চতুর্থ ওভারে সাজঘরে সাইফ, অস্বস্তি নিয়ে লাঞ্চে বাংলাদেশ

ক্রীড়া প্রতিবেদক ক্রীড়া প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ১১:৪৪ এএম, ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২০

টেস্ট অভিষেকটা হয়েছিল পাকিস্তানের রাওয়ালপিন্ডিতে। সে ম্যাচের উইকেট ব্যাটিং সহায়ক হলেও, বিদেশের মাটিতে হওয়ায় অভিষেকটা সহজ ছিলো না ডানহাতি তরুণ সাইফ হাসানের। তিনি নিজেও ভালো করতে পারেননি।

ম্যাচের প্রথম ইনিংসে মাত্র দ্বিতীয় বলে রানের খাতা খোলার আগেই ফেরেন সাজঘরে। দ্বিতীয় ইনিংসে ভালো শুরু করেও থেমে যান মাত্র ১৬ রানে।জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে একমাত্র টেস্ট ম্যাচটি তাই পাকিস্তান সফরের দুঃস্বপ্ন ভুলে নতুন করে শুরুর সুযোগ হিসেবে এসেছিল প্রতিভাবান ব্যাটসম্যান সাইফের জন্য।

কিন্তু এ মিশনেও প্রথম দফায় ব্যর্থ হলেন ২১ বছর বয়সী এ ওপেনার। জিম্বাবুয়ের সাদামাটা পেস বোলিংয়ের বিপক্ষেও ৪ ওভারের বেশি উইকেটে টিকতে পারেননি সাইফ। মধ্যাহ্ন বিরতির আগে তার উইকেট হারিয়ে অস্বস্তি নিয়েই ড্রেসিংরুমে ফিরেছে বাংলাদেশ দল।

দ্বিতীয় দিনের মধ্যাহ্ন বিরতি পর্যন্ত মিরপুর টেস্টের চিত্র দেখা যাচ্ছে, ৮ ওভার ব্যাট করে মাত্র ২৫ রান করতেই সাইফের উইকেট হারিয়েছে বাংলাদেশ। এর আগে জিম্বাবুয়ে অলআউট হয়েছে ২৬৫ রানে। ফলে এখনও ২৪০ রানে এগিয়ে রয়েছে সফরকারীরা।

জিম্বাবুয়ের করা ২৬৫ রানের জবাবে ব্যাট করতে নেমে বেশ ভালো শুরুরই ইঙ্গিত দিয়েছিলেন দুই ওপেনার সাইফ ও তামিম। ইনিংসের দ্বিতীয় ওভারেই জোড়া বাউন্ডারি হাঁকান ডানহাতি সাইফ। পরের ওভারে তামিমের ব্যাট থেকেও আসে দুই চার। মাত্র ৩ ওভারেই ১৮ রান করে ফেলে বাংলাদেশ।

কিন্তু চতুর্থ ওভারের শেষ বলে হালকা বেরিয়ে যাওয়া ডেলিভারিতে ব্যাট এগিয়ে দেয়ার ভুল করে বসেন সাইফ। ফলে তার ব্যাটের বাইরের কানা ছুঁয়ে বল জমা পড়ে উইকেটরক্ষক রেগিস চাকাভার হাতে। সমাপ্তি ঘটে সাইফের ১২ বলে ৮ রানের ইনিংসের।

মধ্যাহ্ন বিরতির আগে আর বিপদ ঘটতে দেননি নাজমুল হোসেন শান্ত এবং তামিম ইকবাল। দুজন মিলে ৪ ওভার খেলে যোগ করেছেন ৭ রান। তামিম ২৫ বলে ১০ ও শান্ত ১২ বলে ৫ রান নিয়ে অপরাজিত রয়েছেন।

এসএএস/পিআর