‘কোনো জবাবই দিচ্ছে না লঙ্কান ক্রিকেট বোর্ড’

বিশেষ সংবাদদাতা
বিশেষ সংবাদদাতা বিশেষ সংবাদদাতা
প্রকাশিত: ০৬:৫৩ পিএম, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২০

প্রায় প্রতিদিনই বিসিবির বিভিন্ন শীর্ষ কর্মকর্তার ভাষ্য শোনা যাচ্ছে। হয় প্রধান নির্বাহী নিজামউদ্দীন চৌধুরী সুজন, না হয় আকরাম খানের উদ্বৃতি দিয়ে প্রকাশিত ওই সব প্রতিবেদনে বার বার বলা হচ্ছে, বাইরে থেকে যাই শোনা যাক কিংবা লঙ্কান মিডিয়ায় যে খবরই প্রচার হোক না কেন, যত রকম গুঞ্জনই আকাশে বাতাসে ভেসে বেড়াক না কেন, আসলে লঙ্কান বোর্ড কোনোরকম আনুষ্ঠানিক জবাব পাঠায়নি।

আজ ২৩ সেপ্টেম্বর বুধবার আবার সে সত্যেরই দেখা মিললো। বিসিবি প্রধান নির্বাহী নিজামউদ্দীন চৌধুরী সুজন আবার জানিয়ে দিলেন, তাদের মধ্যে যোগাযোগ অব্যাহত থাকলেও শ্রীলঙ্কা সফরে কোয়ারেন্টাইন ইস্যুতে এখন পর্যন্ত আনুষ্ঠানিকভাবে লঙ্কান বোর্ড বিসিবিকে কিছুই জানায়নি।

আজ বুধবার বিকেলে সংবাদ মাধ্যমের সঙ্গে আলাপে বিসিবি প্রধান নির্বাহী অনেক কথার ভিড়ে বার তিনেক বলেছেন লঙ্কানরা কোন জবাব পাঠায়নি।

অথচ, আজ ২৩ সেপ্টেম্বর পার হয়ে যাচ্ছে। আগের ঠিক করা সূচিতে ২৭ সেপ্টেম্বর শ্রীলঙ্কা সফরে যাওয়ার কথা। এখনো ভিসা হয়নি। আরও আনুসাঙ্গিক প্রস্তুতিও নেয়া বাকি। এমন অবস্থায় এখনো লঙ্কান বোর্ড কোন জবাব দেয়নি, এটা কি সফর যথাসময়ে আয়োজনে বা ২৭ সেপ্টেম্বর যাবার ক্ষেত্রে কোন বাধা হতে পারে?

এমন প্রশ্নের জবাবে নিজামউদ্দীন চৌধুরী সুজন স্বীকার করেছেন, ‘হ্যাঁ আরও পরে ইতিবাচক জবাব আসলে ২৭ তারিখ শ্রীলঙ্কা যাওয়াটা সত্যিই কঠিন হবে।’

প্রশ্ন ছিল বর্তমান প্রেক্ষাপটে আগামী ২৭ সেপ্টেম্বর জাতীয় দল শ্রীলঙ্কা যাচ্ছে কি না বা যাবার মত অবস্থা আছে কি না? জবাবে বিসিবি সিইও স্বীকার করেছেন, তারা (বিসিবি) এখন পর্যন্ত কোন সবুজ সঙ্কেত পাননি। তিনি বলেন, ‘যদিও আমরা ২৭ তারিখকে ধরেই আমাদের প্রস্তুতি নিচ্ছি , তবে এখন পর্যন্ত আমরা কোনো নিশ্চয়তা পাইনি।’

এটুকু বলেই শেষ করেননি বিসিবি সিইও। মানছেন, ‘এই মুহূর্তে একটু চ্যালেঞ্জিং হবে ২৭ তারিখে ভ্রমণ করা। ভিসা ও অন্যান্য জটিলতা তো রয়েছেই।’

তাহলে সফর অনুষ্ঠানের পথে বাঁধা কি? বিসিবি প্রধান নির্বাহীর কথা শুনে মনে হলো, আসল বাধা হলো লঙ্কান বোর্ডের নীরবতা, নিষ্পৃহতা এবং নিষ্ক্রীয়তা। তার ব্যাখ্যা, ‘যদি শেষ মুহূর্তে কোন এডজাস্টমেন্টের প্রয়োজন হয় আমরা করে নিব।’

বিসিবি সিইও আরও জানিয়েছেন, ‘নির্দিষ্ট করে আমি এই মুহূর্তে কিছু বলতে চাচ্ছি না।’ তিনি আবারো জানিয়ে দিয়েছেন বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড সফর করতে আগ্রহী এবং আইসিসি টেস্ট সিরিজ খেলার জন্য কোয়ারেনটাইন ইস্যুতে কিছু ছাড় দিতেও রাজি।

বিষয়টা নাকি লঙ্কান বোর্ডকে জানানোও হয়েছে। তাই মুখে এমন কথা, ‘আমাদের জন্য যেটা সহনীয় পর্যায়ের বা আমরা যে জিনিসটা চাচ্ছি সে বিষয়গুলো আমরা তাদের জানিয়েছি।’ এরপরের মন্তব্য পরিষ্কার হয়েছে যে, লঙ্কান বোর্ড কোন জবাবই দিচ্ছে না।

‘যেহেতু শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট বোর্ড কিছু বলছে না, আমি মনে করি এটা আমদের মধ্যে থাকুক। কোন ডিটেইল আমরা পাবলিকলি বলতে চাচ্ছি না।’

অনেক কথার ভীড়ে নিজামউদ্দীন চৌধুরী স্বীকার করেছেন লঙ্কানরা তাদের অবস্থান থেকে সরে না আসলে শ্রীলঙ্কা সফরে যাওয়ার সম্ভাবনা কম। ‘আপনারা জানেন যে বোর্ড সভাপতি আপনাদের মাধ্যমে আমাদের অবস্থানটা পরিষ্কার করেছেন। পরবর্তীতে আমরা শ্রীলঙ্কা ক্রিকেটের সাথে যোগাযোগ চালিয়ে যাই, তারা যে হেলথ গাইডলাইন পাঠিয়েছিল সেখানে কিছু রেস্ট্রিকশন ছিল। যেগুলো তারা যদি কন্টিনিউ করে তাহলে আমাদের জন্য ট্যুরটা এগিয়ে নিয়ে যাওয়া কঠিন হয়ে যাবে। এ বিষয়গুলো আমাদের মধ্যে কিছুদিন ধরে যোগাযোগ হয়েছে। সর্বশেষ যে পরিস্থিতি, সেটা হচ্ছে আমরা নির্দিষ্ট কিছু বিষয় জানিয়েছি তাদেরকে।

তিনি আরও যোগ করেন, ‘এ জিনিসগুলো জানার পর তারা বলেছে তাদের যে কোভিড-১৯ টাস্ক ফোর্স আছে বা অন্যান্য যে অথরিটি আছে, তাদের সাথে কথা বলে যে হেলথ গাইডলাইন তা কতটুকু শিথিল করা যায় সেটা নিয়ে কাজ করছে। আশা করছি খুব দ্রুতই তারা আমাদের বিষয়গুলো নিয়ে জানাবে।’

এআরবি/আইএইচএস/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]