আইসিসির ওপর ক্ষুব্ধ বিসিসিআই, শুরু করলো আইপিএলের প্রস্তুতি!

স্পোর্টস ডেস্ক
স্পোর্টস ডেস্ক স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৯:১৫ পিএম, ০৬ জুলাই ২০২০

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ নাকি আইপিএল? এ নিয়েই যেন এখন পুরোপুরি দুইভাগ পুরো ক্রিকেট বিশ্ব। একদল চায়, বিশ্বকাপ নয়, আইপিএলই হোক। আরেক দল বলছে, আইপিএল বড় না বিশ্বকাপ বড়? বিশ্বকাপ বাদ দিয়ে কেন আইপিএল হবে?

তবে ভারতের নেতৃত্বে যে অংশটা আইপিএলের পক্ষে, তারা বেশ শক্তিশালী। যে কারণে আইসিসি রয়েছে বেশ চাপের মুখে। শেষ পর্যন্ত মনে হচ্ছে করোনার কারণ দেখিয়ে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপটাকেই স্থগিত করে দেয়া হবে। বের করে দেয়া হবে আইপিএল আয়োজন করার জন্য একটা সুযোগ।

যদিও আইসিসি এখনও টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ নিয়ে কোনো সিদ্ধান্ত দেয়নি। খুব শিগগিরই এ নিয়ে একটা সিদ্ধান্ত চলে আসবে বলে আশা করা হচ্ছে।

কিন্তু আর ধৈর্য্য ধরতে রাজি নয় ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড। ভারতীয় মিডিয়ায় তো এমনও বলা হচ্ছে, টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ নিয়ে আইসিসি ‘টালবাহানা’ করছে। তাদের ‘ঢিলেমি’র কারণেই নাকি আইপিএল একটা গেরোর মধ্যে পড়ে গেছে। তবে, ভারতীয় মিডিয়া লিখছে, কোনোভাবেই আইপিএল বাতিল করতে চায় না বিসিসিআই।

এ কারণেই টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ নিয়ে সিদ্ধান্ত যাই নিক আইসিসি, তার আগেই আইপিএল আয়োজরে সব ধরনের প্রস্তুতি নিতে শুরু করে দিচ্ছে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড।

ভারতের এত আশাবাদী হওয়ার বড় কারণ হচ্ছে, টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের আয়োজক ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়াও জানিয়ে দিয়েছে, এ বছর তাদের দেশে বিশ্বকাপ আয়োজনের সম্ভাবনা নেই বললেই চলে। তবুও আইসিসি আনুষ্ঠানিকভাবে এখনও টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ নিয়ে কোনো সিদ্ধান্তের কথা জানায়নি। চলতি মাসের প্রথম অংশেই এ নিয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নিতে বৈঠক হওয়ার কথা আইসিসিতে।

তবে তার আগেই ধৈর্য হারাল ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড। কারণ, টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ বাতিল হলে ওই সময় আইপিএল আয়োজনের পরিকল্পনা ঠিক করে রেখেছে বিসিসিআই। আর আইসিসির সিদ্ধান্ত নিতে দেরি করা মানে, আইপিএলের জন্য বরাদ্দ সময় কমে যাওয়া।

বিসিসিআই’র ধারণা, আইপিএলের ছক বানচাল করতে ইচ্ছাকৃতভাবে বিশ্বকাপের খাঁড়াটা ঝুলিয়ে রেখেছে আইসিসি। এ কারণে, আর অপেক্ষা করতে রাজি নয় তারা। বিশ্বজুড়েই এখন স্থানীয় স্তরের খেলাধুলা আয়োজন করা হচ্ছে।

জার্মান বুন্দেশলিগা শুরুর পর শেষও হয়ে গেছে। স্প্যানিশ লা লিগা শুরু হয়েছে। ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগ, ইতালিয়ান সিরি-আ চলছে। আবার ইউরো এবং অলিম্পিকের মতো আন্তর্জাতিক টুর্নামেন্ট পিছিয়ে দেয়া হয়েছে। এমন পরিস্থিতিতে আন্তর্জাতিক টুর্নামেন্টের চেয়ে স্থানীয় টুর্নামেন্ট আয়োজন করা অনেক সহজ। বিসিসিআইর এক কর্মকর্তা মিডিয়াকে বলছিলেন, ‘আইসিসির ঢিলেমি এবার বিরক্তিকর পর্যায়ে চলে যাচ্ছে। তাই আর অপেক্ষা না করে আমরা আইপিএলের প্রস্তুতি শুরু করে দিয়েছি।’

প্রসঙ্গতঃ গত ২৯ মার্চ শুরু হওয়ার কথা ছিল এ বছরের আইপিএল; কিন্তু করোনার জন্য প্রাথমিকভাবে ১৫ এপ্রিল পর্যন্ত তা পিছিয়ে দেয়া হয়েছিল। পরে স্থগিত করে দেওয়া হয় অনির্দিষ্টকালের জন্য। একটা সময় আইপিএল আয়োজনের কোনো সম্ভাবনাই দেখা যাচ্ছিল না; কিন্তু অক্টোবরে অস্ট্রেলিয়ার মাটিতে যে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ আয়োজিত হওয়ার কথা, তা অনিশ্চিত হয়ে যেতেই নতুন করে এই মাল্টি বিলিয়ন ডলারের টুর্নামেন্ট অনুষ্ঠিত হওয়ার সম্ভাবনা তৈরি হয়েছে।

আইএইচএস/

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]