহাদ রেজা, আল আমিন জুনিয়র, কামরুল ইসলাম, নাসুম আহমেদ, শাহরিয়ার নাফীস, রবিউল হক, ইরফান সুক্কুর, আমিনুল ইসলাম, মাহমুদুল হাসান, রুবেল মিয়া।

ধরে রাখা খেলোয়াড়: আবদুর রাজ্জাক, আল আমিন, এনামুল হক, মেহেদী হাসান, নুরুল হাসান, শফিউল ইসলাম।

ওয়ালটন মধ্যাঞ্চল
মোহাম্মদ মিঠুন, মোস্তাফিজুর রহমান, সৌম্য সরকার, রকিবুল হাসান, মুকিদুল ইসলাম, জাকের আলী, নাঈম শেখ, নাজমুল ইসলাম, ইরফান হোসেন, আবদুল মুজিব, সোহরাওয়ার্দী শুভ, শরিফুল ইসলাম, আকবর আলী, মেহেদী হাসান মিরাজ।

ধরে রাখা খেলোয়াড়: সাইফ হাসান, শুভাগত হোম, তাইবুর রহমান, নাজমুল হোসেন, আরাফাত সানি, শদিউল ইসলাম।

ইসলামী ব্যাংক পূর্বাঞ্চল
রুবেল হোসেন, ইয়াসির আলী চৌধুরী, হাসান মাহমুদ, পিনাক ঘোষ, তাইজুল ইসলাম, জাকির হাসান, তানভীর ইসলাম, নাসির হোসেন, অমিত হাসান, রাজা, ইমানুর উজ জামান, খালেদ আহমেদ, রনি চৌধুরী।

ধরে রাখা খেলোয়াড়: তামিম ইকবাল, ইমরুল কায়েস, আবু জায়েদ, আফিফ হোসেন, মুমিনুল হক, নাঈম হাসান, মোহাম্মদ আশরাফুল।

এআরবি/এসএএস/জেআইএম