অসম্ভবকে সম্ভব করে জয় ইসলামাবাদ ইউনাইটেডের

স্পোর্টস ডেস্ক
স্পোর্টস ডেস্ক স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৪:১৬ এএম, ১৪ জুন ২০২১

এভাবেও ফিরে আসা যায়! পাকিস্তান সুপার লিগে ইসলামাবাদ ইউনাইটেড বনাম লাহোর কালান্দার্স ম্যাচ দেখার পরে এই প্রশ্নটাই ক্রিকেট বিশ্বে ঘুরে বেড়াচ্ছে এখন। রোববার রাতে বাইশ গজে অসম্ভবকে সম্ভব করে দেখিয়েছেন ইসলামাবাদ ইউনাইটেড।

ইসলামাবাদের আসিফ আলি ও ইফতিখার আহমেদের ব্যাটিং জুটিতে পাকিস্তান সুপার লিগে বিস্ময় ঘটে গেল। ২০ রানে ৫ উইকেট পড়ে যাওয়ার পরে যখন সবাই ভাবছিলেন ইসলামাবাদের ইনিংস শেষ হওয়া শুধু সময়ের অপেক্ষা, তখনই সকলকে চমকে দিয়ে মাঠে দুরন্ত ইনিংস খেললেন আসিফ আলি ও ইফতিখার আহমেদ।

৫ উইকেটে ২০ থেকে ৭ উইকেটে ১৫২ রান তোলে ইসলামাবাদ। দুই তারকা আসিফ আলি ও ইফতিখার আহমেদের ব্যাটে ভর করে দারুণভাবে ঘুরে দাঁড়ায় ইসলামাবাদ ইউনাইটেড।

টসে জিতে প্রথম ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নেয় ইসলামাবাদ। ম্যাচের ৬.১ ওভারের মধ্যেই ২০ রানের মধ্যে ৫ উইকেট হারায় তারা। দুরন্ত বোলিং করেন শাহিন আফ্রিদি ও জেমস ফাকনাররা। তবে শাদাব খান আউট হওয়ার পরে ঘুরে দাঁড়ায় ইসলামাবাদ।

ষষ্ঠ উইকেট জুটিতে ইনিংসের হাল ধরেন আসিফ আলি ও ইফতিখার আহমেদ। ৪৩ বলে ৭৫ রানের ইনিংস খেলেন আসিফ আলি। ৬টি বাউন্ডারির সঙ্গে তার ইনিংসে ছিল ৫টি ছক্কার মার। ইফতিখার আহমেদ করেন ৩৭ বলে ৪৯ রান। তিনি মারেন ৬টি বাউন্ডারি। শেষ পর্যন্ত নির্ধারিত ২০ ওভারে ৭ উইকেটের বিনিময়ে ১৫২ রান তোলে ইসলামাবাদ ইউনাইটেড।

জবাবে ১২৪ রানেই শেষ হয়ে যায় লাহোর কালান্দার্সের ইনিংস। ২৮ রানে ম্যাচে জয় পায় ইসলামাবাদ। ম্যাচের সেরা নির্বাচিত হন আসিফ আলি। এবারের পাকিস্তান সুপার লিগের ২০তম ম্যাচটা সকলের মনে থাকবে। এদিনের ম্যাচ হেরেও লাহোর কালান্দার্স লিগ টেবিলের শীর্ষস্থান দখল করে রেখেছেন। ইসলামাবাদ ইউনাইটেড রয়েছে চার নম্বরে।

আইএইচএস/

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]