টাইগারদের ভিনদেশি কোচরা কে কবে ফিরবেন?

বিশেষ সংবাদদাতা
বিশেষ সংবাদদাতা বিশেষ সংবাদদাতা
প্রকাশিত: ০৮:৫৫ পিএম, ২৫ অক্টোবর ২০২০

মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ বাহিনী ফাইনাল খেললো, চ্যাম্পিয়ও হলো; কিন্তু তা আর নিজ চোখে দেখা হলো না কোচ ওটিস গিবসনের। ফাইনালের ৩৬ ঘন্টা আগে শুক্রবার দিবাগত মধ্য রাতে (১ টা ৪০ মিনিটে) রাজধানী ঢাকা ছেড়েছেন এ ওয়েস্ট ইন্ডিয়ান।

গিবসন একা নন। জাগো নিউজে আগেই সংবাদ প্রকাশ করা হয়েছে, হেড কোচ রাসেল ডোমিঙ্গো, পেস বোলিং কোচ ওটিস গিবসন আর ফিল্ডিং কোচ রায়ান কুকরা ফিরে গেছেন নিজ নিজ দেশে।

তারা এসেছিলেন মূলতঃ শ্রীলঙ্কা সফরের উদ্দেশ্যে। তাদের উড়িয়ে আনা হয়েছিল শ্রীলঙ্কা মিশনের আগে টাইগারদের তৈরি করতে।

কিন্তু সফর বাতিল হওয়ায় তারা ক্রিকেটারদের ব্যাটিং, বোলিং ও ফিল্ডিংটা ঝালাই করার কাজ করেছেন বেশ কিছুদিন। এর মধ্যে প্রেসিডেন্টস কাপও শুরু হলো। হেড কোচ রাসেল ডোমিঙ্গো ছাড়া বাকি দু’জন (রায়ান কুক ছিলেন তামিম বাহিনীর কোচ) কোচিংও করিয়েছেন।

কিন্তু শেষ পর্যন্ত তিন কোচের একজনও ফাইনালে ছিলেন না। আগেই চলে গেছেন। জাতীয় দলের হেড কোচ, পেস বোলিং কোচ আর ফিল্ডিং কোচের এই চলে যাওয়া জন্ম দিয়েছে কিছু প্রশ্নের। কেন এই বিদেশি কোচরা অন্তত প্রেসিডেন্টস কাপ শেষ করে যেতে পারতেন না। তারা আবার কবে আসবেন?

নভেম্বরে যে টি-টোয়েন্টি টুর্নামেন্ট হবে, তখন কি তারা আসবেন? নাকি একবারে আগামী বছর জানুয়ারিতে যে ওয়েস্ট ইন্ডিজ আসবে, তখন একবারে আসবেন?

এ সময়োচিত প্রশ্নের জবাব দিতে গিয়ে ক্রিকেট অপারেশন্স কমিটির চেয়ারম্যান আকরাম খান জানান, ‘সবাই আর আপাতত আসছেন না। কিছু আছেন যারা ঘরোয়া টুর্নামেন্টের সময় আসবেন। আর কিছু আছেন যারা একবারে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে হোম সিরিজে ফিরে আসবেন।’

আকরাম খান আরও যোগ করেন, ‘টি-টোয়েন্টি টুর্নামেন্টের সময় কিছু স্টাফ থাকবে, কিছু থাকবে না। যাদের দরকার আছে তারা থাকবে। যেহেতু আমাদের পরের বছর অনেক সিরিজ আছে, ওদের কথাও চিন্তা করতে হবে।’

তবে ক্রিকেট অপস চেয়ারম্যান শেষ করেন এভাবে, ‘ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ২০২১ সালের জানুয়ারিতে হোম সিরিজের আগে সব ভিনদেশি কোচই আসবেন।’

এআরবি/আইএইচএস/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]