১৪০ ওভারেই শেষ সর্ববৃহৎ স্টেডিয়ামের প্রথম টেস্ট

স্পোর্টস ডেস্ক
স্পোর্টস ডেস্ক স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৯:৫২ পিএম, ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২১

৫দিনে ৩ সেশন করে মোট ১৫টি সেশন। দিনে ৯০ ওভার করে খেলা হওয়ার কথা মোট ৪৫০ ওভারের। প্রতিপক্ষ টেস্ট ক্রিকেটের দুই শক্তিশালী দেশ ভারত এবং ইংল্যান্ড। গুজরাটের শহর আহমেদাবাদের মোতেরা স্টেডিয়ামটিকে তৈরি করা হয়েছে বিশ্বের সবচেয়ে বড় স্টেডিয়াম হিসেবে। ১ লাখ ১০ হাজার দর্শক ধারণক্ষমতা সম্পন্ন।

গত বছর উদ্বোধনের পর আন্তর্জাতিক ক্রিকেট অনুষ্ঠিত হয়নি এই মাঠে। করোনার কারণে। অবশেষে ভারত আর ইংল্যান্ডের মধ্যকার গোলাপি বলের টেস্ট দিয়ে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অভিষিক্ত হলো মোতেরা স্টেডিয়াম। বিজেপি সভাপতি এবং ভারতের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ অভিষেকের দিনে এসে উদ্বোধন করে গেলেন।

এত ব্যাপক সমারোহে টেস্ট ক্রিকেট তথা আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অভিষিক্ত হওয়ার পর মোতেরা স্টেডিয়ামের প্রথম টেস্টটি লজ্জাজনকভাবে শেষ হয়ে গেলো মাত্র দেড় দিনে, ১৪০.২ ওভারের খেলা হওয়ার পরই।

অর্থ্যাৎ, যে টেস্টটি হওয়ার কথা ৪৫০ ওভারের, সেটিতে ৩৬০ ওভারের মত খেলা বাকিই থেকে গেলো। যে টেস্ট ম্যাচটি হওয়ার কথা ৫ দিনের, সেটি কিনা শেষ হলো মাত্র দেড় দিনে! সাড়ে ৩টি দিন পুরোপুরি বাকিই থেকে গেলো। অর্থ্যাৎ, পুরো ১০টি সেশন বাকি থেকে গেলো মোতেরা স্টেডিয়াম টেস্টের।

এই হারের পর বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনালে উঠতে পুরোপুরি ব্যর্থ হলো ইংল্যান্ড। লর্ডস ফাইনালে তারা খেলতে পারছে না এটা নিশ্চিত। তবে জয়ের কারণে ভারতের সম্ভাবনা পুরোপুরি টিকে রইলো এখনও পর্যন্ত। একই সঙ্গে চার ম্যাটের সিরিজে ভারত এগিয়ে গেলো ২-১ ব্যবধানে।

টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনালে খেলার জন্য আহমেদাবাদে জয় প্রয়োজন ছিল ভারতের। ড্র হলেও সম্ভাবনা টিকে থাকতো। কিন্তু সেই জয় তুলে নিতে উইকেটকে লজ্জাজনকভাবে এতটা স্পিন বান্ধব করে ফেলা হবে, তা কে ভাবতে পেরেছিল?

উইকেট ছিল শুকনো, ধুলিবালুময়। কিছু কিছু বলে ছিল অস্বাভাবিক স্পিন। স্কিড করছিল অস্বাভাবকিভাবে। আবার বাউন্সও ছিল। সব মিলিয়ে মোতেরার উইকেটে ব্যাটসম্যানরা মোটেও খাপ খাইয়ে নিতে পারেনি। যার পলে এই উইকেটটে কী আইসিসি ‘পুওর’ আখ্যা দেবে? সময়ই হয়তো সব বলে দেবে।

পুরো ম্যাচে খেলা হয়েছে ১৪০.২ ওভারের (৪৮.৪ + ৫৩.২+৩০.৪+৭.৪)। এর মধ্যেই খেলা হলো পুরো চারটি ইনিংস। প্রথম দিন খেলা হয়েছে মোট ৮১.৪ ওভার। দ্বিতীয় দিন খেলা হলো ৫৮.৪ ওভার। আজ একদিনেই পড়েছে মোট ১৭টি উইকেট। ভারতের প্রথম ইনিংসে ৭টি এবং ইংল্যান্ডের দ্বিতীয় ইনিংসে ১০টি উইকেট।

অর্থ্যাৎ, আজ দ্বিতীয় দিনে ৩১.২ ওভারের খেলা পুরোপুরি বাকিই থেকে গেছে। সব মিলিয়ে চার ইনিংসে রান হয়েছে মোট ৩৮৭টি। এর মধ্যে ইংল্যান্ডের মোট রান ১৯৩। ভারতের মাটিতে দুই ইনিংস মিলে অন্য কোনো দেশের এটাই সর্বনিম্ন।

আইএইচএস/জিকেএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]