আইপিএল খেলতে আমিরাত গেলেন সালমা-জাহানারা

বিশেষ সংবাদদাতা
বিশেষ সংবাদদাতা বিশেষ সংবাদদাতা
প্রকাশিত: ১০:৩১ এএম, ২১ অক্টোবর ২০২০

ওমেনস টি-টোয়েন্টি চ্যালেঞ্জ তথা নারী আইপিএলের তৃতীয় আসর খেলতে আরব আমিরাতের উদ্দেশ্যে রওনা হয়েছে বাংলাদেশ দলের দুই তারকা ক্রিকেটার সালমা খাতুন ও জাহানারা আলম। বাংলাদেশ সময় সকাল ১০টা ১০ মিনিটে এমিরেটসের ফ্লাইটে যাত্রা শুরু করেছেন তারা।

আজ (বুধবার) দুপুরের মধ্যেই আমিরাতে পৌঁছে যাবেন সালমা ও জাহানারা। পরে ছয়দিন টুর্নামেন্টের অন্যান্য খেলোয়াড়দের সঙ্গে বাধ্যতামূলক কোয়ারেন্টাইনে থাকতে হবে তাদের। আগামী ২৮ অক্টোবর থেকে শুরু হবে টুর্নামেন্টের প্রস্তুতি।

এবারের নারী আইপিএলে প্রথমবারের মতো খেলতে গেলেন বাংলাদেশ দলের ক্যাপ্টেন সালমা খাতুন। তিনি খেলবেন ট্রেইলব্ল্যাজার্সের হয়ে। অন্যদিকে গত আসরের মতো এবারও ভেলোসিটির জার্সি গায়ে খেলতে নামবেন স্টাইলিশ পেসার জাহানারা আলম।

আগামী ৪ নভেম্বর (মঙ্গলবার) শুরু হবে নারী আইপিএলের তৃতীয় আসরের খেলা। প্রথমদিন মাঠে নামবে জাহানারার ভেলোসিটি ও বর্তমান চ্যাম্পিয়ন সুপারনোভাস। পরদিনই মুখোমুখি হবে সালমা-জাহানারার ট্রেইলব্ল্যাজার্স ও ভেলোসিটি। ৯ নভেম্বর হবে টুর্নামেন্টের ফাইনাল ম্যাচ।

আইপিএল খেলতে যাওয়ার আগে মঙ্গলবার সালমা বলেছেন, ‘যেহেতু খুলনায় বসে শুনেছি সেখানে অনুশীলন করেছি। জিম, রানিং, ফিটনেস নিয়ে কাজ করেছি। ঢাকায় এসে যে কয়দিন সুযোগ পেয়েছি সে কয়দিনও নিজেকে প্রস্তুত করতে অনুশীলন করেছি। ক্রিকেট বোর্ড আমাদের সুযোগ দিয়েছে ডে-নাইট অনুশীলন করার, মোটামুটি ভালো কাজে লেগেছে। প্রস্তুতিটা মোটামুটি অনেক ভালো হয়েছে।’

সালমার শেষ কথা, ‘যেহেতু এত বড় একটা আসরে যাচ্ছি, নিজের প্রত্যাশাটা অনেক ভালো করার যাতে বাংলাদেশের নাম উজ্জ্বল করতে পারি। যেহেতু অলরাউন্ডার হিসেবে যাচ্ছি, সেহেতু দুই বিভাগেই ভালো করা চেষ্টা থাকবে। আমি যদি ভালো কিছু করতে পারি তবে অবশ্যই আমার দলের জন্য সহায়ক হবে। ওখান থেকে আসার পর দেশেও কাজে লাগাবো। যেহেতু ওখানে যাচ্ছি বাইরের অনেক প্লেয়ার থাকবে, বড় বড় প্লেয়ার তাদের কাছ থেকে অনেক কিছু শেখার আছে সেগুলো শিখে এসে আমাদের দেশে প্রয়োগের চেষ্টা করবো।’

অন্যদিকে আগেরবার রানার্সআপ হওয়ায় সেই আক্ষেপ ঘোচাতে চান জাহানারা, ‘গতবার আমরা চ্যাম্পিয়ন হওয়ার দ্বারপ্রান্তে গিয়েও হতে পারিনি। নিজেরও আফসোস রয়ে গেছে, ফাইনাল ম্যাচের ফাইনাল ওভারটা। এই ধরণের পরিস্থিতিতে আবার পড়লে নিজের সেরাটা দিয়ে দলের জয়ে অবদান রাখতে হার্ট অ্যান্ড সোল ট্রাই করবো।’

নারী আইপিএলের তিন দলের স্কোয়াড
সুপারনোভাস: হারমানপ্রিত কৌর (অধিনায়ক), জেমাইমা রদ্রিগেজ (সহ-অধিনায়ক), চামারি আতাপাত্তু, প্রিয়া পুনিয়া, অনুজা পাতিল, রাধা যাদব, তানিয়া ভাটিয়া (উইকেটরক্ষক), শশীকলা সিরিওয়ার্দেনে, পুনম যাদব, শাকেরা সেলমান, অরুন্ধিতি রেড্ডি, পুজা ভাস্ত্রাকার, আয়ুশি সনি, আয়াবঙ্গা খাকা এবং মুসকান মালিক।

ট্রেইলব্ল্যাজার্স: স্মৃতি মান্ধানা (অধিনায়ক), দিপ্তী শর্মা (সহ-অধিনায়ক), পুনম রাউত, রিচা ঘোষ, ডি হেমালাথা, নুজহাত পারভিন (উইকেটরক্ষক), রাজেশ্বরী গায়কোয়ার, হারলিন দেওল, ঝুলন গোস্বামী, সিমরান দিল বাহাদুর, সালমা খাতুন, সোফি একস্লেস্টোন, নাত্থাকান চানথাম, দেবেন্দ্র ডটিন এবং কাশভি গৌতম।

ভেলোসিটি: মিথালি রাজ (অধিনায়ক), ভেদা কৃষ্ণামুর্থি (সহ-অধিনায়ক) শেফালি ভার্মা (উইকেটরক্ষক), একতা বিশট, মানসি জোশি, শিখা পান্ডে, দেবিকা বৈদ্য, শুশ্রী দিব্যদর্শিনী, মানালি দক্ষিণী, লেই কাসপেরেক, ড্যানিয়েল ওয়েট, সুন লুস, জাহানারা আলম এবং এম আনাঘা।

এআরবি/এসএএস/পিআর

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]