মুশফিক ইস্যুতে অসিদের সমালোচনা ডোমিঙ্গোর

বিশেষ সংবাদদাতা
বিশেষ সংবাদদাতা বিশেষ সংবাদদাতা
প্রকাশিত: ০৫:৪৪ পিএম, ০১ আগস্ট ২০২১

সবার জানা অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে পাঁচ ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজে নেই মুশফিকুর রহীম। নাহ, কোন ইনজুরির কারণে নয়, ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার বেঁধে দেয়া কঠিন করোনা প্রটোকল বা শর্তের গ্যাঁড়াকলে পড়ে এই সিরিজের বাইরে ছিটকে পড়েছেন মিস্টার ডিপেন্ডেবল।

জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি সিরিজের আগে হঠাৎই করোনায় আক্রান্ত হন মুশফিকের বাবা-মা। দু’জনউ ঢাকার ইউনাইটেড হাসপাতালে ভর্তি হলে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজ না খেলে দেশে ফেরত আসেন মুশফিক।

ওদিকে অস্ট্রেলিয়ানরা কঠিন শর্ত এঁটে দিয়েছে যে, ‘তাদের সাথে যারা খেলবে, তাদের অবশ্যই ১০ দিনের জৈব সুরক্ষা বলয় আর না হয় ১৪ দিনের কোয়ারেন্টাইনে থাকতে হবে। মুশফিক দেশে ফিরে ওই কোয়ারেন্টাইন করার জন্য ১৪ দিন সময় হাতে ছিল না এবং কিংবা তিনি পড়ে যান জৈব সুরক্ষা বলয়ের বাইরে। যেখানে অন্তত ১০দিন থাকতে হতো তাকে।

যে কারণে আর তার পক্ষে আগস্ট ৩ আগস্ট থেকে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে শুরু হতে যাওয়া সিরিজ খেলা হচ্ছে না। দেশের মাটিতে অস্ট্রেলিয়ার মত বিশ্ব ক্রিকেটের অন্যতম সমৃদ্ধ ও শক্তিশালী দলের বিপক্ষে খেলা, অথচ তাতে সম্পূর্ণ সুস্থ থেকেও নেই মুশফিক। বিষয়টা মেনে নেয়া কষ্টকর।

এ সিরিজের আগে নির্ভরতার প্রতীক মুশফিককে খুব বেশি করে মনে পড়ছে কোচ রাসেল ডোমিঙ্গোর। এবং তার অনুভব অসিদের বেঁধে দেয়া কঠোর করোনা প্রটোকলের কারণেই মুশফিকের খেলা হচ্ছে না।

পুরো বিষয়টিকে হতাশা ও দুঃখজনক বলে অভিহিত করে ডোমিঙ্গো বলেন, ‘জৈব সুরক্ষা বলয়ে থাকার বিষয়ে অস্ট্রেলিয়ার এ কঠোর করোনা প্রটোকল আমি মোটেই মেনে নিতে পারছি না। এবং তারা (অস্ট্রেলিয়ানরা) যেভাবে পুরো বিষয়টিকে দেখেছে সেটাই খুব হতাশার।’

টাইগার কোচের দাবি ১০ দিনের কোয়ারেন্টাইনই ছিল যথেষ্ঠ। এদিকে কঠিন বাস্তবতা হলো, অসিদের বিপক্ষে মুশফিকুর রহীমের মত অপরিহার্য আর নির্ভরযোগ্য ক্রিকেটারকে ছাড়াই খেলতে হবে বাংলাদেশকে।

মুশফিকের না থাকা অনেক বড় ক্ষতি- এ কথা স্বীকার করে বাংলাদেশের কোচ বলেছেন আমরা বিশ্বের সেরা দলের বিপক্ষে খেলবো। এটা অন্যদের জন্য এবং জনা কয়েক তরুণ ক্রিকেটারদের জন্য বড় সুযোগ। আমি বিশ্বাস করি, তারা তাদের সামর্থ্য আছে।

মুশফিক ইস্যুতে কোচের শেষ কথা, ‘আমাদের অনেক বড় স্কোয়াড আছে এবং কোয়ালিটি প্লেয়ারও আছে তাকে রিপ্লেস করার মত।’

এআরবি/আইএইচএস/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]