অ্যামব্রোসের প্রতি আর কোনো সম্মান নেই গেইলের

স্পোর্টস ডেস্ক
স্পোর্টস ডেস্ক স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত: ০১:০৯ পিএম, ১৪ অক্টোবর ২০২১

দুজনেই ওয়েস্ট ইন্ডিজ ক্রিকেটের মহারথি। তবে সম্প্রতি কার্টলি অ্যামব্রোসের এক মন্তব্যের জেরে বেজায় চটেছেন ক্রিস গেইল। এমনকি প্রকাশ্যে গেইল বলেও বসেছেন, আমব্রোসের প্রতি তার আর কোনো সম্মান নেই।

বারবাডোজের এক রেডিও শোতে কিছুদিন আগে ওয়েস্ট ইন্ডিজের সাবেক কিংবদন্তি পেসার আমব্রোস বলেছিলেন, গেইল এখন আর ক্যারিবিয়ান দলের অটো চয়েজ নন। এমনকি টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের প্রথম একাদশে তার জায়গা পাওয়া উচিত নয়। অ্যামব্রোসের সেই কথার পাল্টা জবাবে নিজের ব্যাটিংয়ের মতোই যেন ‘বিস্ফোরক’ গেইল।

সেন্ট কিটসের রেডিও স্টেশন দ্য আইল্যান্ড টি মর্নিং সেশনে দ্য ইউনিভার্স বস বলেছেন, ‘আমি যখন প্রথমবার ওয়েস্ট ইন্ডিজ দলে সুযোগ পেয়েছিলাম, অ্যামব্রোসকে তখন অনেক শ্রদ্ধা করতাম। এখন মন থেকেই বলছি, উনি অবসর নেয়ার পর থেকে তার কী যেন হয়েছে। ক্রিস গেইলের সঙ্গে তার সমস্যাটা কী আমি জানি না। সে সব সময় আমার বিরুদ্ধে বারবার বিরূপ মন্তব্য করেন। আমি এও জানি না, উনি যেসব নেতিবাচক কথা গণমাধ্যমে বলছেন সেটা শিরোনামে আসার জন্য কিনা। তবে এখন এতটুক বলতে পারি, তার জন্য আমার পক্ষ থেকে আর কোনো গুরুত্ব বা সম্মান নেই।‘

এখানেই থামেননি গেইল। আমব্রোসকে সামনে পেলে সরাসরি নাকি মুখের ওপর এ কথাটি জানিয়ে দিবেন তিনি, ‘কার্টলি অ্যামব্রোসকে নিয়ে আমার বলার আর কিছু নেই। সামনাসামনি দেখা হলে আমি তাকে বলে দিবো, আপনার প্রতি আমার আর কোনো সম্মান নেই। আর এসব সমালোচনা বন্ধ করুন। আর বিশ্বকাপকে সামনে রেখে শুধু দলকে সমর্থন দিন। এটা বাছাই করা দল (বিশ্বকাপের জন্য) এবং সাবেক খেলোয়াড়দের থেকে আমাদের সমর্থন দরকার।‘

গত সপ্তাহে গেইলকে রীতিমতো আক্রমণ করেই অ্যামব্রোস বলেছিলেন, ‘এখনও ব্যাট হাতে বিধ্বংসী হয়ে ওঠার ক্ষমতা আছে গেইলের। তবে শেষ ১৮ মাসে তার পারফরম্যান্সে আমি মোটেই আশাবাদী নই। ও বিশ্বকাপ দলের অটোমেটিক চয়েস কি-না, সেটা নিয়েও আমার সন্দেহ আছে। শুধু জাতীয় দলের হয়ে নয়, বিশ্বের অন্যান্যা ফ্র্যাঞ্চাইজি টুর্নামেন্টেও ও খেলতে পারেনি। ঘরের মাটিতে দেশের হয়ে খেলেও কিছু করতে পারেনি।’

টি-টোয়েন্টিতে একটা সময় একক রাজত্ব করা গেইল এখন সত্যিই বয়সের ভারে অনেকটা ধারহীন। ব্যাট হাতে সহসাই ঝড় তুলতে দেখা যায় না তাকে। এবারের ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগে (আইপিএল) নিয়মিত একাদশেও ছিলেন না। এ বছর ১৬টি কুড়ি ওভারের ম্যাচ খেলে গেইলের রান মাত্র ২২৭ রান। একটা হাফসেঞ্চুরি আছে বটে। তবে ১৭.৪৬ গড়টা তার নামের পাশে বড়ই বেমানান!

এসএস/এএসএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]