প্রস্তুতি ম্যাচে খেলছেন তাসকিন, করবেন শুধু বোলিং

বিশেষ সংবাদদাতা
বিশেষ সংবাদদাতা বিশেষ সংবাদদাতা
প্রকাশিত: ১০:৩৬ এএম, ১৬ জানুয়ারি ২০২১

অনুশীলন ক্যাম্পে যোগ দিয়ে দ্বিতীয় দিনেই ইনজুরিতে পড়েন বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের ডানহাতি পেসার তাসকিন আহমেদ। বাম হাতে দিতে পড়ে তিনটি সেলাই। যার ফলে ক্যারিবীয়দের বিপক্ষে সিরিজে তার খেলা নিয়ে দেখা দেয় শঙ্কা।

সবশেষ খবর হলো, নিজেদের মধ্যকার দ্বিতীয় প্রস্তুতি ম্যাচে খেলছেন তাসকিন। তবে তিনি এখন ফিল্ডিং করতে পারবেন না। ইনজুরি বিষয়ক সতর্কতার কারণে শুধু নিজের কোটার বোলিংটা শেষ করবেন তিনি।

গত সোমবার (১১ জানুয়ারি) নেটে বোলিং করতে গিয়ে ফলো থ্রু’তে বল থামাতে গিয়ে বাম হাতে ব্যথা পেয়েছিলেন জাতীয় ক্রিকেট দলের পেসার তাসকিন আহমেদ। ব্যাটসম্যানের খেলা স্ট্রোক ফলো থ্রু’তে থামাতে গেলে বাঁ-হাতের বুড়ো আঙ্গুল আর তর্জনির মধ্যখানে গিয়ে লাগে।

প্রাথমিকভাবে মনে করা হয়েছিল শুধু চামড়া ছিলে গেছে খানিকটা। কিন্তু পরে তার হাতের ঐ জায়গায় দিতে হয়েছে তিনটি সেলাই। যে কারণে বৃহস্পতিবার (১৪ জানুয়ারি) বিকেএসপিতে হওয়া প্রথম প্রস্তুতি ম্যাচে খেলতে পারেননি তিনি।

তবে আজ (শনিবার) দ্বিতীয় প্রস্তুতি ম্যাচে রাখা হয়েছে তাকে। ফিল্ডিং করলে হাতের ঐ জায়গায় আবার ইনজুরির ঝুঁকি বেড়ে যাবে বিধায় শুধু বোলিংই করবেন তাসকিন। আজ সকালে জাগো নিউজকে এ তথ্য জানিয়েছেন জাতীয় দলের প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদিন নান্নু। তার ভাষ্য, তাসকিন আজকে খেলছে। ও বোলিং করবে শুধু, ফিল্ডিং করবে না।

ধরে নেয়া যাক, তাসকিন ভালো বোলিং করলেন কিন্তু ফিল্ডিং একদমই করতে পারলেন না। তাহলে কী হবে? মূল স্কোয়াডে রাখার ব্যাপারে তখন সিদ্ধান্ত কেমন হবে? নান্নুর কথা, এসব ক্ষেত্রে পুরোপুরি সুস্থ হতে ১০ থেকে ১৪ দিনের মতো লাগে। আগামী ২০ তারিখ ওর ইনজুরির দশ দিন পুরো হয়ে যাবে। কাজেই আমরা দেখব কী অবস্থা দাঁড়ায়। এরপর ব্যবস্থা নেয়া হবে।

প্রধান নির্বাচকের শঙ্কার জায়গা একটাই, সাধারণত এ ধরনের জায়গায় ছোট্ট ঘা হলেও ভেতরে কাঁচা থাকে। তাই ১৪ দিনের মধ্যে ঐ জায়গায় নতুন করে বলের আঘাত লাগলে ফেটে যেতে পারে। তখন আবার দীর্ঘমেয়াদি ইনজুরি দেখা দিতে পারে। তাই সিদ্ধান্ত নেয়ার আগে সবকিছু বিবেচনা করা হবেই জানিয়েছেন প্রধান নির্বাচক।

এখন দেখার বিষয় হলো, গত ১১ জানুয়ারি ব্যথা পেয়েছেন তাসকিন। যদি ১৪ দিন সময় লাগে তাহলে পুরোপুরি সুস্থ হতে হতে শেষ হয়ে যাবে ওয়ানডে সিরিজ। যেখানে খেলা হবে না তাসকিনের। তবে দশদিনের মধ্যেই সুস্থ হতে পারলে অন্তত শেষের দুই ম্যাচে পাওয়া যাবে তাকে। সেই বিবেচনায় হয়তো ওয়ানডের চূড়ান্ত স্কোয়াডে রাখা হবে তাসকিনকে।

এআরবি/এসএএস/এমকেএইচ

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]