হারি বা জিতি, ক্রিকেট থেমে যাবে না : কোহলি

স্পোর্টস ডেস্ক
স্পোর্টস ডেস্ক স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত: ০১:৫৯ পিএম, ১৮ জুন ২০২১

শুক্রবার আইসিসি টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের প্রথম আসরের ফাইনাল ম্যাচে মুখোমুখি হচ্ছে ভারত ও নিউজিল্যান্ড। এ ম্যাচটিতে ‘চূড়ান্ত পরীক্ষা’ হিসেবে প্রচার করছে বিশ্ব ক্রিকেটের অভিভাবক সংস্থা আইসিসি। তবে এর সঙ্গে একমত নন ভারতীয় ক্রিকেট দলের অধিনায়ক বিরাট কোহলি।

শুধুমাত্র এক ম্যাচ দিয়েই সবকিছু নির্ধারণ হয়ে যাবে না বলে অভিমত ভারতীয় অধিনায়কের। তাই টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনালকে চূড়ান্ত কিছু না বলে, বরং শ্রেষ্ঠত্বের খোঁজের লড়াই হিসেবে দেখতে চাইছেন কোহলি। এই ম্যাচের ফল যাই হোক, ক্রিকেট থাকবে আগের মতোই- বলেছেন কোহলি।

ম্যাচ পূর্ববর্তী সংবাদ সম্মেলনে কোহলির ভাষ্য, ‘আপনি যদি টেস্ট ক্রিকেটের কথা বলেন এবং পাঁচদিনের একটি ম্যাচ দিয়েই বিশ্বের সেরা দল ঠিক করার কথা ভাবেন, তাহলে আপনি পুরো সত্যটা ধরতে পারবেন না। যারা খেলাটা বোঝে, গত ৪-৫ বছর ধরে খোঁজখবর রেখেছে, তাদের কাছে এটি কোনো বার্তাই দেবে না।’

কোহলি আরও বলেন, ‘আপনি চাইলে সহজেই অতীতের দিকে তাকাতে পারেন এবং বের করতে পারেন যে আগে কোথায় কোথায় ভুল করেছেন। দিন শেষে আপনাকে বুঝতে আপনি একটি খেলা খেলছেন এবং এখানে পরাজয় আসতেই পারে। নির্দিষ্ট দিনে আপনিও জয় পাবেন।’

সবশেষ ২০১৩ সালে আইসিসি আয়োজিত কোনো শিরোপা জিতেছে ভারত। সেবার ইংল্যান্ডের মাটিতে হওয়া চ্যাম্পিয়নস ট্রফিতে চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল তারা। এরপর ২০১৫ সালের ওয়ানডে বিশ্বকাপ, ২০১৬ সালের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ ও ২০১৯ সালের ওয়ানডে বিশ্বকাপে সেমিফাইনাল থেকে বাদ পড়ে তারা। এছাড়া ২০১৭ সালে হেরে যায় ফাইনাল ম্যাচ।

অবশেষে ভারতের সামনে আবার সুযোগ এসেছে আইসিসি আয়োজিত টুর্নামেন্টের শিরোপা জেতার। কিন্তু বিষয়টিকে এমনভাবে দেখতে রাজি নন কোহলি। তার মতে, এই ম্যাচে হার বা জয়ের কারণে ভারতের ক্রিকেট থেমে যাবে না। বরং আগের মতো করেই চলবে।

তিনি বলেছেন, ‘ম্যাচটা যদি জিতে যাই, আমাদের জন্য ক্রিকেট থেমে যাবে না। ম্যাচটা যদি হেরে যাই, তবু আমাদের জন্য ক্রিকেট থেমে যাবে না। আমাদের প্রক্রিয়া, আমাদের মাইন্ডসেটেখানে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ। আমরা প্রতিদিন ক্রমাগত উন্নতির পথে হাঁটছি। প্রতিটি টেস্ট ম্যাচে আমরা জয়ের জন্যই নামি। আমাদের সকল খেলোয়াড়কেই এটা জিজ্ঞেস করতে পারেন।’

‘আমরা এখানে শুধু একটি টেস্ট খেলতে আসিনি। ইংলিশ গ্রীষ্ম মৌসুমের ছয়টি টেস্ট খেলব আমরা। আমাদের খেলোয়াড়রা তাদের শক্তিমত্তা ভালোভাবে জানে এবং সেটা কীভাবে মাঠে কাজে লাগাতে হবে সেটিও তাদের ভালোভাবেই জানা। আগামী ছয় টেস্টে তারা সে কাজই করবে।’

এসএএস/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]