হাফ সেঞ্চুরি করে আউট হয়ে গেলেন সাকিবও

ক্রীড়া প্রতিবেদক ক্রীড়া প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০২:৪৬ পিএম, ২৫ জানুয়ারি ২০২১

অধিনায়কের দেখানো পথেই যেন হাঁটলেন সাকিব আল হাসান। হাফ সেঞ্চুরি করার পর তামিম যাও করতে পেরেছিলেন ৬৪ রান। সাকিব আল হাসান হাফ সেঞ্চুরি করার পর সেটাও করতে পারলেন না। হাফ সেঞ্চুরিটা করেই আউট হয়ে গেলেন তিনি। ৮১ বলে তিনি খেলেছেন ৫১ রানের ইনিংস।

ম্যাচ বাই ম্যাচ উন্নতি হচ্ছে যেন তামিম ইকবাল আর সাকিব আল হাসানের। প্রথম ম্যাচে তামিম করেছিলেন ৪৪ রান। পরের ম্যাচে করলেন ৫০। এবারও হাফ সেঞ্চুরি পার হলেন। তবে খুব বেশি দুর যেতে পারলেন না। থেমে গেলেন ৬৪ রানে।

সাকিব আল হাসান প্রথম ম্যাচে করেছিলেন ১৯ রান। দ্বিতীয় ম্যাচে অপরাজিত থাকেন ৪৩ রানে। দলকে জিতিয়ে মাঠ ছেড়েছিলেন তিনি। তৃতীয় ম্যাচে এসে করলেন ৫১ রান। কিন্তু বোল্ড হলেন রেমন রেইফারের বলে। দলীয় রান ছিল এ সময় ১৭৯।

এ রিপোর্ট লেখার সময় বাংলাদেশ দলের সংগ্রহ ৪২.১ ওভারে ৪ উইকেট হারিয়ে ২১০ রান। ৪১ রান নিয়ে ব্যাট করছেন মুশফিকুর রহীম। ১৮ রান নিয়ে তার সঙ্গী মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ।

৩৮ রানে নাজমুল হোসেন শান্ত আউট হওয়ার পর মাঠে নামেন সাকিব আল হাসান। তাকে নিয়ে তামিম ইকবাল গড়ে তোলেন ৯৩ রানের জুটি। এরপরই অ্যালজারি জোসেফের শিকার হন বাংলাদেশ অধিনায়ক। জোসেফের শট বলে মিডউইকেটে ক্যাচ তুলে দেন তামিম ইকবাল। ক্যাচ ধরেন আকিল হোসেইন।

তামিম আউট হওয়ার পর মুশফিকুর রহীমকে নিয়ে জুটি বাধেন সাকিব আল হাসান। এই জুটিতে রান উঠলো ৪৮ রান। সাকিব আল হাসান হাফ সেঞ্চুরি করার পর রেমন রেইফারের স্লোয়ারের কাছে পরাস্ত হলেন। সাকিব স্লোয়ার বুঝতেই পারেননি। শট খেলতে গিয়ে হলেন বোল্ড।

প্রথম দুই ম্যাচ জিতে সিরিজ নিজেদের করে নিয়েছে বাংলাদেশ। শেষ ম্যাচ যদিও গুরুত্বহীন; কিন্তু বিশ্বকাপ সুপার লিগের হওয়ার কারণে এই ম্যাচটাও খুব গুরুত্বপূর্ণ। ১০ পয়েন্ট নামের পাশে লেখা হলে ২০২৩ বিশ্বকাপে খেলার ক্ষেত্রে উপকারী হবে।

যে কারণে ওয়েস্ট ইন্ডিজও চায় গুরুত্বপূর্ণ ১০ পয়েন্ট অর্জন করতে। সে লক্ষ্যেই চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে টস জিতে বাংলাদেশকে ব্যাট করতে আমন্ত্রণ জানিয়েছেন ওয়েস্ট ইন্ডিজ অধিনায়ক জেসন মোহাম্মদ।

টস হেরে ব্যাট করতে নেমে অবশ্যই শুরুতেই ক্যারিবীয়দের পরিকল্পনাকে সহজ করে দিলেন ওপেনার লিটন দাস। প্রথম ওভারেই অ্যালজারি জোসেফের বলে উইকেট হারিয়ে আসলেন লিটন দাস। ইনিংসের পঞ্চম বলেই এলবিডব্লিউ হয়ে ফিরে গেলেন লিটন।

এরপর নাজমুল হোসেন শান্তকে নিয়ে জুটি বাধেন তামিম ইকবাল। দু’জন গড়ে তোলেন ৩৭ রানের জুটি। এরপর ৯ম ওভারে কাইল মায়ারসের বলে এলবিডব্লিউ হয়ে যান নাজমুল হোসেন শান্ত। রিভিউ নিয়েও তিনি বাঁচতে পারলেন না।

আইএইচএস/এমকেএইচ

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]