আইপিএল আমিরাতে হলেও ইংল্যান্ডের বিপক্ষে দেশেই খেলবে ভারত

স্পোর্টস ডেস্ক
স্পোর্টস ডেস্ক স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত: ১২:১৬ পিএম, ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২০

করোনাভাইরাসের কারণে অনিশ্চিত ছিলো এবারের আইপিএলের ভবিষ্যত। গত মার্চে এটি শুরুর কথা থাকলেও, পিছিয়েছে কয়েক দফা। নিজেদের দেশে করোনা পরিস্থিতির কোনো উন্নতি না ঘটায়, বাধ্য হয়েই আরব আমিরাতে এবারের আইপিএল আয়োজনের সিদ্ধান্ত নেয় ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড (বিসিসিআই)।

এখনও পর্যন্ত বেশ ভালোভাবেই আমিরাতে চলছে আইপিএলের ১৩তম আসর। ভারতে কবে ক্রিকেট ফিরবে?- এ বিষয়ে নির্দিষ্ট কোনো তথ্য জানা নেই খোদ দেশটির ক্রিকেট বোর্ডেরও। তবে বিসিসিআই প্রধান সৌরভ গাঙ্গুলির আশা, যে করেই হোক আগামী জানুয়ারিতে ইংল্যান্ডকে নিজেদের দেশে স্বাগত জানাবেন তারা।

অর্থাৎ আইপিএল আরব আমিরাতে আয়োজন করলেও ইংল্যান্ডের বিপক্ষে সিরিজের জন্য অন্য কোনো দেশের শরণাপন্ন হতে চায় না ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড। আরব আমিরাতে এই সিরিজ আয়োজনের সুবিধা থাকলেও, গাঙ্গুলি চাইছেন নিজেদের দেশেই খেলতে। শুধু ইংল্যান্ড সিরিজ নয়, আগামী বছরের সব খেলা নিজেদের দেশেই আয়োজন করতে চান বিসিসিআই প্রধান।

এ বিষয়ে সৌরভের ভাষ্য, ‘আমাদের প্রথম চেষ্টা থাকবে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে সিরিজটি ভারতের মাটিতেই আয়োজন করতে। সিরিজগুলো ভারতের মাঠে রাখার সর্বাত্মক চেষ্টা করা হবে। ভারতেই খেলতে চাই আমরা। তবে আরব আমিরাতের সুবিধা হলো, এখানে কাছাকাছি তিনটি স্টেডিয়াম (আবুধাবি, শারজাহ ও দুবাই) রয়েছে।’

গাঙ্গুলি নিজ দেশে সিরিজ আয়োজন করতে চাইলেও, বর্তমান করোনা পরিস্থিতিতে এটিকে অলীক কল্পনাই বলা চলে। সরকারি হিসেব মোতাবেক এখনও পর্যন্ত ভারতে ৬০ লাখের বেশি মানুষ করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। এছাড়া মৃতের সংখ্যাও ৯৫ হাজারের বেশি। যা কি না শুধুমাত্র যুক্তরাষ্ট্রের চেয়ে কম।

এমতাবস্থায় কী করে সম্ভব মাঠে ক্রিকেট ফেরানো? গাঙ্গুলির কথা, ‘আমাদের পক্ষে যা যা করা সম্ভব আমরা করবো। আমরাও বর্তমান পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণে রেখেছি। আগে আমাদের ঘরোয়া মৌসুম আয়োজনের ব্যাপারে চিন্তা করছি। এ ব্যাপারে সকল সমন্বয় এবং পরিস্থিতির কোথাও ভেবে রেখেছি আমরা। আমরা সর্বাত্মক চেষ্টা করব।’

গাঙ্গুলি আরও যোগ করেন, ‘সবকিছু একটা অস্থিতিশীলতার মধ্যে রয়েছে। গত ছয় মাসে বিষয়গুলো নিয়ন্ত্রণে রাখা খুবই কঠিন ছিল। সবাই চায় মাঠের ক্রিকেট হোক। একইসঙ্গে জনজীবনও স্বাভাবিক হওয়া দরকার। এখানে খেলোয়াড়দের অনেক কিছুই জড়িত। তবে সবকিছুর আগে করোনা পরিস্থিতির কথাই ভাবতে হবে।’

এসএএস/পিআর

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]