শ্রীলঙ্কা গিয়ে একদিন পরই অনুশীলনে নামতে পারবে টাইগাররা

বিশেষ সংবাদদাতা
বিশেষ সংবাদদাতা বিশেষ সংবাদদাতা
প্রকাশিত: ০২:০৫ পিএম, ১০ আগস্ট ২০২০

আগেই জানা, করোনা সংক্রমণ অস্বাভাবিক আকার ধারণ না করলে টাইগাররা শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে তিন ম্যাচের টেস্ট সিরিজে অংশ নেবে। সময় গড়ানোর সঙ্গে সঙ্গে বিসিবি ও লঙ্কান ক্রিকেট বোর্ডের ভেতরে কথাবার্তা আরও এগিয়েছে। তবে এখন পর্যন্ত অবশ্য সফরসূচি চূড়ান্ত হয়নি।

বিসিবি পরিচালক আকরাম খান অবশ্য জাগো নিউজের সঙ্গে আলাপে সফরসূচি সম্পর্কে একটি আগাম তথ্য দিয়েছেন। বোর্ডের ক্রিকেট অপারেশনস কমিটির চেয়ারম্যান জানালেন, দিন-তারিখ শতভাগ ঠিক হয়নি। তবে যেভাবে কথাবার্তা চলছে, তাতে আগামী ২৪ অক্টোবর তিন ম্যাচের টেস্ট সিরিজ শুরুর সম্ভাবনা খুব বেশি।

সে অনুযায়ীই কথাবার্তা চলছে, সফরসূচি তৈরি হচ্ছে। যদি তাই হয়, তাহলে বাংলাদেশ দল কতদিন আগে শ্রীলঙ্কা যাবে? সেখানে গিয়ে কোয়ারেন্টাইনে থাকা, অনুশীলন করা এবং প্র্যাকটিস ম্যাচ খেলে তারপর টেস্ট খেলার প্রশ্ন। আকরাম খানও তা মানছেন। তার কথা, সেজন্যই আমরা চাচ্ছি অন্তত এক মাস আগে দলকে শ্রীলঙ্কা পাঠাতে।

যেভাবে কথাবার্তা চলছে, তাতে ২০-২২ সেপ্টেম্বরের মধ্যে টাইগারদের কলম্বো যাওয়ার সম্ভাবনা খুব বেশি বলে ইঙ্গিত আকরামের। এতদিন শোনা গেছে, শ্রীলঙ্কা গিয়ে দুই সপ্তাহ কোয়ারেনটাইনে থাকার পর অনুশীলনে নামবে বাংলাদেশ দল। তবে বিসিবি ক্রিকেট অপারেশন্স কমিটি চেয়ারম্যানের কথা শুনে মনে হলো, বাংলাদেশ দলকে শ্রীলঙ্কা গিয়ে কোয়ারেন্টাইনে থাকতে হবে না। দুই বোর্ডের মধ্যে নাকি এমন কথাই চলছে।

আকরামের ব্যাখ্যা, দল শ্রীলঙ্কা যাবার পর যদি দুই সপ্তাহ কোয়ারেন্টাইনেই কেটে যায়, তাহলে টেস্টের প্রস্তুতি নেবে কবে? আমরা দলই পাঠাতে চাচ্ছি মাসখানেক আগে। তার অর্ধেক যদি সেখানে গিয়ে কোয়ারেন্টাইনে থাকতে হয়, তাহলে তো আর টেস্টের সত্যিকার ও যথাযথ প্রস্তুতি হবে না।

তাই শ্রীলঙ্কা গিয়ে কোয়ারেন্টাইনে না থেকে এক-দুই দিন পর যাতে দল অনুশীলনে নামতে পারে, সে কথাবার্তাই চলছে। সেক্ষেত্রে দেশ ছাড়ার আগে করোনা টেস্ট করিয়ে নেগেটিভ রিপোর্ট আসা সাপেক্ষেইে ক্রিকেটারদের কলম্বোগামী বিমানে ওঠানো হবে। অর্থাৎ যাদের করোনা নেগেটিভ থাকবে, তারাই যাবে শ্রীলঙ্কা।

আর শ্রীলঙ্কা গিয়ে আবার করোনা টেস্ট করানো হবে কি না? তাৎক্ষণিকভাবে তা জানাতে পারেননি আকরাম খান। শুধু জানাতে পেরেছেন, দেশে সব ক্রিকেটারের করোনা টেস্ট করে যাওয়া হবে। শ্রীলঙ্কা গিয়ে একদিন থাকতে হবে। তবে কথায় মনে হয়েছে কলম্বোয় আবার করোনা টেস্ট দিতে হবে সবাইকে। আর সে কারণেই তার মুখ থেকে বেরিয়ে এসেছে এ কথা, কারও পজিটিভ আসলে তাকে ১৪ দিন আইসোলেশনে থাকতে হবে।

আকরাম আরও জানিয়েছেন, আমরা আনুমানিক এক মাস আগে শ্রীলঙ্কা যাব। তার আগে দেশে একটা অনুশীলন ক্যাম্প করার চেষ্টা থাকবে। সেটা নির্ভর করবে দেশের করোনা পরিস্থিতির ওপর। এখন তা বলতে পারব না। ১০-১২ দিন পর বলা যাবে দেশে অনুশীলন সম্ভব কি না? আর সম্ভব হলেও তা কবে শুরু করা যাবে।

ক্রিকেট অপারেশন্স প্রধানের কথায় মিলেছে আরও একটি পরিষ্কার আভাস, করোনা সংক্রমণ তীব্রই থাকলে দেশে যদি অনুশীলন করা সম্ভব না হয়, তাহলে একবারে শ্রীলঙ্কা গিয়েই পুরোদস্তুর প্র্যাকটিস হবে। আর সে কারণেই এক মাস আগে যাওয়ার ভাবনা।

এদিকে প্রথম টেস্ট যদি অক্টোবরের ২৪ তারিখে শুরু হয়, তাহলে নিশ্চিত করেই সিরিজ শেষ হতে হতে নভেম্বরের মাঝামাঝি পার হয়ে যাবে। পরের দুই টেস্ট কবে শুরু? তার ভেন্যু কোথায়? সব খেলা কি শ্রীলঙ্কার রাজধানী কলম্বোয়? আকরামের জবাব, এখনও তা চূড়ান্ত হয়নি। কথাবার্তা চলছে। আশা করছি খুব দ্রুতই তা চূড়ান্ত হবে।

এআরবি/এসএএস/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]