ডি ভিলিয়ার্স-স্টেইনদের এবার দেখা যাবে না আইপিএলে!

স্পোর্টস ডেস্ক
স্পোর্টস ডেস্ক স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৫:২৬ পিএম, ০৩ আগস্ট ২০২০

দর্শক চাহিদার শীর্ষে থাকা আইপিএল আয়োজন নিয়ে সব অনিশ্চয়তা কেটে গেছে। আগামী ১৯ সেপ্টেম্বর থেকে সংযুক্ত আরব আমিরাতে শুরু হচ্ছে মাল্টি বিলিয়ন ডলারের লিগটি।

তবে টুর্নামেন্ট আয়োজন নিয়ে অনিশ্চয়তা কাটলেও অনিশ্চয়তা কাটেনি বিদেশি খেলোয়াড়ের অংশগ্রহণের বিষয়ে। করোনার এই সময়টায় বিদেশি খেলোয়াড়রা কিভাবে বিভিন্ন দেশ থেকে সংযুক্ত আরব আমিরাতে যাবেন, সেটি নিয়ে দুশ্চিন্তা তৈরি হয়েছে।

দক্ষিণ আফ্রিকাতেই যেমন আন্তর্জাতিক ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা বহাল আছে এখনও। কমপক্ষে সেপ্টেম্বর মাস পর্যন্ত এই দেশটিতে লকডাউন রাখার পরিকল্পনা সরকারের। সেক্ষেত্রে প্রোটিয়া ক্রিকেটারদের আইপিএলের প্রথম অংশে দেখা না যাওয়ার সম্ভাবনাই বেশি।

করোনা পরিস্থিতির উন্নতি না হলে দক্ষিণ আফ্রিকায় এই লকডাউন বাড়তে পারে। তখন তো পুরো টুর্নামেন্টেই অংশ নেয়া সম্ভব হবে না এবি ডি ভিলিয়ার্স, ডেল স্টেইনদের।

আইপিএলের আসন্ন ১৩তম আসরে এবি ডি ভিলিয়ার্স, ডেল স্টেইন, ফাফ ডু প্লেসিস, কাগিসো রাবাদাসহ মোট ১০ জন প্রোটিয়া ক্রিকেটারের খেলার কথা। তাদের মধ্যে একমাত্র ইমরান তাহিরই ঝামেলার বাইরে আছেন।

কেননা পাকিস্তান সুপার লিগ খেলতে আগেভাগেই দক্ষিণ আফ্রিকা ছেড়ে বেরিয়ে এসেছিলেন তাহির। ফলে লকডাউনের মধ্যে তিনি পড়েননি। চার মাস পাকিস্তানে কাটানোর পর ক্যারিবিয়ান প্রিমিয়ার লিগে খেলার প্রস্তুতি নিচ্ছেন এই লেগস্পিনার। সেখান থেকে সহজেই চলে যেতে পারবেন আইপিএলে। বাকিদের সেই সুযোগ নেই।

তবে হাল ছাড়তে রাজি নয় আইপিএলের ফ্র্যাঞ্চাইজিরা। এক ফ্র্যাঞ্চাইজি মালিক ‘স্পোর্টস্টার’কে জানিয়েছেন, তারা শেষ পর্যন্ত অপেক্ষা করবেন। তিনি বলেন, ‘আমরা দক্ষিণ আফ্রিকার খেলোয়াড়দের সঙ্গে নিয়মিত যোগাযোগ রাখছি। একটা চ্যালেঞ্জ তৈরি হয়েছে সত্য, তবে আমরা সমাধান বের করার চেষ্টা করছি।’

এমএমআর/পিআর

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]