টি-টোয়েন্টি টুর্নামেন্টে টিম স্পন্সর খুঁজছে বিসিবি

বিশেষ সংবাদদাতা
বিশেষ সংবাদদাতা বিশেষ সংবাদদাতা
প্রকাশিত: ০৫:৫৬ পিএম, ২৮ অক্টোবর ২০২০

পাঁচদলের প্রস্তাবিত টি টোয়েন্টি টুর্নামেন্ট উপলক্ষ্যে আগ্রহী স্পন্সর চেয়ে বিসিবি বিজ্ঞাপন দিচ্ছে, এ খবর একদিন আগেই জাগো নিউজে বোর্ডের প্রধান নির্বাহী নিজামউদ্দীন চৌধুরী সুজনের উদ্বৃতি দিয়ে প্রকাশ হয়েছে। যেহেতু বোর্ড সিইও নিজ মুখে স্পন্সর নেয়ার কথা স্বীকার করেছেন, তার অর্থ বোর্ডও চাইচ্ছে টি-টোয়েন্টি টুর্নামেন্টটিতে টিম স্পন্সরশিপ থাকুক।

আর বোর্ড সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন গত ২৫ অক্টোবর প্রেসিডেন্টস কাপের ফাইনালের দিন সন্ধ্যায় জানিয়ে রেখেছেন আগ্রহী স্পন্সর পাওয়া গেলে এবং তারা উৎসাহ দেখালে ৫ দলের টি-টোয়েন্টি টুর্নামেন্ট কর্পোরেট টুর্নামেন্টও হতে পারে এবং দলের গঠন বিন্যাসে প্লেয়ার্স ড্রাফটও হতে পারে।

আজ বুধবার সে ইস্যুতে আবার মুখ খুলেছেন বিসিবি সিইও। তার কথায় পরিষ্কার, বোর্ড নীতিগতভাবে টীম স্পন্সরশিপের আশা করছে। আর তাই তারা আগে স্পন্সরশিপ নিশ্চিতের অপেক্ষায়। আর প্লেয়ার্স ড্রাফটাও সেই কর্পোরেট হাউজ বা ব্যক্তিমালিকানা প্রতিষ্ঠানগুলোর মতের ও ইচ্ছের ওপর নির্ভর করছে।

এ সম্পর্কে কথা বলতে গিয়ে নিজামউদ্দীন চৌধুরী সুজন বলেন, ‘আমরা আসলে এখনো কিছু চূড়ান্ত করিনি। আমরা চেষ্টা করছি যত তাড়াতাড়ি সম্ভব টিম স্পন্সরগুলো কনফার্ম করতে। যেটা আমরা ইতোমধ্যে এক্সপ্রেশন অফ ইন্টারেস্ট (ইওআই) দিয়েছি টিম স্পন্সর চেয়ে। তারপর আমাদের যে সকল ‘স্টেক হোল্ডার’ আছেন তাদের সাথে আলোচনা করে সিদ্ধান্ত নিব।’

বিসিবি প্রধান নির্বাহী জানান, তারা চাচ্ছেন ক্রিকেটারদের প্রতিযোগিতামূলক ক্রিকেটে ফেরাতে। বলার অপেক্ষা রাখে না, মাঠে লড়াই ও প্রতিদ্বন্দ্বীতায় একটুকু ঘাটতি ছিল না। প্রাইজমানি আর ব্যক্তিগত পুরস্কারও ছিল প্রচুর।

তারপরও প্রেসিডেন্টস কাপ ছিল মূলতঃ ক্রিকেটারদের মাঠে ফেরানোর প্রথম ধাপ। প্রতিযোগিতামুলক ক্রিকেটে ফেরা হবে টি-টোয়েন্টি টুর্নামেন্ট দিয়ে। সে আসর আয়োজনে তাই বোর্ড উৎসাহী। তা জানিয়ে নিজামউদ্দীন চৌধুরী সুজন বলেন, ‘যেহেতু অনেকদিন ধরেই সবাই ক্রিকেটের বাইরে আছেন, প্রতিযোগিতামূলক ক্রিকেটকে চালু করার জন্য আমাদের যে প্ল্যান তার অংশ হিসেবে আপনারা দেখেছেন আমরা একটা তিন দলীয় টুর্নামেন্ট আয়োজন করেছি সফলভাবে। এরপরের ধাপটা হচ্ছে আমরা একটা ৫ দলীয় টুর্নামেন্ট করবো।

প্লেয়ার্স ড্রাফট বা অন্যান্য বিষয় সম্পর্কে কিছু বলতে বলা হলে তিনি বলেন, ‘মাননীয় বোর্ড সভাপতি বলেছেন, আমরা নভেম্বরের মাঝামাঝি সময়ে এটা আয়োজন করবো। এখনো সে প্ল্যানেই এগোচ্ছি।’

ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে হোম সিরিজের জন্য বায়ো বাবল প্ল্যানের কি অবস্থা? জানতে চাওয়া হলে বিসিবি সিইও বলেন, আপনারা দেখেছেন আমরা তিন দলীয় একটা টুর্নামেন্ট করেছি, একটা ৫ দলীয় টুর্নামেন্ট করবো। এটা পরিকল্পনার একটা অংশ, তার পরেই আমরা আইসিসির এফটিপি অনুসারে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে আতিথেয়তা দেওয়ার কথা রয়েছে। ওয়েস্ট ইন্ডিজ ক্রিকেট বোর্ডের সাথে আমাদের যোগাযগ হচ্ছে। আমরা ওয়েস্ট ইন্ডিজ ক্রিকেট বোর্ডকে সংশ্লিষ্ট যে প্ল্যান, মেডিকেল প্ল্যান বা কোভিড-১৯ ম্যানেজমেন্ট প্ল্যান যেটা আছে সেটা খুব শীগ্রয়ই পাঠিয়ে দিব। তার পর হয়তো দুই বোর্ড আলোচনা করে এ ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নিব।’

এআরবি/আইএইচএস/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]