সফর হচ্ছে, অক্টোবরের শুরুতে শ্রীলঙ্কার উদ্দেশ্যে যাত্রা!

বিশেষ সংবাদদাতা
বিশেষ সংবাদদাতা বিশেষ সংবাদদাতা
প্রকাশিত: ০৩:৪২ পিএম, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২০

টাইগাররা কি আদৌ শ্রীলঙ্কা যাবে? বিসিবি আর লঙ্কান বোর্ডের ভেতরে কি কোনরকম আপোষ রফা হয়েছে বা হচ্ছে? এই খবর জানতে আগ্রহী সবাই। পাশাপাশি আরও একটি কথাও কমবেশি চাউর হয়ে গেছে। তা হলো কোয়ারেন্টাইন ইস্যুর নিষ্পত্তি হলেও মুমিনুল, মুশফিক, তামিমরা পূর্ব নির্ধারিত সময়ে শ্রীলঙ্কা যেতে পারছেন না, গেলেও সফর পিছিয়ে যাবে।

জাগো নিউজের পাঠকরা দুদিন অগেই এমন আভাস পেয়েছেন। সেটাই সত্য। শেষ খবর, বাংলাদেশ জাতীয় দল শ্রীলঙ্কা যাচ্ছে। টাইগারদের শ্রীলঙ্কা সফর হচ্ছে। তিন ম্যাচের আইসিসি টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের সিরিজও হচ্ছে। দুই বোর্ডের ভেতরে মোটামুটি একটা আপোষ রফা হয়ে গেছে। বিসিবি পরিচালক ও ক্রিকেট অপারেশনস কমিটির চেয়ারম্যান আকরাম খানের কণ্ঠে তেমনই আভাস।

আজ (শনিবার) দুপুরে আকরাম খান যা বললেন, তাতে বোঝাই যাচ্ছে দুই দেশের বোর্ডের মধ্যে ইতিবাচক আলোচনা চলছে। এখন শুধু স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের সবুজ সংকেত পেলেই সফরসূচি চূড়ান্ত করতে বসে যাবে দুই বোর্ড। তবে সফরটি হলেও স্বাভাবিকভাবেই আগের দিনক্ষণ মেনে শ্রীলঙ্কার উদ্দেশ্যে যাত্রা করা হবে না টাইগারদের। অনিবার্যভাবেই অন্তত সপ্তাহদুয়েক হয়তো পিছিয়ে যাবে এই সফর।

জাগো নিউজের সঙ্গে আলাপে আকরামের ভাষ্য, ‘সব অনিশ্চয়তা দূর করে আমাদের জাতীয় দল শ্রীলঙ্কা খেলতে যাচ্ছে। সম্ভাবনা অনেক বেড়ে গিয়েছে। আশা করছি আগামী তিন-চারদিনের ভেতরে লঙ্কান বোর্ডের কাছ থেকে চূড়ান্ত কথাবার্তা পেয়ে যাব। তবে এখনকার খবর হলো সফর হচ্ছে। আমরা শ্রীলঙ্কা খেলতে যাব। সেই লক্ষ্যেই আমাদের কথাবার্তা এগিয়েছে। আশা করছি কয়েকদিনের ভেতরেই সব চূড়ান্ত হয়ে যাবে।’

সবকিছু ঠিক থাকলে আগামী মাসের ৭ থেকে ১০ তারিখে টাইগাররা কলম্বো যাবে- এমনটাই জানিয়েছেন আকরাম খান। জাগো নিউজকে তিনি জানান, ‘শ্রীলঙ্কা থেকে সবশেষ আগের কথাই বলেছে। অর্থাৎ বিষয়টা ওদের হাতে নেই। ওরা আশা করেছিল স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় থেকে গতকাল (শুক্রবার) কোনো খবর পাবে। আগামী দুই-তিনদিনের মধ্যে হয়তো পেয়ে যাবে। ওরা চেষ্টা করছে।’

‘ওরা চাচ্ছে যত তাড়াতাড়ি সম্ভব সিরিজটা আয়োজন করতে। আমার মনে হয় ওরা ইতিবাচক আছে। আজকে ও কালকে (শনি ও রবিবার শ্রীলঙ্কার সাপ্তাহিক ছুটি) ওদের বন্ধ। আশা করছি সোমবার বা মঙ্গলবার চূড়ান্ত কিছু চলে আসবে। যদি ইতিবাচক হয় আমরা আগামী মাসের ৭-১০ তারিখের মধ্যে যেতে পারি। যেহেতু ওদের যে শ্রীলঙ্কান টি-টোয়েন্টি লিগ (এলপিএল) হওয়ার কথা ছিল সেটা এখন নিশ্চিত না। অতএব ওদের কাছে সময় আছে।’

আকরাম আরও যোগ করেন, ‘যেহেতু সময় আছে, ওদের টি-টোয়েন্টি লিগটা কিন্তু হচ্ছে না। সেহেতু টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপে তিনটি টেস্ট ছিল তিনটিই থাকবে।’

আকরাম খান জানিয়ে দেন বিসিবির কাছে এখনো আনুষ্ঠানিকভাবে কিছু জানায়নি লঙ্কান বোর্ড, ‘আমাদের কাছে আনুষ্ঠানিকভাবে কোন চিঠি বা মেইল আসেনি। আনুষ্ঠানিকভাবে কিছু না এলে বাইরে কি হচ্ছে না হচ্ছে তা দিয়ে তো কিছু বলতে পারবো না।’

বিসিবি কি শ্রীলঙ্কা সফরের জন্য মরিয়া? ক্রিকেট অপারেশন্স কমিটি চেয়ারম্যানের ব্যাখ্যা, ‘আমরা মরিয়া না। ব্যাপারটা হল সময় ওদের কাছেও আছে আমাদের কাছেও আছে। ওরা বারবার অনুরোধ করছে কিছুদিনের মধ্যে জানিয়ে দিবে। বিষয়টা এমন না যে ওরা চাচ্ছে না কিন্তু আমরা জোর করে যাচ্ছি। আমরা যদি যেতেই চাইতাম, তাহলে ওদের শর্ত মেনেই চলে যেতে পারতাম; কিন্তু আমাদের কাছে কোনো তাড়াহুড়ো নেই। প্রথম অগ্রাধিকার হল খেলোয়াড়দের কমফোর্টেবল থাকা, মানসিকভাবে যেন ক্লান্ত না থাকে। এভাবে ওদের কাছ থেকে পারফরম্যান্সটা বের করে আনা আমাদের জন্য গুরুত্বপূর্ণ। আমরা গিয়েই যেন ভালো পারফরম্যান্স করতে পারি, তার জন্য যা যা করা দরকার তাই করবো।’

এআরবি/এসএএস/এমকেএইচ

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]