কামিনসের একেকটি ডেলিভারির মূল্য সাড়ে ৫ লাখ টাকা!

স্পোর্টস ডেস্ক
স্পোর্টস ডেস্ক স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৮:৪৫ এএম, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২০

এবারের আইপিএলের সবচেয়ে দামি খেলোয়াড় কলকাতা নাইট রাইডার্সের অস্ট্রেলিয়ান পেসার প্যাট কামিনস। নিলাম থেকে তাকে দলে পেতে কেকেআরের খরচ হয়েছে সাড়ে ১৫ কোটি রুপি বা বাংলাদেশি মুদ্রায় প্রায় ১৮ কোটি টাকা।

আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে দুর্দান্ত পারফরমার হিসেবেই আইপিএলে এতো বেশি দামে বিক্রি হয়েছেন অস্ট্রেলিয়ার ২৭ বছর বয়সী এ পেসার। কিন্তু টুর্নামেন্টের শুরুটা সে অর্থে ভালো হয়নি সাড়ে ১৫ কোটি রুপির কামিনসের। মুম্বাই ইন্ডিয়ানসের বিপক্ষে পারেননি নিজের কোটার পুরো ৪ ওভার শেষ করতে।

বুধবার রাতে মুম্বাইয়ের বিপক্ষে ৩ ওভারে কামিনস খরচ করেছেন ৪৯ রান। নিজের প্রথম ওভারে ১৫ দিয়ে শুরু, দ্বিতীয় ওভারেও খরচ করেছেন ১৫ রান। তাকে দিয়ে যখন ডেথ ওভারে বোলিং করানোর কথা ভাবছিলেন কেকেআর অধিনায়ক, তখন তৃতীয় ওভারে তার খরচা হয় ১৯ রান।

যে কারণে কামিনসকে পুরো ৪ ওভার বোলিং করানোর সাহস দেখাতে পারেননি কলকাতা অধিনায়ক দিনেশ কার্তিক। অথচ পুরো টুর্নামেন্টের সবগুলো ম্যাচ খেলবেন এবং পুরো ৪ ওভার বোলিং করবেন- এমন বিবেচনায় কামিনসের একেকটি ডেলিভারির মূল্য গিয়ে পড়ে প্রায় সাড়ে ৫ লাখ টাকা করে।

যদি গ্রুপপর্বের ১৪ ম্যাচের সবকয়টিতে খেলেন এবং ৪ ওভার করে পুরো ৫৬ ওভার বোলিং করেন কামিনস, তাহলে ম্যাচপ্রতি তার পেছনে কলকাতার খরচ দাঁড়ায় প্রায় সোয়া কোটি টাকা করে। প্রতি ম্যাচে ৪ ওভার ধরলে, ওভারপ্রতি এটি দাঁড়ায় প্রায় ৩২ লাখ টাকা।

কিন্তু প্রথম ম্যাচেই পুরো ৪ ওভার করতে পারেননি কামিনস। তবু যদি ধরে নেয়াই হয় যে বাকি ১৩ ম্যাচে পুরো ৫২ ওভারই করবেন তিনি, তাহলে ১৪ ম্যাচে দাঁড়ায় ৫৫ ওভার তথা ৩৩০টি বৈধ ডেলিভারি। এই হিসেবে তার একেকটি ডেলিভারির মূল্য দাঁড়ায় পৌনে ৫ লাখ রুপি বা বাংলাদেশি মুদ্রায় সাড়ে ৫ লাখ টাকা।

যদিও নিজের প্রথম ম্যাচে সাড়ে ৫ লাখ টাকা মূল্যের ডেলিভারিগুলোর সদ্ব্যবহার করতে পারেননি কামিনস, নিজের করা ১৮ বলে দিয়েছেন ৪৯ রান। তবু তার প্রতি এত সহজেই আস্থা হারানোর কথা নয় কলকাতার। আসরের সবচেয়ে দামি খেলোয়াড়কে তার নিজের সামর্থ্য প্রমাণের সুযোগ নিশ্চয়ই দেবে কেকেআর!

এসএএস/আইএইচএস/পিআর

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]