আমেরিকান ক্রিকেটে নাম লেখাচ্ছেন ভারত-পাকিস্তানের ১০০ খেলোয়াড়

স্পোর্টস ডেস্ক
স্পোর্টস ডেস্ক স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৬:৫৯ পিএম, ০৯ মে ২০২১

দুর্নিবার সম্ভাবনা নিয়ে ক্রিকেটে এসেছিলেন ভারতের অনূর্ধ্ব-১৯ দলের অধিনায়ক উন্মুক্ত চাঁদ। তার অধীনে ২০১২ সালের যুব বিশ্বকাপ জিতেছিল ভারত। ধারণা করা হচ্ছিল, পরবর্তী সময়ে ভারতের ক্রিকেটের হাল ধরবেন দিল্লির ডানহাতি এই ব্যাটসম্যান।

কিন্তু বাস্তবে হয়েছে এর উল্টোটাই। প্রতিভার পরিচর্যার বদলে খামখেয়ালিপনায় নিজের ক্যারিয়ারের বিপর্যয়ই ডেকে এনেছেন চাঁদ। যে কারণে যুব বিশ্বকাপ জয়ের ৯ বছর পরেও জায়গা পাননি জাতীয় দলে। এখন আর কোনো পথ না পেয়ে তিনি চলে গিয়েছেন যুক্তরাষ্ট্রে ক্রিকেট খেলতে।

শুধু উন্মুক্ত চাঁদ একাই নন, সম্প্রতি ভারত-পাকিস্তানের অন্তত ১০০ জন ক্রিকেটার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন আমেরিকায় গিয়ে ক্রিকেট খেলার। সম্ভাবনাময় ক্রিকেট জাতি হিসেবেই এগুচ্ছে আমেরিকা। আর তাই সে দেশে ক্রিকেট খেলতে যাচ্ছেন বিশ্বের নানান দেশের খেলোয়াড়রা।

এরই মধ্যে প্রায় ৪০ জন বিদেশি খেলোয়াড় চলে গেছেন আমেরিকায়। শিগগিরই আরও অনেক প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটার দেশটিতে যাবেন বলে জানিয়েছেন পাকিস্তানের সাবেক ওপেনার সামি আসলাম। যিনি নিজেও আমেরিকায় ক্রিকেট খেলার জন্য অবসর নিয়েছেন পাকিস্তান দল থেকে।

বাঁহাতি ওপেনার সামি আসলাম পাকিস্তানের হয়ে খেলেছেন ১৩ টেস্ট ম্যাচ। যেখানে ৩১.৫৮ গড়ে ৭৫৮ রান করেছিলেন তিনি। কিন্তু জাতীয় দলের নির্বাচন প্রক্রিয়া পছন্দ না হওয়ায় এবং বারবার দল থেকে উপেক্ষিত হওয়ায়, নিজ দেশের ক্রিকেট ছাড়ার সিদ্ধান্তই নিয়েছেন সামি।

তিনিই জানিয়েছেন, সাবেক অধিনায়ক উন্মুক্ত চাঁদসহ ভারতের বেশ কয়েকজন সাবেক অনূর্ধ্ব-১৯ দলের খেলোয়াড় এবং পাকিস্তানসহ আরও অন্যান্য দেশ থেকে একশর বেশি প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটার আমেরিকায় যাচ্ছেন। সেখানেই স্থায়ী হয়ে ক্রিকেট খেলার লক্ষ্য সকলের।

পাক প্যাশনকে দেয়া সাক্ষাৎকারে সামি বলেছেন, ‘সম্প্রতি ৩০-৪০ জন বিদেশি ক্রিকেটার আমেরিকায় পৌঁছেছেন। উন্মুক্ত চাঁদ, স্মিত প্যাটেল এবং হারমিত সিংসহ ভারতের বেশ কয়েকজন সাবেক অনূর্ধ্ব-১৯ দলের খেলোয়াড়ও চলে এসেছে। এখানে দক্ষিণ আফ্রিকারও অনেক ক্রিকেটার আছে, যারা নিজ দেশে প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটার খেলেছে।’

তিনি আরও যোগ করেন, ‘আমেরিকার ব্যবস্থাপনা এবং অবকাঠামো দুর্দান্ত। দেশটির ক্রিকেট বোর্ড আমেরিকার ক্রিকেট উন্নতির জন্য সত্যিই অনেক কাজ করছে। শীর্ষ পর্যায়ে যেতে তাদের হয়তো সময় লাগবে। তবে দেশটিতে ক্রিকেটের মানের উন্নতি বেশ দ্রুত ঘটছে।’

পাকিস্তান ক্রিকেটে স্বজনপ্রীতিসহ আরও অনেক অন্যায়ের কারণে, সেখানের অনেক ক্রিকেটার আমেরিকায় যেতে চাচ্ছেন জানালেন সামি। তারা আমেরিকার ক্রিকেটে নাম লেখানর জন্য সামি আসলামের কাছ থেকে সাহায্যও কামনা করছেন।

এ বিষয়টি জানিয়ে সামি বলেছেন, ‘আমি গ্যারান্টি দিচ্ছি, পাকিস্তানের যেসব খেলোয়াড় কেন্দ্রীয় চুক্তিতে নেই, তারা আমেরিকায় এসে ক্রিকেট খেলার জন্য স্থায়ী হতে চাইবে। আমি এরই মধ্যে পাকিস্তানের অন্তত ১০০ জন প্রথম শ্রেণির খেলোয়াড়ের কাছ থেকে ফোন পেয়েছি। এমনকি দেশের ঘরোয়া ক্রিকেটের সেরা পারফরমারও এখানে আসতে চাচ্ছে।’

এসএএস/এমকেএইচ

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]