বিসিসিআই ছেড়ে তাহলে এবার আইসিসির পথে সৌরভ?

স্পোর্টস ডেস্ক
স্পোর্টস ডেস্ক স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত: ১১:৫৩ পিএম, ২৪ মে ২০২০

আইসিসির বর্তমান চেয়ারম্যান শশাঙ্ক মনোহরের মেয়াদ প্রায় শেষ হতে চললো। চলতি মে মাসেই শেষ হওয়ার কথা তার দায়িত্বকাল। কিন্তু করোনার কারণে হয়তো দুই মাস বাড়তে পারে তার মেয়াদ। তবুও, চোখের পলকে হয়তো কেটে যাবে সেই দুই মাসও। এরপর আইসিসির চেয়ারে বসবেন কে?

এ নিয়েই এখন শুরু হয়েছে জ্বল্পনা-কল্পনা। চারদিক থেকে যেভাবে গুঞ্জন ভেসে আসছে, তাতে সৌরভ গাঙ্গুলির আলোচনাই শোনা যাচ্ছে বেশি। শুধু তাই নয়, কেউ কেউ তো আইসিসির চেয়ারম্যানের পদে সৌরভকে মনোনয়ন দিয়েই ফেলেছেন বলতে গেলে।

ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশন অব বেঙ্গল (সিএবি) থেকে ভারতীয় ক্রিকেট কন্ট্রোল বোর্ডে (বিসিসিআই) হয়ে এবার কি আইসিসির চেয়ারম্যান হওয়ার পথে সৌরভ গাঙ্গুলি? ক্রিকেট মহলে কিন্তু এরই মধ্যেই গুঞ্জন শুরু হয়ে গেছে।

আপাতত বিসিসিআই প্রেসিডেন্টের মাথায় ঝুলছে ‘কুলিং অফ’ পিরিয়ডের খাঁড়া। সুপ্রিম কোর্টে যদি সুবিধা না হয়, তাহলে এই জুলাইয়েই বিসিসিআই প্রেসিডেন্টের পদ থেকে সরে দাঁড়াতে হবে সৌরভকে।

কাকতালীয়ভাবে ওই সময়ই শেষ হচ্ছে আইসিসির চেয়ারম্যান শশাঙ্ক মনোহরের মেয়াদকাল। সম্ভবত তিনি আর আইসিসির ওই পদের জন্য লড়বেন না। অনেকেই দুয়ে দুয়ে চার করে ধরে নিচ্ছেন, ভারতীয় বোর্ড থেকে কুলিং অফে যেতে হলে আইসিসির নির্বাচনে লড়তে পারেন সৌরভ।

লকডাউনের অনেক আগে শীর্ষ আদালতকে বিসিসিআই জানিয়েছিল, কুলিং অফ ব্যাপারটি যেন নতুন করে বিবেচনা করা হয়। ‘কুলিং অফ’ তুলে দিয়ে সৌরভদের মেয়াদ লম্বা করা হোক। এটা না করলে ভারতীয় ক্রিকেটর প্রশাসনিক কাঠামো ভেঙ্গে পড়বে।

ভারতীয় ক্রিকেট কন্ট্রোল বোর্ডের আরজি শোনার সুযোগ এতদিন হয়নি শীর্ষ আদালতের। সুতরাং সৌরভদের ৩ বছর কুলিং অফে যাওয়ার একটা সম্ভাবনা থেকেই যাচ্ছে। নাম জানাতে অনিচ্ছুক বিসিসিআইয়ের এক কর্মকর্তা জানিয়েছেন, ‘আদালত কুলিং অফ নিয়ে এখনও শুনানি করেনি। যদি আদালতে সুবিধা না হয় তাহলে সৌরভ আইসিসি নিয়ে ভাবতেও পারেন।’

এছাড়া করোনার কারণে বিশ্ব ক্রিকেটে এখন ত্রাহি ত্রাহি রব। অর্থাভাবে ভুগতে হচ্ছে সব দেশের ক্রিকেট বোর্ডকেই। এই পরিস্থিতিতে সৌরভের মতো নেতারই প্রয়োজন বলে মনে করছেন দক্ষিণ আফ্রিকার সাবেক অধিনায়ক গ্রায়েম স্মিথের মতো সাবেকরা।

দক্ষিণ আফ্রিকার বর্তমান ক্রিকেট ডিরেক্টর বলছেন, ‘করোনার পর আইসিসির চেয়ারম্যান হওয়ার জন্য সৌরভই সেরা। আমি তাকে ব্যক্তিগতভাবে চিনি। এই পরিস্থিতিতে নেতৃত্ব দেওয়ার ক্ষমতা তার আছে।’

ইংল্যান্ডের সাবেক অধিনায়ক ডেভিড গাওয়ারও বলেছেন একই কথা। তিনি মনে করেন, আইসিসির প্রধান হওয়ার জন্য সব রাজনৈতিক যোগ্যতা রয়েছে সৌরভের।

উল্লেখ্য, এ বছর আইসিসি চেয়ারম্যান হওয়ার দৌড়ে সবার শীর্ষে আছেন ইংল্যান্ড ক্রিকেট বোর্ডের চেয়ারম্যান কলিন গ্রেভস। তবে সৌরভ লড়াইয়ে নামলে তিনি যে পিছিয়ে পড়বেন, তা বলার অপেক্ষা রাখে না।

প্রসঙ্গতঃ আইসিসি বোর্ডের মোট সদস্য ১৭ জন। ১২টি টেস্ট খেলুড়ে দেশ, ৩টি অ্যাসসিয়েট দেশ, একজন স্বাধীন মহিলা ডিরেক্টর এবং বিদায়ী চেয়ারম্যানের ভোটাধিকার আছে। বিসিসিআই চাইলে এই ১৭ জন ভোটারের মধ্যে সংখ্যাগরিষ্ঠ ভোট পাওয়াটা কোনও সমস্যার বিষয় হওয়ার কথা নয়।

আইএইচএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]