আফ্রিদি-রশিদে উড়ে গেল পেশোয়ার

স্পোর্টস ডেস্ক
স্পোর্টস ডেস্ক স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৭:০৩ পিএম, ২১ ফেব্রুয়ারি ২০২১

চোখ ধাঁধানো বোলিং করলেন শাহীন শাহ আফ্রিদি। মিতব্যয়ী ছিলেন রশিদ খানও। পরে আবার ব্যাট হাতেও শেষদিকে ঝড় তুললেন আফগানিস্তানের এই অলরাউন্ডার। তাতেই উড়ে গেল পেশোয়ার জালমি।

করাচিতে পাকিস্তান সুপার লিগের (পিএসএল) দ্বিতীয় ম্যাচে ওয়াহাব রিয়াজের পেশোয়ার জালমিকে ৪ উইকেট আর ৯ বল হাতে রেখে সহজেই হারিয়েছে সোহেল আখতারের লাহোর কালান্দার্স।

প্রথমে ব্যাট করতে শাহীন আফ্রিদি-রশিদ খানদের তোপে ৬ উইকেটে ১৪০ রানেই আটকে যায় পেশোয়ার। ১৯ রানের মধ্যে ৩ আর ৪৬ রানে ৪ উইকেট হারিয়ে রীতিমত কোণঠাসা হয়ে পড়েছিল দলটি।

সেখান থেকে পেশোয়ার লড়াকু পুঁজি গড়তে পেরেছে দুই বিদেশি রবি বোপারা আর শেরফান রাদারফোর্ডের ব্যাটে। যদিও তাদের ইনিংস দুটো টি-টোয়েন্টির সঙ্গে খুব মানানসই ছিল না। বোপারা ৪৪ বলে ৫০ আর রাদারফোর্ড ২৭ বলে করেন ২৬ রান। ইনিংসের শেষভাবে আমাদ বাট ১১ বলে ২৩ রানের ঝড় না তুললে পুঁজিটা আরও ছোট হতো।

লাহোরের হয়ে বল হাতে আগুন ঝরিয়েছেন শাহীন আফ্রিদি। ৪ ওভারে একটি মেইডেনসহ মাত্র ১৪ রান খরচায় তিনি নেন ৩ উইকেট। রশিদ খান উইকেট না পেলেও ৪ ওভারে শাহীন আফ্রিদির মতোই ১৪ রান খরচ করেন।

পরে রান তাড়ায় ব্যাট হাতে নিয়ে ১৫ বলে ২৭ রানের ঝড়ো এক ইনিংস খেলেন রশিদ। আট নম্বরে নেমে ৩ বাউন্ডারি আর এক ছক্কায় তিনি লাহোরকে জয় এনে দিয়েই মাঠ ছাড়েন। উইনিং শটটিও এসেছে রশিদের ব্যাটে, সেটা আবার বড় ছক্কায়। তার আগের বলে আবার হাঁকিয়েছিলেন বাউন্ডারি।

এছাড়া লাহোরের জয়ে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখেছেন মোহাম্মদ হাফিজ। ২৬ বলে ৫ বাউন্ডারিতে ৩৩ রানে অপরাজিত থাকেন পাকিস্তানের বর্ষীয়ান এই ব্যাটসম্যান। বেন ডাঙ্কের ব্যাট থেকে আসে ১৪ বলে ২২ রান।

এমএমআর/এএসএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]