কোহলি অধিনায়ক ছিল এবং থাকবে : রাহানে

স্পোর্টস ডেস্ক
স্পোর্টস ডেস্ক স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত: ১১:৫১ এএম, ২৭ জানুয়ারি ২০২১

চলতি মাসেই ব্রিসবেনের গ্যাবায় অস্ট্রেলিয়ার ৩২ বছরের অপরাজেয় যাত্রা থামিয়েছে ভারত, ২-১ ব্যবধানে জিতেছে বোর্ডার-গাভাস্কার সিরিজের ট্রফি। তাও কি না নিয়মিত অধিনায়ক বিরাট কোহলির অনুপস্থিতিতে। সিরিজে একটি ম্যাচ হেরেছে ভারত, সেই ম্যাচে অধিনায়কত্ব করেছিলেন কোহলি। পরে পিতৃত্বকালীন ছুটিতে ভারতে ফিরে যান তিনি।

নিয়মিত অধিনায়কের অবর্তমানে বোর্ডার-গাভাস্কার সিরিজের বাকি তিন ম্যাচে নেতৃত্ব দেন দলের সহ অধিনায়ক অজিঙ্কা রাহানে। তার অধীনে প্রথম ম্যাচেই জয় লাভ করে ভারত। পরের ম্যাচটি হয় ড্র। আর সবশেষ ম্যাচ জিতে সিরিজের ট্রফিও নিজেদের করে নেয় সফরকারীরা। একইসঙ্গে অধিনায়ক হিসেবে নিজের অপরাজিত রেকর্ড অক্ষুণ্ণ রাখেন রাহানে।

তবু ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ঘরের মাঠে আসন্ন সিরিজে অধিনায়ক থাকছেন না তিনি। কেননা ছুটি কাটিয়ে দলে ফিরেছেন কোহলি। স্বাভাবিকভাবেই ইংলিশদের বিপক্ষে চার ম্যাচের সিরিজে নেতৃত্ব দেবেন তিনি। এতে অবশ্য কোনো সমস্যা নেই রাহানের। তিনি বরং কোহলির ডেপুটি হিসেবে নিজের দায়িত্ব পালনের দিকেই বেশি মনোযোগী।

অধিনায়ক হিসেবে সাফল্য পাওয়ার পর আবার দায়িত্ব হারানোর বিষয়ে প্রেস ট্রাস্ট অব ইন্ডিয়াকে (পিটিআই) রাহানে বলেছেন, ‘কোনোকিছুই বদলাচ্ছে না। বিরাট অধিনায়ক ছিল এবং সবসময়ই টেস্ট দলের অধিনায়ক থাকবে। আমি তার ডেপুটি। সে যখন অনুপস্থিত ছিল, তখন আমার দায়িত্ব ছিল দলকে নেতৃত্ব দেয়া এবং ভারতকে যতসম্ভব সাফল্য এনে দেয়া।’

এসময় কোহলির সঙ্গে মধুর সম্পর্কের কথা জানিয়ে তিনি আরও বলেন, ‘আমি এবং বিরাট একে অপরের দারুণ বন্ধু। সবসময়ই আমাকে সময় দেয় এবং ব্যাটিংয়েরও প্রশংসা করে। আমরা দুজনই ভারতের হয়ে স্মরণীয় কিছু ইনিংস খেলেছি, বিদেশের মাটিতেও। বিরাট চারে এবং আমি পাঁচে নামলে দারুণ জুটি গড়তে পারি।’

রাহানে আরও যোগ করেন, ‘আমরা সবসময় একে অপরের খেলার মান বৃদ্ধিতে সাহায্য করি। আমরা যখন একসঙ্গে উইকেটে থাকি, তখন প্রতিপক্ষের বোলিংয়ের নানান দিক নিয়ে আলোচনা করি। আবার কখনও ঝুঁকিপূর্ণ শটের চেষ্টা করলে একে অপরকে সতর্ক করে দেই আমরা।’

প্রশ্ন রাখা হয়, রাহানের চোখে কোহলি কেমন অধিনায়ক? উত্তরে তিনি বলেন, ‘বিরাট খুবই চতুর অধিনায়ক। সে মাঠে দারুণ সব সিদ্ধান্ত নিয়ে থাকে। যখনই স্পিনাররা আক্রমণে থাকে, সে সবসময় আমার ওপর ভরসা রাখে, অশ্বিন বা জাদেজার বোলিংয়ে স্লিপে দাঁড়িয়ে ক্যাচ নেয়ার ক্ষেত্রে। বিরাট আমার কাছে অনেক আশা করে। আমি চেষ্টা করি তা পূরণ করতে।’

এসএএস/এমকেএইচ

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]