টি-২০ বিশ্বকাপ পাকিস্তানের কাছে টুর্নামেন্টের চেয়েও বেশি কিছু

স্পোর্টস ডেস্ক
স্পোর্টস ডেস্ক স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৬:১৬ পিএম, ১৯ অক্টোবর ২০২১

উপমহাদেশের মানুষের কাছে আবেগের আরেক নাম যেন ক্রিকেট। বৈশ্বিক টুর্নামেন্টের সময় সেই আবেগ বেড়ে যায় বহুগুণে। পিছিয়ে নেই পাকিস্তানও। এবারের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ পাকিস্তানিদের কাছে টুর্নামেন্টের চেয়েও বেশি কিছু।

কেন? বিশ্বকাপ অন্যদের যেমন হওয়া উচিৎ, পাকিস্তানের কাছে তেমন না হয়ে বিশেষ কিছু কেন? অনেকগুলো কারণ আছে। জবাব খুঁজেছেন পাকিস্তানের বিখ্যাত সাংবাদিক সাইয়েদ তালাত হুসাইন। গালফ নিউজে লেখা এক মন্তব্য প্রতিবেদনে এর জবাবটা তুলে ধরেছেন তিনি।

প্রথম ম্যাচেই ভারতের মুখোমুখি পাকিস্তান

২৪ অক্টোবর দুবাইয়ে ভারতের বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে পাকিস্তানের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ মিশন শুরু হবে। যে ভারত-পাকিস্তান ম্যাচ নিয়ে এরইমধ্যে উন্মাদনা শুরু হয়ে গেছে।

উচ্চমূল্যে টিকিট বিক্রি হচ্ছে আর ক্রিকেটপাগল ভক্তরা তা বেশি দাম দিয়ে হলেও কিনছেন। এই ম্যাচ উপলক্ষে বিজ্ঞাপনদাতারা প্রচুর বিজ্ঞাপন দিয়ে থাকেন। সেই বিজ্ঞাপন থেকে স্পোর্টস চ্যানেলগুলোর লাভের পরিমাণও আকাশচোঁয়া।

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমগুলোও থাকে উত্তেজনায় পরিপূর্ণ। টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে ভারতের বিপক্ষে পাকিস্তান কখনোই জিততে পারেনি। আরব-আমিরাতে দুর্দান্ত পারফর্ম করা পাকিস্তান এবার নিশ্চয়ই ‘হারের বৃত্ত’ ভাঙতে চাইবে।

T20 WC

ম্যাচের চেয়েও বেশি কিছু

এর দু’দিন পর ২৬ অক্টোবর শারজাহতে পাকিস্তান তাদের দ্বিতীয় ম্যাচ খেলবে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে। এই ম্যাচ নিয়েও পাকিস্তানিদের মধ্যে উন্মাদনার কমতি নেই। কারণ এই নিউজিল্যান্ড দলটিই সেপ্টেম্বরে পাকিস্তানের বিপক্ষে ম্যাচ শুরুর কিছুক্ষণ আগে ‘নিরাপত্তার অজুহাতে’ সিরিজ বাতিল করে দেয়।

পাকিস্তান প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান পর্যন্ত চেষ্টা করে কিউইদের সিরিজ বাতিল ঠেকাতে পারেননি। পাকিস্তানের সাবেক ক্রিকেটাররা মন্তব্য করেছেন, নিউজিল্যান্ড তাদের ক্রিকেটকে ‘হত্যা’ করে গেছেন। যার জের ধরে ইংল্যান্ডও পাকিস্তান সফর বাতিল করে দেয়।

পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের (পিসিবি) চেয়ারম্যান রমিজ রাজা তখন ঘোষণা করেছেন, পাকিস্তানের ক্রিকেটাররা মাঠেই এর জবাব দেবে। সুতরাং, এবারের বিশ্বকাপে পাকিস্তানি ক্রিকেটাররা নিশ্চয়ই পারফরম্যান্স দিয়ে নিউজিল্যান্ডকে ‘সিরিজ বাতিলের জবাব’ দিতে চাইবে।

স্পোর্টস ইজ সফট পাওয়ার

দু’দিন বিরতি দিয়ে ২৯ অক্টোবর আরেক প্রতিবেশি দেশের বিপক্ষে খেলতে নামবে পাকিস্তান। দুবাইয়ে এবার পাকিস্তানিদের প্রতিপক্ষ আফগানিস্তান।

সংঘাতের মধ্যে বেড়ে ওঠা আফগানরা ক্রিকেট জগতে খুব অল্প সময়ের মধ্যেই নিজেদের অন্যতম সেরা দলে পরিণত করেছে। ‘ভারত-পাকিস্তান’ ম্যাচের মতো এই ম্যাচটিও সমান উত্তেজনাপূর্ণ।

এত এত উত্তেজনাপূর্ণ এবং গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচ। পাকিস্তানি সমর্থকদের কাছে তাই এবারের বিশ্বকাপ একটি টুর্নামেন্টের চেয়েও বেশি কিছু। এর মধ্য দিয়ে তাদের নিজেদের মান-সম্মান যোগ ওতপ্রোতভাবে জড়িত।

আইএইচএস/

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]