শামীম পাটোয়ারীকে নিয়ে কী ভাবছেন প্রধান নির্বাচক নান্নু?

বিশেষ সংবাদদাতা
বিশেষ সংবাদদাতা বিশেষ সংবাদদাতা
প্রকাশিত: ১০:৩৫ পিএম, ২৮ জুলাই ২০২১

অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে যে তিনজন (তামিম, মুশফিক আর লিটন) খেলতে পারছেন না, তিনজনই ব্যাটসম্যান। তাই দলে মোহাম্মদ মিঠুন আর মোসাদ্দেক হোসেন সৈকতকে যোগ করা হয়েছে। সাথে নতুন করে ফেরা নুরুল হাসান সোহান এবং জিম্বাবুয়েতে অভিষেক হওয়া শামীম হোসেন পাটোয়ারীও আছেন।

তারপরও কি ব্যাটিংয়ে ঘাটতি নেই? জাগো নিউজের সঙ্গে আলাপে প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদিন নান্নু বলেন, ‘ঘাটতি তো অবশ্যই হবে। একজন আর তিনজন বলে কিছু নেই। একজন অভিজ্ঞ ও পরিণত পারফরমারের অনুপস্থিতি মানেই ঘাটতি তৈরি হওয়া। তারপরও কাজ চালিয়ে নিতে হবে। কারণ ইনজুরির ওপর কারও হাত নেই। জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি সিরিজে মুশফিক তো আগেই ছুটি নিয়েছিল।’

জিম্বাবুয়েতে কেমন করলেন সোহান আর শামীম? প্রধান নির্বাচক তাদের পারফরম্যান্সে খুশি। আসন্ন সিরিজেও তারা নিজেদের মেলে ধরতে পারবেন, এমন আশা নান্নুর।

jagonews24.com

তিনি বলেন, ‘মুশফিক টি-টোয়েন্টি সিরিজ খেলবে না (জিম্বাবুয়েতে) জেনেই আমরা তার জায়গায় সোহানকে নিয়েছিলাম। সোহান ভালো খেলেছে। আমরাও আত্মবিশ্বাসী তাকে নিয়ে। কেননা সোহানের ঘরোয়া ক্রিকেটে পারফরম্যান্স যথেষ্ট ভালো। কন্টিনিউ এ প্রসেসে থাকলে আশা করি সোহান ভালো করবে। আর শামীম পাটোয়ারীও দুই ম্যাচ ভালো খেলেছে।’

এটুকু বলে আরও কিছু কথা যোগ করেছেন প্রধান নির্বাচক। জানিয়েছেন, কখনও কখনও ঘরের মাঠে বিদেশি দলের বিপক্ষে খেলা একটা অন্যরকম চাপ। নান্নুর অনুভব, শামীম পাটোয়ারীকে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে সেই চাপ নিয়ে খেলতে হবে।

তাই মুখে এমন কথা প্রধান নির্বাচকের, ‘হোম সয়েলে খেলার একটা প্রেশার থাকে। সেটা অনেক বেশি। সেই চাপের মুখে শামীম কতটা ভালো খেলে, সেটাও দেখার বিষয় আছে।’

তবে নান্নুর শেষ কথা, ‘আমি ব্যক্তির দিকে না তাকিয়ে দলের দিকে তাকাতে চাই। ওভারঅল আমি চাই দল হিসেবে খেলুক। সবাই কম বেশি অবদান রাখুক। টিমের সেরাটা যেন আমরা নির্দিষ্ট দিন দিতে পারি।’

পাওয়ার প্লে‘র বোলিংটা আরও ঠিক করা দরকার
জিম্বাবুয়ের সাথে প্লাস কী, মাইনাস কী? তা নিয়ে বেশি ভাবতে নারাজ নান্নু। তার কথা, ‘সিরিজ যেহেতু জিতেছি, তাই আমি কাঁটাছেড়া বা পোস্টমর্টেম আর করতে চাই না। এটা একটা প্রাপ্তি হয়ে গেছে। এখন সামনের সিরিজ নিয়েই মাথা ঘামাতে চাই। দেশের মাটিতে খেলা । জিম্বাবুয়ের তুলনায় আমাদের দেশের প্রেক্ষাপট ও কন্ডিশন ভিন্ন। অনেক উষ্ণ ও আর্দ্র। এখানে এনার্জি দরকার। এখানে ভালো ক্রিকেট কিভাবে খেলা যায়, সেটাই চিন্তা করার বিষয়।’

তারপরও নান্নু মনে করছেন, পাওয়ার প্লে’র বোলিংটা একটু ঠিক করতে হবে। তিনি বলেন, ‘ওভারঅল তিন ম্যাচ ব্যাটিংয়ের ব্যালেন্স ঠিক ছিল। বোলিংটা আরও ওয়ার্কআউট করতে হবে। শুরুর পাওয়ার প্লে‘তে বোলিংটা একটু ঠিক করা দরকার।’

এআরবি/এমএমআর/এএএইচ

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]