মানুষ তো ভুল থেকেই শেখে : আল আমিন

ক্রীড়া প্রতিবেদক ক্রীড়া প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৯:৩০ পিএম, ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২০

ভুল মানুষেরই হয়। মানুষ ভুল থেকেই শেখে। তবে একই ভুল বারবার করলে বিপদ। আল আমিন হোসেনের বিরুদ্ধে এর আগেও শৃঙ্খলাভঙ্গের অভিযোগ উঠেছে। যার দায় চুকিয়ে দল থেকে বাদও পড়তে হয়েছিল।

তবে পারফরম্যান্সের জোরে আবারও দলে জায়গা ফিরে পেয়েছেন আল আমিন। টেস্ট আর টি-টোয়েন্টি দলে ফিরেছেন। যদিও জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে টেস্টে খেলতে পারেননি চোটের কারণে। তবে ডানহাতি এই পেসার আছেন ওয়ানডে সিরিজের দলে, যে ফরমেটটি আবার সর্বশেষ খেলেছেন সেই ২০১৫ সালে।

আল আমিন এবার ভুল থেকে শিখে সামনে এগিয়ে যেতে চান। দলে থিতু হতে চান সব ফরমেটে। তিনি বলেন, ‘দেখুন, যে সময় গোলাপি বলে টেস্ট হলো (ভারতে), ভালোই করেছি। পরে আর সুযোগ পাইনি। টি-টোয়েন্টিতে সুযোগ পাচ্ছি, ভালোই করছি। এখন ওয়ানডেতে আমার সুযোগ। যদি ভালোভাবে সুযোগ পাই, কাজে লাগানোর চেষ্টা করব। দলে থিতু হওয়ার চেষ্টা করব।’

ক্যারিয়ারে তার উত্থান পতন ছিল সমান। বিরতি দিয়ে দিয়ে দলে সুযোগ পেয়েছেন। সেটা নিয়ে আক্ষেপ আছে আল আমিনের। ডানহাতি এই পেসার বলেন, ‘ক্যারিয়ার যখন শুরু করেছিলাম, টানা চলতে থাকলে এতদিনে দলে যথেষ্ট প্রতিষ্ঠিত থাকতাম। মাঝে মোটামুটি বিরতি গেছে। তারপরও চেষ্টা করেছি। এখন সুযোগ এসেছে। সবসময় চেষ্টা করি সুযোগ কাজে লাগাতে। টেস্ট ও টি-টোয়েন্টিতে সুযোগ পেয়েছি, দুটিতেই মোটামুটি ভালো করেছি। ওয়ানডেতে আরেকটি সুযোগ এসেছে। একাদশে জায়গা পেলে চেষ্টা করব ভালো করার।’

মাঝে দল থেকে বাদ পড়েছিলেন কেন? আল আমিনের ধারণা, বাজে পারফরম্যান্সের কারণে নয়, নিজের ভুলের কারণেই বাদ পড়েছিলেন। সেখান থেকে শিক্ষা নিয়ে সামনে এগিয়ে যেতে চান এই পেসার।

তার ভাষায়, ‘আমি যখন বাদ পড়েছি, খেলার কারণে সম্ভবত বাদ পড়িনি। কিছু ইস্যু ছিল। সেগুলো ঠিক করার চেষ্টা করেছি। ভুল করলেই কেবল ভুল বোঝা যায়। মানুষ ভুল থেকেই শেখে। এটা শৃঙ্খলার ইস্যু হতে পারে, ক্রিকেটের ইস্যু হতে পারে। শেখার তো কোনো শেষ নেই।’

আল আমিন কি যথেষ্ট শিখতে পারছেন? জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজে সুযোগ পেয়েছেন, এরই মধ্যে বিসিএল ফাইনাল খেলতে গিয়ে জরিমানাও গুনেছেন। প্রতিপক্ষ ব্যাটসম্যান মোহাম্মদ আশরাফুলকে আউট করে অশোভন আচরণ করায় ম্যাচ ফির ৫০ শতাংশ কেটে নেয়া হয়েছে তার। আন্তর্জাতিক আঙিনায় এমন কিছু করলে হয়তো ক্যারিয়ারে আবারও ধাক্কা খাবেন, সেটা না হলেই তার জন্য মঙ্গল।

এমএমআর/পিআর