বলে-কয়েই রান করছেন নাসির

ক্রীড়া প্রতিবেদক ক্রীড়া প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৫:৩৭ পিএম, ২৩ মার্চ ২০২১

গত বছরের মার্চে ঢাকা প্রিমিয়ার লিগে সবশেষ প্রতিযোগিতামূলক ক্রিকেট খেলেছেন অফস্পিনিং অলরাউন্ডার নাসির হোসেন। এরপর দীর্ঘ বিরতি। ফিটনেস টেস্টে ব্যর্থ হওয়ায় মাঝে খেলতে পারেননি বঙ্গবন্ধু প্রিমিয়ার লিগ টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে।

এর মধ্যেই করেছেন বিয়ে এবং বিতর্ক। এতকিছু সামলে বিয়ের পর ফিটনেস টেস্টে বাজিমাত করেন নাসির। দীর্ঘ প্রায় এক বছর পর তিনি নেমেছেন প্রতিযোগিতামূলক ক্রিকেট খেলতে সোমবার থেকে শুরু হওয়া জাতীয় লিগ দিয়ে।

লিগ শুরুর আগেই নাসির জানিয়েছিলেন, এবার ছয় ম্যাচে কমপক্ষে আটশ’ থেকে এক হাজার রান করতে চান। রংপুর বিভাগের হয়ে খেলতে নেমে ব্যাট হাতে নিজের প্রথম ইনিংসেই সেই কথা রেখেছেন জাতীয় দল থেকে ছিটকে পড়া এই অলরাউন্ডার।

সাভারে বিকেএসপির তিন নম্বর মাঠে ঢাকা বিভাগের বিপক্ষে খেলতে নেমেছে নাসিরের দল রংপুর বিভাগ। প্রথমে ব্যাট করে ঢাকা অলআউট হয় ৩৬৫ রানে। জবাবে রংপুর দ্বিতীয় দিন শেষ করেছে ৭ উইকেটে ১৯৪ রানে।

ম্যাচের প্রথম দিন সাইফ হাসানের ১২৭ রানে ভর করে ৮ উইকেটে ২৯৭ রান তোলে ঢাকা। দ্বিতীয় দিনে এই সংগ্রহটা তারা বড় করেছে লোয়ার অর্ডারের আরাফাত সানি জুনিয়র (৪২ অপরাজিত) আর সুমন ইসলামের (২৪) ব্যাটে চড়ে।

রংপুর বিভাগের পক্ষে ৪৬ রানে ৪টি উইকেট নেন আলাউদ্দিন বাবু। ৭৮ রান খরচায় ২ উইকেট শিকার মাহমুদুল হাসানের।

জবাবে ঢাকার বোলারদের তোপে ১৫৬ রানেই ৭ উইকেট হারিয়ে বসে রংপুর। জাহিদ জাভেদ (১৫), তানভীর হায়দার (৫), সোহরাওয়ার্দি শুভ (১), নাঈম ইসলাম (৬), আরিফুল হক (৩), আকবর আলিরা (১০) একে একে সাজঘরের পথ ধরেন।

দলের এই বিপদের মুখে দাঁড়িয়ে একাই লড়ছেন পাঁচ নম্বরে নামা নাসির। দারুণ ব্যাটিংয়ে সেঞ্চুরির দোরগোড়ায় চলে এসেছেন এই অলরাউন্ডার। ২৭৫ মিনিট ক্রিজে থেকে ১৮৫ বলে ১১ বাউন্ডারি আর ২ ছক্কায় ৯৩ রানে অপরাজিত আছেন তিনি। সঙ্গে আলাউদ্দিন বাবু ব্যাট করছেন ১২ রানে।

ঢাকা বিভাগের নাজমুল ইসলাম অপু ৬৯ রান খরচায় নিয়েছেন ৩টি উইকেট। ২৩ রানে ২ উইকটে শিকার সুমন ইসলামের।

সংক্ষিপ্ত স্কোর
ঢাকা বিভাগ : ১০৬.৩ ওভারে ৩৬৫/১০ (সাইফ হাসান ১২৭, মাহিদুল ইসলাম অংকন ৪৭, নাদিফ চৌধুরী ৬৯, শুভাগত হোম ১০, আরাফাত সানি জুনিয়র ৪২*, সুমন ইসলাম ২৪)।

রংপুুর বিভাগ : ৭১ ওভারে ১৯৪/৭ (জাহিদ জাভেদ ১৫, তানভীর হায়দার ৫, সোহরাওয়ার্দি শুভ ১, নাঈম ইসলাম ৬, নাসির হোসেন ৯৩*, আরিফুল হক ৩, মাহমুদুল হাসান ২৭, আকবর আলি ১০, আলাউদ্দিন বাবু ১২*; নাজমুল অপু ৩/৬৯, সুমন ইসলাম ২/২৩)।

এমএমআর/জিকেএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]