প্রত্যাবর্তন সিরিজেই সবার সেরা সাকিব আল হাসান

ক্রীড়া প্রতিবেদক ক্রীড়া প্রতিবেদক চট্টগ্রাম থেকে
প্রকাশিত: ০৮:০০ পিএম, ২৫ জানুয়ারি ২০২১

ভিনি, ভিডি, ভিসি- এলাম, দেখলাম, জয় করলাম; গত এক-দেড় দশকে বাংলাদেশ দলের বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসানের ব্যাপারে অনেকবার লেখা হয়েছে এ তিনটি শব্দ। তিনি মাঠে নামা মানেই যেন নতুন কোনো কীর্তির জন্ম, তার প্রত্যাবর্তন মানেই বিশেষ কিছু- ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে সিরিজে এ কথার প্রমাণ আরও একবার দিলেন তিনি।

আইসিসির নিষেধাজ্ঞা কাটিয়ে দীর্ঘ প্রায় ১৭ মাস পর মাঠে ফিরেই দুই দলের বাকি সব খেলোয়াড়ের চেয়ে সেরা পারফরম্যান্সটা করেছেন সাকিবই। তিন ম্যাচে ব্যাট হাতে ১১৩ রান ও বল হাতে ৬ উইকেট নিয়ে জিতেছেন ম্যান অব সিরিজের স্বীকৃতি ও ২ হাজার ডলারের অর্থ পুরস্কার। এটি তার ক্যারিয়ারের ষষ্ঠ ম্যান অব দ্য সিরিজ পুরস্কার।

ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে সিরিজ শুরুর আগে এবং সিরিজের প্রথম ম্যাচের পর সাকিব আল হাসান বেশ কয়েকবার বলেছেন, ঘরোয়া ক্রিকেটের পারফরম্যান্স তাকে ভাবায় না। ভালো বা খারাপ- যাই হোক না কেন, তা নিয়ে খুব একটা চিন্তা করেন না তিনি। যে কারণে ঘরের মাঠে হওয়া বঙ্গবন্ধু টি-টোয়েন্টি কাপের সাদামাটা পারফরম্যান্স নিয়ে একদমই ভাবেননি।

তবে সাকিবের ভাবনায় যে ছিল আন্তর্জাতিক ক্রিকেট, এর প্রমাণ মিলেছে ক্যারিবীয়দের বিপক্ষে সিরিজের প্রথম ম্যাচেই। গত ২০ জানুয়ারি সিরিজের প্রথম ম্যাচে বল হাতে মাত্র ৮ রান খরচায় ৪ উইকেটের পাশাপাশি ব্যাট হাতে ১৯ রান করেছিলেন তিনি। সেদিন নিজের প্রত্যাবর্তন ম্যাচেই জিতেছিলেন ম্যান অব দ্য ম্যাচের পুরস্কার।

পরে দ্বিতীয় ম্যাচে বল হাতে ৩০ রানে ২ উইকেট নেয়ার পর ব্যাট হাতে অপরাজিত ৪৩ রানের ইনিংস খেলে দলকে জিতিয়েই মাঠ ছাড়েন সাকিব। আর আজ (সোমবার) শেষ ম্যাচে ক্যারিয়ারের ৪৮তম ফিফটিতে করেন ৫১ রান। কিন্তু কুঁচকির চোটে মাঠ ছেড়ে যান মাত্র ৪.৫ ওভার বোলিং করে। যেখানে ১২ রান খরচ করে কোনো উইকেট পাননি।

শেষ ম্যাচে বল হাতে উইকেটের দেখা না পেলেও, পুরো সিরিজে বাংলাদেশের জয়ে উল্লেখযোগ্য অবদান রাখার সেরার পুরস্কারটা উঠেছে সাকিবের হাতেই। ওয়ানডেতে বাংলাদেশের পক্ষে সর্বোচ্চ ষষ্ঠবার ম্যান অব দ্য সিরিজ নির্বাচিত হয়েছেন তিনি। এতদিন পাঁচটি ম্যান অব দ্য সিরিজের পুরস্কার নিয়ে তামিম ইকবালের সঙ্গে যৌথভাবে সবার ওপরে ছিলেন সাকিব। যা এখন পুরোপুরি নিজের করে নিলেন।

এসএএস/এমএমআর/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]