‘ত্রিশ’ ভুলে এখন ‘দশে’ চোখ ক্যারিবীয় কোচের

ক্রীড়া প্রতিবেদক ক্রীড়া প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৮:৫৬ পিএম, ২৩ জানুয়ারি ২০২১

বড় আশা নিয়ে বাংলাদেশে পা রেখেছিলেন। ওয়ানডে সুপার লিগের হিসেব নিকেশ আছে। এক ম্যাচ জিতলেই ১০ পয়েন্ট। বাংলাদেশের বিপক্ষে তিন ম্যাচ জিতে ৩০ পয়েন্ট বগলদাবা করার স্বপ্ন ছিল ওয়েস্ট ইন্ডিজের হেড কোচ ফিল সিমন্সের।

সেটা তো আর হলো না। সিরিজের প্রথম দুই ওয়ানডেতে ‘গো-হারা’ হেরে এখন শেষ ১০টা পয়েন্টের দিকে তাকিয়ে সিমন্স। জানালেন, চট্টগ্রামে সিরিজের তৃতীয় ও শেষ ওয়ানডেটা যে করেই হোক জিততে চান।

মিরপুরে সিরিজের প্রথম ওয়ানডেতে ৬ আর দ্বিতীয়টিতে ৭ উইকেটের বড় ব্যবধানে হেরেছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। প্রথম ম্যাচে টাইগার বোলারদের তোপে মাত্র ১২২ রানে অলআউট হওয়ার পর দ্বিতীয় ওয়ানডেতে ১৪৮ পর্যন্ত যেতে পেরেছিল সফরকারিরা।

এটাকেই উন্নতি হিসেবে দেখছেন ক্যারিবীয় দলের হেড কোচ ফিল সিমন্স। আরেকটু উন্নতি করে ২৩০-২৫০ রান পর্যন্ত যেতে পারলে ঘরের মাঠের বাংলাদেশের সঙ্গে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করা যাবে, বিশ্বাস তার। শুধু প্রতিদ্বন্দ্বিতাই নয়, শেষ ওয়ানডেটা জিতে সুপার লিগের জন্য অন্ততপক্ষে ১০টি পয়েন্ট নিতে চান।

সিমন্স বলেন, ‘আমরা এখানে এসেছিলাম ৩০ পয়েন্টের লক্ষ্য নিয়ে। এখনও আমাদের এই প্রতিযোগিতার ১০টি পয়েন্ট নেয়ার সুযোগ আছে। তবে সবচেয়ে বেশি দরকার উন্নতির ধারা বজায় রাখা। আমরা ১২২ থেকে ১৪৮ পর্যন্ত গিয়েছি। কিন্তু আমাদের করতে হবে ২৩০-২৫০। তাহলেই আমরা প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে পারব। বোলারদের জন্য কিছু করার থাকবে, সাহস নিয়ে খেলা যাবে। তবে আমাদের মূল লক্ষ্য ১০ পয়েন্ট।’

বলতে গেলে দ্বিতীয় সারির এক দল নিয়ে বাংলাদেশে এসেছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। প্রথম দুই ওয়ানডেতে তারা অভিষেক ঘটিয়েছে সাত-সাতজন খেলোয়াড়ের। কেন এত বেশি ঝুঁকি নেয়া?

সিমন্স বলেন, ‘এটা আসলে আমার চেয়ে দলেরই বেশি দরকার। নতুনদের জন্য সুযোগ তারা এই লেভেলে কি করতে পারে দেখিয়ে দেয়ার। এখান থেকে তারা ২০২৩ (বিশ্বকাপ) সালে নিজেদের নাম তুলতে পারে। জায়গা করে নিতে পারে শ্রীলঙ্কা সফর কিংবা বছরের শেষভাগে অন্য খেলাতেও। কিভাবে তারা তৈরি হয় এটা দেখতে পারা ভালো ব্যাপার।’

এমএমআর/জিকেএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]