অধিনায়ক বাছাইয়ে ভুল করেছে রাজস্থান!

স্পোর্টস ডেস্ক
স্পোর্টস ডেস্ক স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত: ১২:২৫ পিএম, ২৩ জানুয়ারি ২০২১

ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগ (আইপিএল) ক্রিকেটের আসন্ন মৌসুমের জন্য নতুন অধিনায়কের নাম ঘোষণা করেছে রাজস্থান রয়্যালস। অস্ট্রেলিয়ার তারকা ব্যাটসম্যান স্টিভেন স্মিথকে দল থেকে ছেড়ে দিয়ে ভারতীয় উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান সানজু স্যামসনকে দায়িত্ব দিয়েছে টুর্নামেন্টের প্রথম আসরের চ্যাম্পিয়ন দলটি।

স্মিথকে বাদ দেয়ার সিদ্ধান্ত সঠিক হলেও, স্যামসনকে অধিনায়কত্ব দেয়ার সিদ্ধান্তটি ভুল হয়েছে বলে মনে করেন ভারতের সাবেক অধিনায়ক ও আইপিএলের দুইবারের চ্যাম্পিয়ন গৌতম গম্ভীর। তার মতে, ইংল্যান্ডের তারকা ক্রিকেটার জস বাটলার কিংবা বেন স্টোকসকে দায়িত্ব দিলে তার আরও ভালো হতো।

দিল্লি ডেয়ারডেভিলস ও কলকাতা নাইট রাইডার্সের হয়ে আইপিএল খেলেছেন গম্ভীর। তার নেতৃত্বেই ২০১২ ও ২০১৪ সালে আইপিএলের শিরোপা জিতেছে কলকাতা। নিজের অভিজ্ঞতা থেকেই তিনি বিশ্লেষণ করেছেন রাজস্থানের আসন্ন মৌসুমের পরিকল্পনা। যেখানে খানিক ভুলই খুঁজে পেয়েছেন তিনি।

স্টার স্পোর্টসের অনুষ্ঠানে গম্ভীর বলেছেন, ‘তারা (রাজস্থান) একটি সিদ্ধান্ত সঠিক নিয়েছে। কারণ স্টিভ স্মিথ টেস্ট বা ওয়ানডের মতো টি-টোয়েন্টিতে অতটা ভয়ানক নন। যখন আপনি তাকে অধিনায়ক বানান এবং ওপেনিংয়ে নামান, তা দলের জন্য আরও বাজে সিদ্ধান্ত। তাই আমি মনে করি এত দাম দিয়ে তাকে ধরে না রাখার সিদ্ধান্তটি সঠিক।’

তবে অধিনায়ক বাছাইয়ের ভুলটি ধরিয়ে দিয়ে তিনি বলেন, ‘রাজস্থানের হাতে হয়তো অনেক বেশি পথ খোলা নেই। তবে আমার মতে, সানজু স্যামসনকে অধিনায়কত্ব দেয়াটা এখন খুব জলদি হয়ে গেলো। এখন দেখার বিষয় সে রোহিত শর্মার মতো সফলতা আনতে পারে কি না।’

ইংল্যান্ডের খেলোয়াড়দের পুরো মৌসুমের জন্য পাওয়া গেলে বাটলার ও স্টকসকে দায়িত্ব দেয়ার পরামর্শ গম্ভীরের, ‘তাদের দলে জস বাটলার এবং বেন স্টোকসের মতো খেলোয়াড় আছে। যদি ইংল্যান্ডের খেলোয়াড়রা পুরো আইপিএলের জন্য এভেইলেবল থাকে, তাহলে আমি অধিনায়কত্ব বাটলারকে। কেননা সে যেমন ফর্মেই থাকুক, সব ম্যাচই খেলবে।’

পাশাপাশি স্যামসনকে সহ-অধিনায়ক হিসেবে রাখার কথাই বললেন ভারতের এই সাবেক অধিনায়ক, ‘আমি বাটলারকে অধিনায়কত্ব দিতাম এবং স্যামসনকে সহ-অধিনায়ক রাখতাম। কারণ সে মাত্রই ভারতের হয়ে খেলার সুযোগ পেয়েছে। তাই তার ওপর দলে জায়গা পাকা করার একটা চাপ থাকবে। আইপিএলে ভালো করতে পারলে তা সবজায়গায়ই কাজে দেয়।’

এসএএস/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]