‘থাকার কথা বিশ্বকাপে, আমি এখন ডেলিভারি বয়’

স্পোর্টস ডেস্ক
স্পোর্টস ডেস্ক স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত: ১১:৩৮ এএম, ১৬ নভেম্বর ২০২০

সবকিছু স্বাভাবিক থাকলে রোববার (১৫ নভেম্বর) শেষ হওয়ার কথা ছিল টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের ২০২০ সালের আসর। কিন্তু মহামারি করোনাভাইরাসের কারণে এবার শুরুই করা যায়নি বিশ্বকাপ। পুরো টুর্নামেন্ট পিছিয়ে দেয়া হয়েছে এক বছরের জন্য। আগামী বছরের অক্টোবর-নভেম্বরে হবে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ।

করোনাভাইরাসের কারণে শুধু খেলাধুলাই নয়, টোটাল লকডাউনের সময় বন্ধ ছিল সবকিছুই। ফলে ক্রিকেটার থেকে শুরু করে প্রায় সব ক্রীড়াবিদকেই পড়তে হয়েছে আর্থিক সমস্যায়। খেলাধুলা সচল থাকলে অন্তত আর্থিক দিক নিয়ে চিন্তায় পড়তে হয় না ক্রীড়াবিদদের। কিন্তু সেটিও বন্ধ থাকায় ঝামেলায় পড়েছেন অনেকেই।

তার মধ্যে অন্যতম নেদারল্যান্ডসের ২৭ বছর বয়সী পেসার পল ফন মেকেরেন। নেদারল্যান্ডসের হয়ে ২০২০ সালের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে খেলার আশায় ছিলেন তিনিও। কিন্তু এখন করোনাভাইরাসের কারণে আসা আর্থিক ধাক্কা সামাল দিতে নিজের পেশা বদলে তিনি হয়ে গেছেন ডেলিভারি বয়।

বিশ্বব্যাপী চলমান অস্বাভাবিক পরিস্থিতির শিকার হয়ে এখন জীবিকা নির্বাহের জন্য নতুন পথ বেছে নিতে হয়েছে ২০১৬ সালের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ খেলা এ পেসারকে। আন্তর্জাতিক মঞ্চে ধারাবাহিক পারফর্ম করা মেকেরেন সুযোগ পেতেন এবারের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপেও। কিন্তু বিশ্বকাপই গেছে পিছিয়ে।

ফলে এখন উবার ইটসের হয়ে ফুড ডেলিভারি বয়ের কাজ করছেন পল ফন মেকেরেন। নিজের আক্ষেপের কথা তিনি জানিয়েছেন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম টুইটারে। রোববার বিশ্বকাপ বিষয়ক একটি টুইট করে ইএসপিএন ক্রিকইনফো। সেটি রিটুইট করেছেন মেকেরেন।

নিজেদের হ্যান্ডলারে ক্রিকইনফো লিখেছিল, ‘মেলবোর্নে আজ (১৫ নভেম্বর) টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের ফাইনাল হওয়ার কথা ছিল।’ এই পোস্ট রিটুইট করে মেকেরেন লিখেছেন, ‘এখন আমার ক্রিকেট খেলার কথা ছিল। অথচ শীতের দিনগুলো ভালভাবে কাটানোর জন্য আমি খাবার ডেলিভারি দিয়ে যাচ্ছি। কীভাবে সব বদলে যায়!’

মেকেরেনের এই রিটুইট এরই মধ্যে ভাইরাল হয়ে গেছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে। ক্রিকেটপ্রেমীরা সহমর্মিতা জানানোর পাশাপাশি আগামী বছর হতে যাওয়া বিশ্বকাপের জন্য মেকেরেন ও নেদারল্যান্ডস জাতীয় দলকে শুভকামনা জানাচ্ছেন।

উল্লেখ্য, ২০১৩ সালে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অভিষেক হয়েছে মেকেরেনের। এখনও পর্যন্ত তিনি খেলেছেন ৫ ওয়ানডে ও ৪১ টি-টোয়েন্টি ম্যাচ। ওয়ানডে তার শিকার ৪ ও টি-টোয়েন্টিতে নিয়েছেন ৪৭টি উইকেট। এছাড়া কাউন্টি ক্রিকেটে সমারসেটের হয়ে নিয়মিতই খেলে থাকেন তিনি।

এসএএস/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]