‘খোদ ঈশ্বরের ইশারায় রাহুলের অমন সেঞ্চুরি’

স্পোর্টস ডেস্ক
স্পোর্টস ডেস্ক স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৪:৩৮ পিএম, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২০

বৃহস্পতিবারে রাতে আইপিএলের ১৩তম আসরের প্রথম সেঞ্চুরি করেছেন কিংস এলেভেন পাঞ্জাবের অধিনায়ক ও ওপেনার লোকেশ রাহুল। রয়েল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালুরুর বোলারদের তুলোধুনো করে খেলেছেন ৬৯ বলে ১৩২ রানের বিধ্বংসী এক ইনিংস। এটিকে তিনি সাজিয়েছেন ১৪ চার ও ৭ ছয়ের মারে।

নিজের ক্যারিয়ারের দ্বিতীয় আইপিএল সেঞ্চুরি করার পথে রাহুল নিজ দলকে যেমন এনে দিয়েছেন ২০৬ রানের বড় সংগ্রহ, তেমনি নিজেও গড়েছেন জোড়া রেকর্ড। রাহুলের এই ইনিংসটি আইপিএলের ইতিহাসের চতুর্থ সর্বোচ্চ ব্যক্তিগত ইনিংস। তবে শুধু ভারতীয় ব্যাটসম্যানদের কথা ধরলে এটিই সর্বোচ্চ। এছাড়া অধিনায়ক হিসেবেও আইপিএলে সর্বোচ্চ রানের ইনিংস এটি।

এতদিন ধরে আইপিএলে ভারতীয়দের মধ্যে সর্বোচ্চ রানের ইনিংসের রেকর্ড ছিল রিশাভ পান্তের দখলে। ২০১৮ সালের আইপিএলে দিল্লির হয়ে খেলতে নেমে সানরাইজার্স হায়দরাবাদের বিপক্ষে ৬৩ বলে ১২৮ রানের অপরাজিত ইনিংস খেলেছিলেন পান্ত। সেই রেকর্ড ভেঙে ব্যাঙ্গালুরুর বিপক্ষে ১৩২ রানের অপরাজিত ইনিংস খেললেন রাহুল।

এছাড়া অধিনায়ক হিসেবে আইপিএলের সর্বোচ্চ রানের ইনিংসটি এতদিন ধরে ছিল ডেভিড ওয়ার্নারের। ২০১৭ সালের আইপিএলে কলকাতা নাইট রাইডার্সের বিপক্ষে ৫৯ বলে ১২৬ রান করেছিলেন সানরাইজার্স অধিনায়ক ওয়ার্নার। তিন বছর পর সেই রেকর্ড ভেঙে ১৩২ রান করলেন পাঞ্জাব অধিনায়ক রাহুল।

ভারতের সাবেক ওপেনার ও তখনকার সময়ের বিধ্বংসী ব্যাটসম্যান ক্রিস শ্রীকান্তের মতে, খোদ ঈশ্বর সপ্তাকাশ থেকে রাহুলকে এমন ইনিংস খেলার পথ দেখিয়েছেন। তার চোখে, আইপিএলের ইতিহাসের সেরা ইনিংসই এটি। রাহুলের এমন ব্যাটিংয়ে রীতিমতো ভক্ত বনে গিয়েছেন বলে জানিয়েছেন শ্রীকান্ত।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে রাহুলের এই সেঞ্চুরির উন্মুখ প্রশংসায় তিনি বলেছেন, ‘লোকেশ রাহুল, মাঝেমধ্যে আমি তোমার ব্যাটিং দেখি, তখন মনে হয় খোদ ঈশ্বর যেনো নিচে নেমে এসেছেন এতটা প্রশান্তিদায়ক ব্যাটিং করানোর জন্য। তোমার ৬৯ বলে ১৩২ রানের ইনিংসটি আইপিএলে আমাদের দেখা সর্বকালের সেরা ইনিংস। বড় ভক্ত আমি।’

শুধু শ্রীকান্ত একা নন, রাহুলের এমন ব্যাটিংয়ের প্রশংসা করেছেন ভারতের ব্যাটিং ঈশ্বর শচিন টেন্ডুলকারও। তিনি লিখেছেন, ‘সামনে থেকেই নেতৃত্ব দিলো লোকেশ রাহুল। সুপার ইনিংস। সে তার ইনিংসের গতি দারুণ রেখেছে এবং বলের টাইমিং করেছে দুর্দান্ত।’

কিংস এলেভেন পাঞ্জাবের মালিক প্রীতি জিনতা লিখেছেন, ‘ছেলেদের আজকের খেলায় অনেক বেশি খুশি। অরেঞ্জ ক্যাপ (রাহুল) ও পার্পল ক্যাপ (মোহাম্মদ শামি) দুটোই পাঞ্জাবের ঘরে দেখতে খুবই আনন্দিত আমি। সামনে থেকে নেতৃত্ব দেয়া এবং ১৩২ রানের ইনিংসের জন্য অভিনন্দন রাহুল। মুখে বড়সড় হাসি নিয়েই দুবাই ত্যাগ করছি আমি।’

এসএএস/পিআর

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]