সাকিবকে অপমান করল কেকেআর, প্রতিবাদ মনোজ তিওয়ারির

স্পোর্টস ডেস্ক
স্পোর্টস ডেস্ক স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত: ১০:০৬ পিএম, ২৮ মে ২০২০

প্রথম চার আসরে ব্যর্থ। আইপিএলের পঞ্চম আসরে এসে শুধু প্রথমবারের মতো ফাইনালে ওঠা নয়, শিরোপাই হাতে তুলে নেয় কলকাতা নাইট রাইডার্স (কেকেআর)। ২০১২ সালে কেকেআরের সেই শিরোপা জয়ের অন্যতম কুশীলব ছিলেন সাকিব আল হাসান।

এমনকি ২৭ মে চেন্নাই সুপার কিংসের বিপক্ষে যে ফাইনাল ছিল, তাতেও দারুণ বোলিং করেন সাকিব। হাইস্কোরিং ম্যাচে ৩ ওভার হাত ঘুরিয়ে ২৫ রান খরচা করে নেন চেন্নাই ইনিংসের সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক সুরেশ রায়নার (৭৩) উইকেটটি।

চেন্নাই টস জিতে ব্যাটিংয়ে নেমে ৩ উইকেটেই ১৯০ রানের পাহাড় গড়েছিল। এই ৩ উইকেটের মধ্যে সাকিব নেন ১টি, ফেলে দেয়ার মতো নয় নিশ্চয়ই। তার চেয়ে বড় কথা, কেকেআরের হয়ে সেদিন দ্বিতীয় সেরা বোলিং ফিগারটি ছিল বাংলাদেশি অলরাউন্ডারেরই। রজত ভাটিয়ার পর তিনিই সবচেয়ে কম রান খরচ করেন।

জবাবে ২ বল হাতে রেখেই ১৯১ রান তাড়া করে ফেলে কেকেআর। ওপেনার মানভিন্দর বিসলার ৮৯ আর জ্যাক ক্যালিসের ৬৯ রানেই মূলত জয়ের ভিতটা পেয়ে যায় দলটি।

তবে শেষটা ভালো না হলে বিসলা-ক্যালিসের এমন ব্যাটিংও জলেই যেতো। শেষ ওভারে দরকার ছিল ৯ রান। প্রথম বলে সিঙ্গেলস নেন মনোজ তিওয়ারি, পরের বলে জায়গা বদল করেন সাকিব। স্ট্রাইকে গিয়ে চতুর্থ আর পঞ্চম বলে টানা দুই বাউন্ডারি হাঁকিয়ে জয় নিশ্চিত করেন মনোজ তিওয়ারি।

বাঙালি এই ব্যাটসম্যান ৩ বলে অপরাজিত থাকেন ৯ রানে। অপরপ্রান্তে ৭ বলে ১১ রানে অপরাজিত থেকে বিজয়ীর বেশেই মাঠ ছাড়েন সাকিব। এই দুজনই ছিলেন শেষ সময়ে সব উৎসবের কেন্দ্রবিন্দুতে।

কিন্তু প্রথমবার শিরোপা জয়ের স্মৃতি রোমহ্নন করতে গিয়ে কেকেআর ভুলে গেল এই দুই তারকাকেই। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম টুইটারে এক টুইটে সেই ২৭ মে স্মরণ করতে গিয়ে কেকেআর লিখেছে, ‘২৭ মে, ২০১২। যে রাতটি প্রতিটি নাইট রাইডার্সের (হৃদয়ের) খুব কাছে। প্রথমবারের সঙ্গে সবসময়ই অনেক আবেগ, অনেক স্মৃতি জড়িয়ে থাকে। আপনার কোনটি?’

ওই টুইটেই হ্যাশট্যাগ দিয়ে ম্যাচসেরা মানভিন্দর বিসলা, ক্যারিবীয় তারকা স্পিনার সুনিল নারিন, নিউজিল্যান্ডের সাবেক ব্যাটসম্যান ব্রেন্ডন ম্যাককালাম আর সাবেক অসি পেসার ব্রেট লি’কে স্মরণ করেছে কেকেআর। কিন্তু নাম নেই সাকিব আর মনোজের।

বাঙালি এই ব্যাটসম্যান এমন উপেক্ষার প্রতিবাদ করে টুইটে লিখেছেন, ‘হ্যাঁ, আমার সঙ্গে আরও অনেকেরই অনেক অনেক স্মৃতি, আবেগ আছে। যা কিনা সারাজীবনই থাকবে। কিন্তু এই টুইটটি দেখার পর যেখানে আমার এবং সাকিব আল হাসানের কথা আপনারা সবাই ভুলে গেছেন, খুবই অপমান বোধ করছি। আপনাদের এই টুইট সব নাইট রাইডার্সের (হৃদয়ে) গেঁথে থাকবে। হতাশাজনক!’

মনোজের এমন প্রতিবাদ দেখে অবশ্য টনক নড়েছে কেকেআরের। তারা ফিরতি টুইটে লিখেছে, একটি ছবিতে তাকে ট্যাগ করা হয়েছে। কেকেআরের টুইট, ‘মনোজ তোমাকে ভোলার উপায় নেই। আমাদের স্পেশাল রাতের স্পেশাল একজন নাইটকে কখনই মিস করতে পারি না। তুমি ছিলে, সবসময়ই ২০১২ সালের বিজয়ে তুমি হিরো থাকবে।’

তবে এই টুইটেও সাকিব আল হাসানের অবদানের কথা স্বীকার করেনি কেকেআর। মনোজকে খুশি করেই টুইট শেষ করেছে আইপিএলের জনপ্রিয় ও অন্যতম সফল দলটি।

এমএমআর/পিআর

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]