ইয়াসির-মুমিনুলের ব্যাটে মোহামেডানকে উড়িয়ে দিল গাজী গ্রুপ

ক্রীড়া প্রতিবেদক ক্রীড়া প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ১০:০৪ পিএম, ১৭ জুন ২০২১

লক্ষ্য ছিল ১৫০ রানের। রান তাড়ায় নেমে বৃষ্টির মুখে পড়ল গাজী গ্রুপ ক্রিকেটার্স। পরে লক্ষ্য কমিয়ে করা হলো ১৪ ওভারে ১১৫। ৩২ রানের মধ্যে আবার দুই ব্যাটসম্যান মাহেদি হাসান (৭ বলে ১৫) আর সৌম্য সরকারকে (১০ বলে ১৪) হারিয়ে বসেছিল গাজী গ্রুপ।

তবে মুমিনুল হক আর ইয়াসির আলী দায়িত্ব কাঁধে তুলেন, তারাই দলকে সহজ জয়ের ভিত গড়ে দিয়েছেন। এর মধ্যে মারকুটে ব্যাটিং করেছেন ইয়াসির। ২৫ বলে ৪টি চার আর ২টি ছক্কায় ৪৫ রানের ইনিংস খেলেন তিনি। মুমিনুল শেষ পর্যন্ত পর্যন্ত অপরাজিত থাকেন ২২ বলে ২৮ রানে। ইয়াসির আউট হওয়ার পর মাঠে নেমে দ্রুত ম্যাচটা শেষ করেছেন অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ, ৪ বলে তিনি অপরাজিত ছিলেন ১১ রানে।

সবমিলিয়ে মোহামেডান পাত্তাই পায়নি গাজী গ্রুপের কাছে। মিরপুর শেরে বাংলা স্টেডিয়ামে ৭ উইকেটে হেরেছে ম্যাচটি হেরেছে তারা। ১১ ম্যাচে ৭ জয়ে ১৪ পয়েন্ট নিয়ে চার নম্বরে উঠে এসেছে গাজী গ্রুপ। সমান ম্যাচে ১৩ পয়েন্ট নিয়ে পাঁচে মোহামেডান।

এর আগে টস হেরে ব্যাট করতে নেমে ৯১ রানে নেই ৫ হারিয়ে বিপদে পড়েছিল মোহামেডান। তিন ম্যাচের নিষেধাজ্ঞা কাটিয়ে ফেরা অধিনায়ক সাকিব আল হাসান ব্যাট হাতে চরম ব্যর্থ। ১৬ বল খেলে করলেন মাত্র ১০ রান।

সেখান থেকে দলকে উদ্ধার করলেন শুভাগতহোম চৌধুরী। দুইশর ওপর স্ট্রাইকরেটে খেললেন ৪২ রানের এক ইনিংস। যে ইনিংসে ভর করে ৯ উইকেটে ১৪৯ রানের লড়াকু সংগ্রহ দাঁড় করায় মোহামেডান।

শেরে বাংলায় টস জিতে ব্যাট করতে নেমে আবদুল মজিদের ব্যাটে উড়ন্ত সূচনা করেছিল মোহামেডান। ১৫ বলে ২৬ রানের উদ্বোধনী জুটিতে মাহমুদুল হাসানের অবদান মাত্র ২ রান।

তবে মাহমুদুল ফেরার পরের ওভারেই আউট হয়ে যান মজিদ। মাহমুদউল্লাহকে তুলে মারতে গিয়ে বাউন্ডারিতে মাহেদি হাসানের ক্যাচ হন ১৪ বলে ১ চার আর ২ ছক্কায় ২০ রান করা এই ওপেনার।

এরপর সাকিব, শামসুর রহমান শুভ (২৪ বলে ১৯) চরম ব্যর্থ। ইরফান শুক্কুর ঝড়ো শুরু করলেও মাহমুদউল্লাহর বলে এলবিডব্লিউ হয়ে ফেরেন ১৩ বলে ১৮ করে।

সেই বিপর্যয় থেকে দলকে উদ্ধার করেন শুভাগত, সঙ্গী হিসেবে ছিলেন নাদিফ চৌধুরী। ষষ্ঠ উইকেটে ৪৫ রানের জুটি গড়েন তারা। ২০ বলে ২৩ রানে নাদিফ ১৮তম ওভারে এসে হন মুকিদুল মুগ্ধর বলে বোল্ড।

পরের ওভারে জোড়া উইকেট তুলে নেন মহিউদ্দিন তারেক। শুভাগতহোম ২০ বলে ৬ চার আর ২ ছক্কায় ৪০ রান করে ক্যাচ দেন মুগ্ধকে। ২ রান করে জাকির হাসানের তালুবন্দী হন আবু হায়দার।

গাজী গ্রুপ ক্রিকেটার্সের বোলারদের মধ্যে সবচেয়ে সফল মহিউদ্দিন তারেকই। ডানহাতি এই পেসার ৪ ওভারে ২৯ রান দিয়ে নেন ৪টি উইকেট।

এমএমআর/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]