অর্ধেক টুর্নামেন্ট না গেলেও তো মন্তব্য করা ঠিক হবে না’

বিশেষ সংবাদদাতা
বিশেষ সংবাদদাতা বিশেষ সংবাদদাতা
প্রকাশিত: ০৯:৫১ পিএম, ৩০ নভেম্বর ২০২০

বঙ্গবন্ধু টি-টোয়েন্টি আসরে কার ফর্ম কেমন? কোন ক্রিকেটার কেমন খেলছেন? জাতীয় দলের টিম ম্যানেজমেন্ট ও নির্বাচকরা কি ভাবছেন? তাদের মূল্যায়ন কি?

এমন কৌতুহলি প্রশ্নের জবাব দিতে গিয়ে প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদিন নান্নু স্পষ্ট জানিয়ে দিয়েছেন, ক্রিকেটারদের পারফরমেন্স মূল্যায়ন করার এবং কে কেমন খেলছে, কার ফর্ম কেমন- তা নিয়ে এখনই চরম মন্তব্যের সময় আসেনি। এখন কোন মূল্যায়ন করা ও মন্তব্য করা ঠিক হবে না।

প্রধান নির্বাচক বোঝানোর চেষ্টা করেন, এখনো টুর্নামেন্ট শুরুর দিকে আছে। গড়পড়তা দলগুলো মাত্র তিনটি করে ম্যাচ খেলেছে। তাই এখন কোন মন্তব্য ও মূল্যায়ন করাকে একটু আগাম বলে মনে করেন নান্নু।

তাই মুখে এমন কথা, ‘একেকটা দলের তিনটা করে খেলা হয়েছে মাত্র। কোন খেলোয়াড় কেমন করছে না করছে, হাফ অব দ্য টুর্নামেন্ট না গেলে মূল্যায়ন করতে পারব না। তিনটা ম্যাচের মধ্যে মূল্যায়ন করা যাবে না। টুর্নামেন্টের অর্ধেক শেষ না হওয়া পর্যন্ত আপনি বুঝতে পারবেন না খেলোয়াড়েরা কতটুকু ইউজ টু হয়েছে এটার সঙ্গে। তারপরও আমার বিশ্বাস যে, আরও দুটো করে ম্যাচ গেলে খেলোয়াড়েরা ইনশাআল্লাহ আগের অবস্থায় ফিরে আসবে।’

এছাড়া প্রধান নির্বাচক যোগ করেন, ফরম্যাটটা টি টোয়েন্টি। যে ফরম্যাটে ধারাবাহিকভাবে ভাল খেলা কঠিন। তাই মুখে এমন সংলাপ,‘টি-টোয়েন্টি ক্রিকেট, এখানে খেলোয়াড়দের ওভাবে পারফরম্যান্স আপনার আশা করতে পারেন না যে প্রত্যেক ম্যাচ ভালো খেলবে।’

বিসিবি প্রেসিডেন্টস কাপে অংশ না নেয়া বেশ কয়েকজন ক্রিকেটার খেলছেন বঙ্গবন্ধু টি-টোয়েন্টি আসরে। দিন-ক্ষণের হিসেব কষলে প্রায় ৮ মাস পর অনেক ক্রিকেটার মাঠে নেমেছেন। তাই নান্নুর ধারনা, তাদের মানিয়ে নিতে সময় দরকার।

‘এখানে অনেকগুলো খেলোয়াড় প্রায় আটমাস ক্রিকেট খেলার বাইরে ছিল। আর বাকি খেলোয়াড়রা কিন্তু প্রায় আটমাস পরে খেলতে আসছে। তো সেই হিসেবে মাথায় রেখে কিন্তু আপনাকে চিন্তা করতে হবে।’- বলছেন প্রধান নির্বাচক।

৫ দলের আসরে কোন চার দল নকআউট পর্বে যেতে পারে? এমন প্রশ্নের জবাবেও প্রধান নির্বাচক আরও সময় নিতে চান।

‘মাত্র তিনটা ম্যাচ গেছে, যে কোন দল কিন্তু ভালো করতে পারে। এখানে যে ফরম্যাটে খেলা হচ্ছে, তাতে চারটা দল প্লে অফের সুযোগ পাবে। সুতরাং হাফ অব দ্য টুর্নামেন্ট না গেলে আপনি বুঝতে পারবেন না কোন দল কোন দিকে যাচ্ছে।’

তারপরও বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান আর টি টোয়েন্টি ফরম্যাটে জাতীয় দলের অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ থাকার পরও খুলনা কিছু করতে পারছে না। এর কারণ জানতে চাওয়া হলে প্রধান নির্বাচকের ব্যাখ্যা, ‘খুলনা যথেষ্ঠ অভিজ্ঞ দল, অনেকগুলা অভিজ্ঞ খেলোয়াড় রয়েছে। যে কোন দল যে কোন সময় ঘুরে দাঁড়াতে পারে। হাফ অব দ্য টুর্নামেন্ট শেষ না হলে আপনি এটা আগে থেকে বলতে পারবেন না, প্লে অফে কোন দল খেলতেছে।’

এআরবি/আইএইচএস/পিআর

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]