ভারতকে বিপদে ফেলতে অসিদের কী পরামর্শ দিলেন শোয়েব?

স্পোর্টস ডেস্ক
স্পোর্টস ডেস্ক স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৯:৩১ পিএম, ২১ নভেম্বর ২০২০

আবারও শোয়েব আখতার। এবারও তিনি দৃশ্যপটে চলে এলেন ভারত বিরোধীতা নিয়ে। যদিও এই ভারত বিরোধীতা রাজনৈতিক মঞ্চে নয়, পুরোপুরি ক্রিকেট মাঠের। অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে সিরিজি শুরুর আগে তার মন্তব্য বিরাট কোহলিদের জন্য অস্বস্তি তৈরি করতে পারে।

২৭ নভেম্বর থেকে শুরু হচ্ছে ব্লকবাস্টার অস্ট্রেলিয়া-ভারত সিরিজ। স্বাগতিক অস্ট্রেলিয়া ভারতের বিপক্ষে কিভাবে নিজেদের মেলে ধরবে, কিভাবে বিরাট কোহলিদের পরাজিত করবে, সে পরামর্শ নিয়েই হাজির হয়ে গেলেন সাবেক পাকিস্তানি স্পিডস্টার।

শোয়েব আখতারের মতে, অস্ট্রেলিয়া এবং ভারত সিরিজে উইকেটই সিরিজ নির্ণায়ক হয়ে দাড়াবে। অস্ট্রেলিয়ার উইকেট সাধারণত পেস সহায়ক হয়, সে সঙ্গে থাকে বাউন্সও। যদিও শেষ দু’ এক বছরে সেটা তেমন দেখা যাচ্ছে না, যা প্রতিপক্ষের সুবিধা করে দিচ্ছে বলে দাবি করেন শোয়েব।

শোয়েব আখতার বলেন, ‘বিদেশের মাটিতে বেশ কিছু ইনিংস লাগে নিজেকে পুরোপুরি মেলে ধরার জন্য। শুরু থেকেই ব্যাটসম্যান ড্রাইভ করতে পারবে না। কেমন উইকেট তৈরি করে অস্ট্রেলিয়া সেদিকে তাকিয়ে থাকব। অস্ট্রেলিয়া আক্রমণ করবে সেটা ঠিক, সহজ হবে না ড্রাইভ খেলা।’

এরপরই অসিদের পরামর্শ দিয়ে তিনি বলেন, ‘অস্ট্রেলিয়ার পেস অ্যাটাক যেমন প্রতিপক্ষ দলকে বিপদে ফেলতে পারে, তেমনই বিপদে ফেলতে পারে ব্যাটসম্যানের শরীরকেও।’

শোয়েবের মতে, গত অস্ট্রেলিয়া সফরে ভারতের টেস্ট সিরিজ জেতার অন্যতম কারণ ছিল উইকেট। বিরাট কোহলির নেতৃত্বে অস্ট্রেলিয়া ব্যাটিং লাইন আপকে ভুগিয়েছিল ভারতীয় বোলাররা। এবার তাই অস্ট্রেলিয়ার কঠিন পিচ তৈরি করার দিকে নজর দেওয়া উচিত বলে মনে করেন সাবেক এই পাকিস্তানি পেসার। এমন উইকেট যা পেস সহায়ক হবে এবং বাউন্সও থাকবে। যাতে বিরাট কোহলিসহ ভারতীয় ব্যাটিং লাইন আপকে বিপদে ফেলতে পারে অসি পেসাররা।

দুই দেশের মধ্যে চার ম্যাচের টেস্ট সিরিজ শুরু হবে ১৭ ডিসেম্বর থেকে। এর আগে ২৭ নভেম্বর থেকে শুরু হবে একদিনের সিরিজ। তারপর দুই দলের মধ্যে খেলা হবে তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজ। টেস্ট সিরিজের প্রথম ম্যাচের পর ছুটিতে চলে যাবেন বিরাট কোহলি। যা পরের তিন টেস্টে ভারতকে ভোগাতেও পারে।

আইএইচএস/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]