ডিপিএল শুরু ১৫ মার্চ, বদলে যাচ্ছে মাশরাফি-মুশফিকদের ঠিকানা

বিশেষ সংবাদদাতা
বিশেষ সংবাদদাতা বিশেষ সংবাদদাতা
প্রকাশিত: ০৩:১৮ পিএম, ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২০

আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে খুব শীঘ্রই দেশের ঘরোয়া ক্রিকেটে ফিরবেন জাতীয় দলের ক্রিকেটাররা। জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে হোম সিরিজের পর পরই শুরু হয়ে যাচ্ছে ঢাকার ক্লাব ক্রিকেট- ঢাকা প্রিমিয়ার লিগ(ডিপিএল)।

আজ (রোববার) বিকেল ৩টায় ঢাকা লিগ নিয়ে ক্লাবগুলোর সঙ্গে বৈঠকে বসেছেন ঢাকার প্রিমিয়ার লিগের আয়োজক-ব্যবস্থাপক সিসিডিএমের (ক্রিকেট কমিটি অফ ঢাকা মোট্রোপলিটন) শীর্ষ কর্তারা।

জানা গেছে, সিসিডিএম চেয়ারম্যান কাজী ইনাম বৈঠক শেষে বিকেল চারটায় সাংবাদিকদের সঙ্গেও কথা বলবেন। এদিকে সিসিডিএমের উচ্চ পর্যায়ের নির্ভরযোগ্য সূত্র জানিয়েছে, ভেতরে ভেতরে প্রিমিয়ার লিগ শুরুর প্রস্তুুতি চলছে সব দলেরই। অনেক দলই খেলোয়াড় সংগ্রহের কাজ প্রায় সেরেও ফেলছে।

এরই মধ্যে আবাহনী, প্রাইম ব্যাংক, শেখ জামাল, খেলাঘর, শাইনপুকুর, নবাগত ওল্ড ডিওএইচএস ও প্রাইম দোলেশ্বরের দল গোছানোর কাজ প্রায় শেষ।

দেশের অন্যতম শীর্ষ তারকা মুশফিকুর রহিমের আবাহনীতে যোগ দেয়া শতভাগ নিশ্চিত। আগের দুই মৌসুম আবাহনীর হয়ে খেলা দেশের শীর্ষ তারকা মাশরাফি বিন মর্তুজা এবার আর আবাহনীতে থাকছেন না- এটাও নিশ্চিত। মাশরাফির সঙ্গে শেখ জামাল ধানমন্ডি ক্লাবের কথাবার্তা চূড়ান্ত। বলেই দেয়া যায়, মাশরাফির এবারের দল শেখ জামাল।

অন্যদিকে তামিম ইকবাল খেলবেন প্রাইম ব্যাংকে। তামিম একা নন, অনেক তারকার ঠিকানা এবার প্রাইম ব্যাংক। আর মাহমুউল্লাহ রিয়াদের নতুন ঠিকানা হচ্ছে গাজী ট্যাংক। এছাড়া খেলাঘর, শাইনপুকুর, ওল্ড ডিওএইচএসও ভাল দল গড়তে যাচ্ছে। সে তুলনায় মোহামেডান পিছিয়ে আছে এখনও।

এদিকে আজকের সভায় ঢাকা লিগ শুরুর নেপথ্য কার্যক্রম দলবদলের দিনক্ষণ চূড়ান্ত হবে। একইসঙ্গে লিগ শুরুর দিনও ঠিক করা হবে। সিসিডিএমের এক দায়িত্বশীল সূত্র জাগো নিউজকে জানিয়েছে, এবার প্রিমিয়ার লিগের দলবদল হবে মার্চের প্রথম সপ্তাহে। সম্ভাব্য দিন ধার্য্য করা হয়েছে ৩, ৪ ও ৫ মার্চ। এই তিন দিন দলবদল শেষে আগামী ১৫ মার্চ লিগ শুরুর চিন্তা ভাবনা চলছে।

এর বাইরে আরও দুটি খবর শোনা যাচ্ছে। প্রথমত, গতবারের মত এবার আর টি-টোয়েন্টি লিগ দিয়ে শুরু হবে না ঢাকা প্রিমিয়ার লিগ। প্রথমে ২০ ওভারের খেলা নয়। আগে হবে হবে ৫০ ওভারের লিগ। লিগ শেষে তারপর হবে টি-টোয়েন্টি টুর্নামেন্ট।

এছাড়া এবারের লিগে বিদেশি ক্রিকেটার বন্ধ রাখার চিন্তাভাবনাও চলছে। সেটা নির্ভর করছে সিসিডিএম সভায় ক্লাবগুলোর ওপর। বেশিরভাগ ক্লাব চাইলে বিদেশি ক্রিকেটার থাকবে। আর ক্লাবগুলো না চাইলে নয়। তার মানে অনেক দিন পর এবারের লিগ হবে শুধু দেশি ক্রিকেটারদের দিয়ে।

এআরবি/এসএএস/এমকেএইচ