মোহামেডানের সংবাদ সম্মেলনে সাকিব উপস্থিত থাকবেন, থাকবেন না!

বিশেষ সংবাদদাতা
বিশেষ সংবাদদাতা বিশেষ সংবাদদাতা
প্রকাশিত: ০৭:৫৭ পিএম, ১৩ জুন ২০২১ | আপডেট: ০৮:৪০ পিএম, ১৩ জুন ২০২১

আবাহনীর বিপক্ষে মোহামেডানের সেই উত্তেজনাকর খেলায় মাঠে অনাকাঙ্ক্ষিত যে ঘটনার জন্ম দিয়েছেন ক্লাব অধিনায়ক সাকিব আল হাসান, তা নিয়ে নিজেদের মতামত জানাতে আনুষ্ঠানিক সংবাদ সম্মেলন ডেকেছে ঢাকা মোহামেডান। সোমবার (১৪ জুন) বিকেলে ক্লাব প্রাঙ্গণে এ সংবাদ সম্মেলন করা হবে বলে মিডিয়াকে জানিয়েছেন মোহামেডানের ক্রিকেট কমিটির সভাপতি মাসুদুজ্জামান।

আজ (রোববার) বিকেলেই মোহামেডান ক্লাব থেকে পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে এ তথ্য। মাসুদুজ্জামান স্বাক্ষরিত সেই সংবাদ বিজ্ঞপ্তির বিষয়বস্তুতে লেখা হয়েছে, ‘বঙ্গবন্ধু ঢাকা প্রিমিয়ার ডিভিশন টি-টোয়েন্টি ক্রিকেট লিগে মোহামেডান বনাম আবাহনীর মধ্যকার খেলায় ঘটে যাওয়া ঘটনা সম্পর্কে জনাব সাকিব আল হাসানসহ ক্লাবের নিজস্ব মতামত প্রদান প্রসঙ্গে।’

মূল বক্তব্যে লেখা হয়েছে, ‘মোহামেডান এবং আবাহনীর মধ্যকার খেলায় ঘটে যাওয়া অনাকাঙ্খিত ঘটনাকে কেন্দ্র করে ক্লাবের ক্রিকেট দলের অধিনায়ক ও বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসানের বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগ এবং শাস্তিসহ অন্যান্য বিষয়ে সাকিব আল হাসানসহ ক্লাবের নিজস্ব মতামত প্রদান করবেন।’

১৪ জুন বেলা ৩টায় ক্লাব প্যাভিলিয়নে সংবাদ সম্মেলনটি আয়োজন করা হয়েছে বলে জানানো হয়েছে।

মোহামেডান ক্লাবের এ সংবাদ বিজ্ঞপ্তি দেখেই মনে হচ্ছে, ‘মোহামেডান ক্লাবের প্যাভিলিয়নে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে স্বয়ং সাকিব আল হাসান উপস্থিত থাকবেন।’

কিন্তু সেটা কীভাবে সম্ভব? সাকিবকে তিন ম্যাচের নিষেধাজ্ঞা দেয়া হয়েছে বলে তো তিনি আর ক্লাবের জন্য বিসিবি কর্তৃক করোনা সুরক্ষায় আয়োজিত বায়ো-বাবল বিধি ভঙ্গ করতে পারবেন না। তাহলে তিনি কীভাবে সংবাদ সম্মেলনে হাজির হবেন? জাগো নিউজের পক্ষ থেকে মোহামেডানের ক্রিকেট কমিটির সভাপতি মাসুদুজ্জামানের সঙ্গে যোগাযোগ করা হয়।

জাগো নিউজকে মাসুদুজ্জামান বলেন, ‘না! সাকিব আল হাসান সশরীরে সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত থাকবেন না। সে তো বায়ো-বাবলে আছে। কীভাবে আমরা তাকে বাইরে আনবো? তবে আমরা তার লিখিত বক্তব্য তুলে ধরবো সংবাদ সম্মেলনে। এছাড়া ক্লাবের নিজস্ব অবস্থান ব্যাখ্যা করবো সেখানে।’

আবাহনীর বিপক্ষে ম্যাচে মাঠের মধ্যেই বিতর্কিত ঘটনার জন্ম দিয়েছেন সাকিব আল হাসান। আম্পায়ারের সিদ্ধান্ত মানতে না পেরে স্ট্যাম্পে লাথি দিয়ে চরম ঔদ্ধত্য প্রকাশ করেছেন। যার শাস্তিও পেয়েছেন তিনি। তিন ম্যাচের নিষেধাজ্ঞা এবং ৫ লাখ টাকা জরিমানা

সাকিব ঘটনা ঘটানোর পরপরই সোশ্যাল মিডিয়ায় ভক্তদের কাছে ক্ষমা চেয়েছেন। আবার শাস্তি পাওয়ার পর সেটাকে তিনি মেনে নিয়েছেন বলেও জানিয়েছেন। অর্থাৎ তিনি কোনো আপিল করবেন না। তবে তিন ম্যাচের নিষেধাজ্ঞার শাস্তি দেয়ার পর অবশ্য মোহামেডান ক্লাবের পক্ষ থেকে বিসিবির কাছে সাকিবের শাস্তি মওকুফের আবেদন করা হয়েছে

এআরবি/আইএইচএস/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]