মোদির নামে বদলে গেল বিশ্বের সবচেয়ে বড় ক্রিকেট স্টেডিয়াম

স্পোর্টস ডেস্ক
স্পোর্টস ডেস্ক স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৩:৪৬ পিএম, ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২১

উদ্বোধনী ম্যাচের দিনই বদলে দেয়া হলো বিশ্বের সবচেয়ে বড় ক্রিকেট স্টেডিয়ামের নাম। ভারত ও ইংল্যান্ডের মধ্যকার গোলাপি বলের ম্যাচ শুরুর আগে জানিয়ে দেয়া হলো, বিশ্বের সবচেয়ে ক্রিকেট স্টেডিয়ামের নাম এখন থেকে নরেন্দ্র মোদি স্টেডিয়াম।

প্রায় সোয়া লাখ ধারণক্ষমতাসম্পন্ন স্টেডিয়ামটির নাম ছিল সরদার প্যাটেল স্টেডিয়াম। আজ (বুধবার) ভারত-ইংল্যান্ডের মধ্যকার ম্যাচ দিয়ে শুরু হলো এই স্টেডিয়ামের নবযাত্রা। আর এ ম্যাচ শুরুর আগেই বদলানো হয়েছে নাম, সরদার প্যাটেল স্টেডিয়াম এখন থেকে পরিচিত হবে নরেন্দ্র মোদি স্টেডিয়াম হিসেবে।

কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ, গুজরাট গভর্নর আচার্য্য দেবরাট, ক্রীড়ামন্ত্রী কিরেন রিজিজু এবং বিসিসিআই সেক্রেটারি জয় শাহর উপস্থিতিতে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানের মাধ্যমে বদলানো হয়েছে এই নাম। যেখানে অমিত শাহ এই স্টেডিয়ামের উল্লেখযোগ্য দিকগুলো বর্ণনা করেছেন।

আহমেদাবাদের মোতেরা স্টেডিয়ামটি নব নির্মিত। বছরখানেক আগে মোতেরার এই স্টেডিয়ামটি উদ্বোধন করেছিলেন যুক্তরাষ্ট্রের সদ্য সাবেক প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। সঙ্গে ছিলেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। ২০২০ সালের ২৪ ফেব্রুয়ারি নতুন উদ্বোধন হওয়ার পর কিন্তু আন্তর্জাতিক ক্রিকেট শুরু হয়নি এই মাঠে।

ঠিক এক বছর পর আবারও মোতেরার সরদার প্যাটেল স্টেডিয়ামে শুরু হতে যাচ্ছে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট। গোলাপি বলের টেস্ট দিয়ে অভিষেক ঘটতে যাচ্ছে বিশ্বের অন্যতম বৃহৎ এই স্টেডিয়ামটির। স্টেডিয়ামটির সবমিলিয়ে ধারণক্ষমতা ১ লাখ ১০ হাজার। তবে, কোহলিদের জন্য খবর হচ্ছে, অর্ধেক দর্শককে প্রবেশের অনুমতি দেয়া হচ্ছে মোতেরা স্টেডিয়ামে।

১৯৮০ সালের দিকে প্রথম তৈরি করা হয় আহমেদাবাদের মোতেরা স্টেডিয়াম। তবে সম্প্রতি এই স্টেডিয়ামের ব্যাপক সংস্কার সাধন করা হয়। যে কারণে স্টেডিয়ামের দর্শকাসন বাড়িয়ে করা হয় বিশ্বের সবচেয়ে বড় স্টেডিয়াম হিসেবে। এবার এই স্টেডিয়ামটি পদার্পন করল আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে।

যেখানে টস জিতে আগে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নিয়েছে সফরকারী ইংল্যান্ড। দুই দলের একাদশেই এসেছে এক ঝাঁক পরিবর্তন। অবশ্য ইংল্যান্ডের পরিবর্তনের আভাস পাওয়া গিয়েছিল আগেই। সে মোতাবেক চারটি পরিবর্তন করে তারা। ভারতীয় একাদশে বদলেছে দুই খেলোয়াড়।

ইংলিশরা বাইরে রেখেছে ররি বার্নস, ড্যান লরেন্স, অলি স্টোন এবং মঈন আলিকে। তাদের জায়গায় নেয়া হয়েছে জিমি অ্যান্ডারসন, জোফরা আর্চার, জনি বেয়ারস্টো এবং জ্যাক ক্রাওলিকে।

ভারতীয় দলে ঢুকেছেন জাসপ্রিত বুমরাহ এবং ওয়াশিংটন সুন্দর। তাদের জায়গা করে দিতে বাদ পড়েছেন মোহাম্মদ সিরাজ ও কুলদীপ যাদভ।

এখনও পর্যন্ত তিনটি দিবারাত্রির টেস্ট খেলেছে ইংল্যান্ড। ২০১৭ সালের ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ইনিংস ও ২০৯ রানের বড় জয় দিয়ে যাত্রা শুরু করলেও, পরের দুই ম্যাচে বিব্রতকর পরাজয়ের দেখাই পেয়েছে তারা। অন্যদিকে দুইটি দিবারাত্রির টেস্ট খেলে একটি করে জয়-পরাজয় পেয়েছে ভারত।

এসএএস/এএসএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]