সাড়ে ১০ কোটি দামের ক্রিকেটারকে আইপিএলে পাচ্ছে না প্রীতির দল

স্পোর্টস ডেস্ক
স্পোর্টস ডেস্ক স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৮:৪৭ পিএম, ১৪ ফেব্রুয়ারি ২০২০

মানসিক সমস্যা কাটিয়ে মাঠে ফেরার পর বিগ ব্যাশে দুর্দান্ত পারফরম্যান্স করছিলেন গ্লেন ম্যাক্সওয়েল। অসাধারণ পারফরম্যান্স দিয়ে নিজের দল মেলবোর্ন স্টার্সকে তুলে আনলেন ফাইনালে। কিন্তু বিগ ব্যাশের দলটির সঙ্গে আইপিএলে কিংস ইলেভেন পাঞ্জাবের জন্য দুঃসংবাদ।

খুব শিগগিরই বাম হাতের কনুইয়ে অস্ত্রোপচার করতে হবে ম্যাক্সওয়েলের। যে কারণে ৬ থেকে ৮ সপ্তাহ মাঠের বাইরে থাকতে হবে তাকে। সুতরাং, বিগ ব্যাশের ফাইনাল তো খেলতেই পারেননি, সঙ্গে আইপিএলে তাকে পাওয়া নিয়েই সংশয় তৈরি হয়ে গেছে প্রীতি জিনতার দল কিংস ইলেভেন পাঞ্জাবের।

১৩তম আইপিএল নিলামে প্রায় সাড়ে ১০ কোটি রুপি দিয়ে গ্লেন ম্যাক্সওয়েলকে কিনেছিল প্রীতি জিনতার দল। কিন্তু টুর্নামেন্ট শুরুর প্রায় মাস খানেক আগেই দুঃসংবাদটি আছড়ে পড়লো পাঞ্জাব শিবিরে।

শুধু ফ্রাঞ্চাইজি ক্রিকেটই নয়, জাতীয় দল থেকেও ছিটকে পড়েছেন তিনি। মূলতঃ কনুইয়ে অস্ত্রোপচারের কারণে দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে আসন্ন ওয়ানডে এবং টি-টোয়েন্টি সিরিজ থেকে ছিটকে গেছেন ম্যাক্সওয়েল। পাশাপাশি আইপিএলের প্রথম দিকেও অসি এই অল-রাউন্ডারকে পাবে না কিংস ইলেভেন।

অস্ত্রোপচারের পরে মাঠে ফিরতে কমপক্ষে ৬ থেকে ৮ সপ্তাহ সময় লাগবে বলে জানা গেছে। ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, বৃহস্পতিবারে কনুইয়ে অস্ত্রোপচার হবে ম্যাক্সওয়েলের।

২০১৯-২০ মৌসুমে বিগ ব্যাশের ফাইনালে খেলতে গিয়ে কনুইয়ে চোট পান ম্যাক্সওয়েল। মেলবোর্ন স্টার্সকে ফাইনালে তুলেছিলেন তিনি। মার্চের শেষ সপ্তাহে শুরু হবে ১৩তম আইপিএল। বিশ্বের অন্যতম সেরা এই টি-টোয়েন্টি লিগে কমপক্ষে প্রথম দু-সপ্তাহ ম্যাক্সওয়েলকে পাবে না কিংস ইলেভেন। গত বছর আইপিএলে অংশ নেননি এই অসি অল-রাউন্ডার। দেশের হয়ে টেস্ট খেলার জন্য আইপিএল থেকে সরে দাঁড়িয়েছিলেন ম্যাক্সি।

দক্ষিণ আফ্রিকা সফরে সীমিত ওভারের সিরিজে খেলার কথা ছিল ম্যাক্সওয়েলের। ফেব্রুয়ারির ২১ তারিখ থেকে শুরু হচ্ছে ওয়ানডে সিরিজটি। ম্যাক্সওয়েলের পরিবর্তে অস্ট্রেলিয়ান দলে নেওয়া হয়েছে ডি আর্কি শর্টকে। অস্ট্রেলিয়ার জাতীয় দলের নির্বাচক ট্রেভর হর্নস জানান, ‘সফরের ঠিক আগেই ম্যাক্সওয়েল ছিটকে যাওয়ায় আমরা হতাশ। তবে গ্রীষ্মের শেষে সীমিত ওভারের সিরিজে ওকে স্বাগত জানাতে আমরা প্রস্তুত।’

আইএইচএস/পিআর