‘স্টার্ক-হ্যাজলউডও মানুষ, তারাও খারাপ বল করে’

বিশেষ সংবাদদাতা
বিশেষ সংবাদদাতা বিশেষ সংবাদদাতা
প্রকাশিত: ১০:৪৯ এএম, ০২ আগস্ট ২০২১

স্টিভেন স্মিথ, ডেভিড ওয়ার্নার, গ্লেন ম্যাক্সওয়েল, অ্যারন ফিঞ্চ, প্যাট কামিনসসহ তারকা গোছের এবং ফ্রন্টলাইনের ৭-৮ জন নেই দলে। ঐসব নামী, পরিণত ও ম্যাচ জেতানো পারফরমারদের ছাড়া বাংলাদেশে আসা অস্ট্রেলিয়া আসলে কতটা সমৃদ্ধ ও শক্তিশালী দল? তা নিয়ে ছোটখাটো বিতর্ক হতেই পারে।

বাংলাদেশের সাথে যে দলটি খেলতে এসেছে, সে দলের বোলিংটাই আসলে মূল শক্তি। ধারণা করা হচ্ছে, মিচেল স্টার্ক আর জশ হ্যাজলউডের ধারালো ফাস্ট বোলিং এবং অ্যাডাম জাম্পার লেগস্পিন সামলানোই হবে টাইগারদের বড় চ্যালেঞ্জ।

কথাবার্তায় বোঝা গেল, টিম বাংলাদেশের হেড কোচ রাসেল ডোমিঙ্গোও সে সত্যই অনুভব করছেন। তাই অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে সিরিজের আগে নিজ দলের ব্যাটসম্যানদের সাহস বাড়ানোর কাজ করাকেই কাজের কাজ বলে মনে করেন ডোমিঙ্গো।

নিজ দলের ব্যাটসম্যানরা যাতে মিচেল স্টার্ক আর হ্যাজলউডের ভয়ে ভীত না হন, তাদের বিপক্ষে যাতে ‘মনের বাঘে না খায়’, সে জন্যই কিছু সাহসবর্ধক দাওয়াই দিয়েছেন টাইগার হেড কোচ।

ব্যাটসম্যানদের মনের জোর বাড়াতে এ দক্ষিণ আফ্রিকান কোচ বলেছেন, ‘মিচেল স্টার্ক আর জশ হ্যাজলউড সত্যিই কোয়ালিটি বোলার। আমরা তাদের বোলিংয়ের ভিডিও ফুটেজ দেখেছি। আমি ছেলেদের বলেছি, তোমরা বোলারদের বলের বিপক্ষে খেলবে। কোনো মানুষকে মোকাবিলা করবে না।’

স্টার্ক ও হ্যাজলউড অনেক বিধ্বংসী বোলার। বোলিং কার্যকরিতাও যথেষ্ঠ। কিন্তু তারাও মানুষ। অতিমানব নন। ভাল বলের পাশাপাশি আলগা ডেলিভারিও বের হয় তাদর হাত থেকে। তা জেনে বুঝেই ডোমিঙ্গো বলেন, ‘আসলে তারাও (স্টার্ক ও হ্যাজলউড) মানুষ এবং তারাও খারাপ বল করেন।’

নিজ দলের ব্যাটসম্যানদের ভাল খেলতে উজ্জীবিত করে ডোমিঙ্গো বলেন, ‘ব্যাটসম্যানদের পরিষ্কার মন নিয়ে নিশ্চিন্তে খেলতে হবে। বাজে বলগুলোকে শায়েস্তা করতে হবে। সবসময় মনে রাখতে পারবে, তারা সত্যিই কোয়ালিটি বোলার এবং তাদের বলকে খেলতে হবে, তাদেরকে নয়।’

এআরবি/এসএএস/এমকেএইচ

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]