করোনা টেস্ট করেই বিকেএসপিতে যেতে হবে যুবাদের

বিশেষ সংবাদদাতা
বিশেষ সংবাদদাতা বিশেষ সংবাদদাতা
প্রকাশিত: ০৫:৪৬ পিএম, ০৬ আগস্ট ২০২০

বিকেএসপি না সিলেট? সিলেট না বিকেএসপি? এই করে করেই কাটছিল সময়। ঈদের ঠিক আগে জানা গেল, বিকেএসপি কর্তৃপক্ষ দ্বিধায়; করোনার মধ্যে বাইরের একঝাঁক ক্রিকেটারকে আবাসিক ক্যাম্প করতে অনুমতি দেয়ার সম্ভাবনা খুব কম, তাই অগত্যা সিলেট স্টেডিয়ামেই হতে পারে যুব দলের প্র্যাকটিস ভেন্যু এবং সবকিছু ঠিক থাকলে হযরত শাহজালাল (রঃ) ও হযরত শাহ পরান (রঃ)-এর স্মৃতিবিজড়িত পূণ্যভুমি সিলেটেই হতে পারে এবারের যুব দলের (অনূর্ধ্ব-১৯) আবাসিক অনুশীলন।

কিছুদিন আগে জাগো নিউজের সাথে আলাপে যুব দলের আবাসিক অনুশীলন নিয়ে বিসিবি গেম ডেভোলপমেন্ট কমিটির চেয়ারম্যান খালেদ মাহমুদ সুজন জানিয়েছিলেন, ‘বিকেএসপি মহাপরিচালকের সাথে কথা হয়েছে। তিনি এ বিষয়ে না করেননি। তবে দ্বিধান্বিত। এই করোনার মধ্যে ছাত্র-শিক্ষক, কোচসহ প্রায় হাজার খানেক মানুষ বিকেএসপিতে অবস্থান করছেন। তাদের স্বাস্থ্য নিরাপত্তার কথা ভেবে বাইরে থেকে অন্য কারো প্রবেশ এবং ভেতরে অবস্থানকারীদের বাইরে বের হওয়ার অনুমতি নেই।’

এ পরিস্থিতিতে বিকেএসপিতে প্র্যাকটিসের অনুমতি না মিললে সিলেট স্টেডিয়ামে অনুশীলন করার কথা জানিয়েছিলেন খালেদ মাহমুদ সুজন; কিন্তু শেষ পর্যন্ত মিলেছে বিকেএসপি কর্তৃপক্ষের অনুমতি। আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে জাগো নিউজের সাথে আলাপে এ তথ্য জানিয়েছেন গেম ডেভেলপমেন্ট কমিটির প্রধান খালেদ মাহমুদ সুজন।

তিনি বলেন, ‘কর্তৃপক্ষর সাথে আমাদের কথা-বার্তা চৃড়ান্ত। আমরা বিকেএসপি কর্তৃপক্ষ প্রথমে দ্বিধায় ভুগলেও শেষ পর্যন্ত আমাদের যুব দলকে বিকেএসপিতে থেকে আবাসিক অনুশীলন করার অনুমতি দিয়েছেন এবং অনূর্ধ-১৯ দলের প্র্যাকটিস বিকেএসপিতেই হবে।’

সুজন আরও জানালেন, ‘আগামী ২২ আগস্ট থেকে শুরু যুবাদের আবাসিক অনুশীলন শুরু হবে।’ তার দেয়া তথ্য অনুযায়ী মোট ৪৫ জন ক্রিকেটার ৪ সপ্তাহের আবাসিক ট্রেনিংয়ে অংশ নেবেন।

একই সঙ্গে তিনি জানিয়েছেন, করোনা সংক্রমণের ঝুঁকি এড়াতে বিকেএসপি যাওয়ার আগে প্রতিটি ক্রিকেটারের কোভিড-১৯ টেস্ট করানো হবে। ১৬, ১৮ ও ২০ আগস্ট- মোট তিনদিনে ১৫ জন করে ৪৫ জনের টেস্ট হবে। এরপর যাদের রিপোর্ট নেগেটিভ আসবে তাদেরকেই নেয়া হবে বিকেএসপিতে।

সুজনের কথা, ‘দেড় থেকে দুইদিনের মধ্যে রিপোর্ট পাওয়া যায়। তাই আমরা তিনভাগে সব ক্রিকেটারের করোনা টেস্ট করিয়ে নেবো।’ সবার টেস্ট রিপোর্ট হাতে আসার পরই আবাসিক ক্যাম্প করার জন্য যুব দলের বহর পঠানো হবে বিকেএসপিতে।

২২ আগস্ট অনুশীলন শুরু হলেও যুব দলের লঙ্কান হেড কোচ নাভেদ নওয়াজ শুরু থেকে প্র্যাকটিসে অংশ নিতে পারবেন না। এ তথ্য জানিয়ে সুজন বলেন, কোচ এর দলের সাথে মিশতে কদিন দেরি হবে। তবে ট্রেনার ঠিকই শুরু থেকে থাকবেন।’

৪৫জনের দলে কি বিশ্বজয়ী যুবদলের কোনো সদস্য থাকবেন? এমন প্রশ্নের জবাবে সুজন বললেন, ‘খুব বেশি না। ৪৫ জনের বহরে বিশ্বজয়ী স্কোয়াডের বড়জোর তিনজন থাকতে পারে। এরমধ্যে চট্টগ্রামের ব্যাটসম্যান ইমন আর রাজশাহীর বাঁ-হাতি স্পিনার অহিমের থাকা একপ্রকার নিশ্চিত।’

আইএইচএস/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]