শুধু ক্রিকেটের জন্য আলাদা টিভি চ্যানেল!

ক্রীড়া প্রতিবেদক ক্রীড়া প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৯:৪৬ পিএম, ২৬ জুন ২০২১
ফাইল ছবি

এবারের ঢাকা প্রিমিয়ার লিগের (ডিপিএল) সুপার লিগ পর্বের ম্যাচগুলো টেলিভিশনে সরাসরি উপভোগ করতে পেরেছেন দর্শকরা। দর্শকদের কাছ থেকে বেশ সাড়া পাওয়ার কথা জানায় সম্প্রচারকারী দুটি চ্যানেল। যা শুনে ভীষণ খুশি বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন।

করোনার মধ্যে এভাবে লিগটা আয়োজন করা গেছে, কোনো রকম ঝামেলা ছাড়াই। এটাকে এবারের আসরের প্রথম অর্জন মনে করছেন পাপন। আর দর্শকরা এতটা আগ্রহ নিয়ে ম্যাচ দেখেছে, সেটাকে দ্বিতীয় অর্জন বলছেন বিসিবি সভাপতি।

পাপন বলেন, ‘গত বছরই সিদ্ধান্ত নিয়েছিলাম সুপার লিগ সরাসরি সম্প্রচার করব। লাইভ টেলিকাস্টের জন্য আগ্রহী চ্যানেল তো দরকার। অনেকেই সন্দিহান ছিল দর্শকপ্রিয়তা কেমন হবে। এটা ওদের শঙ্কার কারণ ছিল। শেষপর্যন্ত দুটি চ্যানেল দেখিয়েছে, ওদের ধন্যবাদ জানাই। আজ ওরা জানাল, ওরা যে অভূতপূর্ব সাড়া পেয়েছে দর্শকদের। এত মানুষ খেলা দেখেছে এবং মন্তব্য করেছে যে ওরাই আশ্চর্য হয়েছে। এটা ডিপিএলের দ্বিতীয় অর্জন।’

বিসিবি প্রধান চাইছেন, আগামীতে যাতে সবগুলো খেলা সরাসরি দেখানো যায়। প্রয়োজনে ক্রিকেটের জন্য আলাদা একটা চ্যানেল করা যায় কিনা, এত বড় পরিকল্পনাও আছে তার।

পাপনের কথা, ‘এই যে নতুন নতুন ছেলেদের দেখতে পাচ্ছি, এটা হয়েছে সরাসরি সম্প্রচারের জন্য। আমি আশা করব আমরা এখন থেকে সব খেলা যদি সরাসরি দেখাতে পারি, কোনো চ্যানেলের সাথে লম্বা চুক্তিতে যেতে পারি কি না সেটা দেখছি। তা না হলে যদি ক্রিকেটের জন্য আলাদা চ্যানেল নিতে হয়, সেটার জন্য আমি চেষ্টা করব। যাতে করে আমাদের এনসিএল থেকে শুরু করে সব ঘরোয়া ক্রিকেট... সব যদি দেখাতে পারতাম টিভিতে, খেলার মান বাড়তো।’

সরাসরি খেলা সম্প্রচারের ইতিবাচক দিক টেনে বিসিবি প্রধান বলেন, ‘এতে শুধু খেলোয়াড়দের না, আম্পায়ারিংয়ের মানও বাড়বে। কারণ সবাই দেখবে। খেলোয়াড়দের বাড়তি তাড়না থাকবে, আমাকে আজ ভালো খেলতে হবে। সরাসরি সম্প্রচারের একটা ভূমিকা ছিল। আমার কাছে মনে হয়েছে, খুবই ভালো একটা টুর্নামেন্ট হচ্ছে।’

এমএমআর/এমকেএইচ

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]